সোনার চাহিদায় ৭৯ শতাংশের বড় ঢেউ, ২০২১ এ পৌঁছলো ৭৯৭.৩ টনে

সোনার চাহিদায় ৭৯ শতাংশের বড় ঢেউ, ২০২১ এ পৌঁছলো ৭৯৭.৩ টনে
ফাইল চিত্র

Gold Demand: দামের আধারে দেখা গেলে গয়নার চাহিদা ৯৬ শতাংশ বেড়ে ২,৬১,১৪০ কোটি টাকায় পৌঁছে গিয়েছে। ২০২০-তে যা ছিল ১,৩৩,২৬০ কোটি টাকা। মোট বিনিয়োগ চাহিদা ২০২১ এ ৪৩ শতাংশ বেড়ে ১৮৬.৫ টন হয়ে গিয়েছে।

TV9 Bangla Digital

| Edited By: Shubhendu Debnath

Jan 28, 2022 | 6:33 PM

নয়া দিল্লি: গ্রাহকদের মনোভাব উন্নত আর কোভিড-১৯ সম্পর্কিত বাধার পর ভারতে সোনার ব্যবহার ২০২১ সালে বেড়ে ৭৯৭.৩ টনে পৌঁছে গিয়েছে। আর চলতি বছরেও সোনার এই চাহিদা বজায় থাকার অনুমান রয়েছে। বিশ্ব স্বর্ণ পরিষদ (WGC) ‘সোনার চাহিদার গতিপ্রকৃতি ২০২১’ রিপোর্টে বলেছে যে ২০২১ এ সোনার চাহিদা ৭৮.৬ শতাংশ বেড়ে ৭৯৭.৩ টন হয়ে গিয়েছে যা ২০২২-তে ছিল ৪৪৬.৪ টন। ডব্লিউজিসির প্রধান কার্যকরী আধিকারীক সোমসুন্দরম পিআর বলেছেন, ‘ ২০২১ সাল সোনার ব্যাপারে প্রথাগত ধারনার শক্তিকে আরও একবার প্রমাণিত করেছে আর পুনরুদ্ধারে বেশ কিছু শিক্ষা দিয়েছে যা আগামী বছরে জন্য নীতিগত ভাবনাকে আকৃতি দেবে।’ তিনি আরও বলেন, ‘ভারতে সোনার চাহিদা ৭৯ শতাংশ বেড়ে ৭৯৭.৩ টন হয়ে গিয়েছে। যা প্রধানত চতুর্থ ত্রৈমাসিকের ৩৪৩ টনের অসাধারণ চাহিদার পরিণাম। এই চাহিদা তৃতীয় ত্রৈমাসিকে করা আমাদের অনুমানের চেয়েও এগিয়ে গিয়েছে আর সবচেয়ে ভাল ত্রৈমাসিক প্রমাণিত হয়েছে।’

সোমসুন্দরম ২০২২ সাল নিয়ে বলেন যে বর্তমান গতিপ্রকৃতি যদি বজায় থাকে আর কোনও বিশেষ ব্যবধান না আসে তো সোনার চাহিদা প্রায় ৮০০-৮৫০ টন হওয়ার আশা রয়েছে। তিনি বলেন, সোনার গয়নার চাহিদা গত বছরের তুলনায় ২০২১ এ দ্বিগুন হয়ে গিয়েছে আর মহামারীর আগের স্তরকেও পেরিয়ে ছয় বছরের সর্বোচ্চ স্তরে পৌঁছে গিয়েছে। চতুর্থ ত্রৈমাসিকে ২৬৫ টনের রেকর্ড চাহিদা ছিল। রিপোর্ট অনুযায়ী, ২০২১ এ গয়নার চাহিদা ৯৩ শতাংশ বেড়ে ৬১১ টন ছিল। ২০২০তে এই চাহিদা ছিল ৩১৬ টন।

দামের ভিত্তিতে গয়নার চাহিদা ৯৬ শতাংশ বেশি

দামের আধারে দেখা গেলে গয়নার চাহিদা ৯৬ শতাংশ বেড়ে ২,৬১,১৪০ কোটি টাকায় পৌঁছে গিয়েছে। ২০২০-তে যা ছিল ১,৩৩,২৬০ কোটি টাকা। মোট বিনিয়োগ চাহিদা ২০২১ এ ৪৩ শতাংশ বেড়ে ১৮৬.৫ টন হয়ে গিয়েছে। দামের দিক থেকে চাহিদা ৪৫ শতাংশ বৃদ্ধির বেড়ে ৭৯,৭২০ কোটি টাকা হয়েছে। তবে দেশের মোট সোনার রিসাইকেলিং ৭৫.২ টন ছিল। ভারতে মোট সোনার আমদানি ১৬৫ শতাংশ বেড়ে ৯২৪ টন হয়েছিল।

উৎসবের মরশুমে ছিল ব্যাপক চাহিদা

WGC রিপোর্টে জানা যায় গত অক্টোবর আর নভেম্বরে উৎসবের মরশুমে ভারতীয়া জমিয়ে সোনা কিনেছে। এরপর বিয়ের পিক সিজনেও সোনার বিক্রি বেড়েছে। বর্তমান বাজারের ইঙ্গিত দেখে আশা রয়েছে যে ২০২২ এ সোনার আমদানি এই বছরের তুলনায় মজবুত থাকবে। এর প্রধান কারণ অর্থব্যবস্থায় গতি আসায় গয়নার চাহিদা বেড়েছে।

আরও পড়ুন: Gold Price Today: আজ ফের বাড়ল সোনা রুপোর দাম, জানুন বর্তমান দর

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 BANGLA