করোনায় মৃত্যু হলেও পরিবার পেতে পারে সরকারি বীমার ২ লক্ষ টাকা

আক্রান্ত ব্যক্তি যদি ওই যোজনার গ্রাহক হন, তাহলে টাকা দাবি করতে পারে তাঁর পরিবার।

  • TV9 Bangla
  • Published On - 14:53 PM, 30 Apr 2021
করোনায় মৃত্যু হলেও পরিবার পেতে পারে সরকারি বীমার ২ লক্ষ টাকা
ফাইল চিত্র

নয়া দিল্লি: বর্তমান পরিস্থিতিতে চারদিক থেকে আসছে উদ্বেগজনক খবর। প্রত্যেক দিন করোনা সংক্রমিতের সংখ্যা যেরকম বাড়ছে, আসছে মৃত্যুর খবরও। অনেকেই জানেন না যে করোনায় মৃত্যু হলেও কেন্দ্রের ‘প্রধানমন্ত্রী জীবন জ্যোতি বীমা যোজনা’র টাকা পেতে পারে পরিবার। ২ লক্ষ টাকা পর্যন্ত পাওয়া যেতে পারে ওই বীমায়।

২০১৫ সালের ৯ মে ‘প্রধানমন্ত্রী জীবন জ্যোতি যোজনা’ চালু করা হয়। এই বীমায় কারও মৃত্যু হলে তাঁর পরিবার ২ লক্ষ টাকা পাবে। ১৮ থেকে ৫০ বছর বয়সী যে কোনও ব্যাংকের গ্রাহক এই বীমা করাতে পারেন। যে কোনও কারণে মৃত্যু হলেই এই বীমার টাকা পাওয়া যায়। তাই করোনায় মৃত্যু হলেও এই বীমার টাকা পাওয়া যাবে। এমনকি খুন বা আত্মহত্যার ঘটনাতেও টাকা পাওয়া যায়। আক্রান্ত ব্যক্তি যদি এই বীমা কিনে থাকেন তাহলে তাঁর পরিবার অবশ্যই এই টাকা পাবেন।

এখন কি এই বীমা কেনা সম্ভব?

বছরের যে কোনও সময়ে এই পলিসি করানো যায়। জুন, জুলাই, আগস্টের মধ্যে বীমা কিনলে বছরে একবারই প্রিমিয়াম দিতে হবে ৩৩০ টাকা, সেপ্টেম্বর, অক্টোবর কিংবা নভেম্বরে বীমা কিনলে ২৫৮ টাকা ও ৮0 টাকা ভাগ করে দেওয়া যাবে। ডিসেম্বর, জানুয়ারি কিংবা ফেব্রুয়ারিতে বীমা কিনলে ৮৬ টাকা করে ভাগ করে প্রিমিয়াম দিতে হবে আর মার্চ, এপ্রিল বা মে মাসে পলিসি করালে দিতে হবে ৮৬ টাকা করে।

এই পলিসির খুঁটিনাটি

প্রিমিয়াম বছরে ৩৩০ টাকা করে। এই পলিসির গ্রাহক হলে মৃত্যুর পর তাঁর পরিবার দু’লক্ষ টাকা পাবে। ব্যাংক অ্যাকাউন্টের মাধ্যমে এই পলিসি করানো সম্ভব। ওই একই ব্যাংক থেকে বীমার টাকা ক্লেম করতে হবে।

সাধারণত গ্রাহকের মৃত্যু হলে তার ৩০ দিনের মধ্যে ওই বীমার টাকা ক্লেম করতে হয়, কিন্তু অনেক ক্ষেত্রে ডেথ সার্টিফিকেট, মৃত্যুর কারণ সামনে আসতে এক মাসেরও বেশি সময় লেগে যায়। ফলে এর জন্য আলাদা করে কোনও তাড়াহুড়ো করার দরকার নেই। যে ভাবে বাকি প্রক্রিয়া এগোবে তার সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখেই ব্যাংকে বীমার টাকা দাবি করতে হবে। ক্লেম করার প্রক্রিয়া সম্পন্ন হওয়ার ৩০ দিনের মধ্যেই ব্যাংক টাকা দিয়ে দেয়।