BSF Empowered at Punjab: ‘সস্তায় নাম কামানোর চেষ্টা’, সিধু ঘনিষ্ঠ মন্ত্রীকে আক্রমণ ক্যাপ্টেনের

Amarinder Singh: 'সস্তায় নাম কামানোর জন্য এই ধরনের আকাশ কুসুম গল্প বানাচ্ছেন পরগত সিং। মন্তব্য প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীর।

BSF Empowered at Punjab: 'সস্তায় নাম কামানোর চেষ্টা', সিধু ঘনিষ্ঠ মন্ত্রীকে আক্রমণ ক্যাপ্টেনের
প্রধানমন্ত্রী ধন্যবাদ অমরিন্দর সিংয়ের। ফাইল ছবি

চণ্ডীগঢ়: সীমান্তরক্ষী বাহিনীর ক্ষমতা বাড়ানোকে কেন্দ্র করে কেন্দ্রের উপর বেজায় চটেছে পঞ্জাব সরকার। আর এরই মধ্যে পঞ্জাবের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ক্যাপ্টেন অমরিন্দর সিং এক হাত নিলেন পঞ্জাবের মন্ত্রী পরগত সিংকে। রাজনৈতিক মহলে, পরগত সিংয়ের আর পাঁচজন বিধায়ক ছাড়াও অন্য একটি পরিচয়ও রয়েছে। তিনি নাকি প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি নভজ্যোৎ সিং সিধুর অত্যন্ত ঘনিষ্ঠ। সীমান্ত রক্ষী বাহিনী নিয়ে পঞ্জাব সরকারের অবস্থান নিয়ে এবার পরগত সিংকেই আক্রমণ করলেন অমরিন্দর সিং। বললেন, ‘সস্তায় নাম কামানোর জন্য এই ধরনের আকাশ কুসুম গল্প বানাচ্ছেন তিনি।’

উল্লেখ্য, কিছুদিন আগেই সীমান্ত রক্ষী বাহিনীর নিয়মে কিছু বদল এসেছে। সেই নিয়ম অনুযায়ী, পঞ্জাব, বাংলা ও অসমে বাড়তি ক্ষমতা পেয়েছে সীমান্ত রক্ষী বাহিনী। আগে যেখানে সীমান্তের ১৫ কিলোমিটার ভিতর পর্যন্ত তল্লাশি ও গ্রেফতারির অধিকার ছিল বাহিনীর হাতে, এখন তা বাড়িয়ে ৫০ কিলোমিটার পর্যন্ত করা হয়েছে। আর এই সিদ্ধান্ত মোটেই ভালভাবে দেখছে না পঞ্জাব। পঞ্জাব সরকারের বক্তব্য, একতরফাভাবে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এটি যুক্তরাষ্ট্রীয় পরিকাঠামোর পরিপন্থী। কিন্তু পঞ্জাবের কংগ্রেস সরকারের থেকে একেবারে ভিন্ন মত প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ক্য়াপ্টেন অমরিন্দর সিংয়ের। তিনি আবার স্বাগত জানিয়েছেন সীমান্ত রক্ষী বাহিনীর ক্ষমতা বাড়ানোকে।

আর এরপরই ক্যাপ্টেনের উদ্দেশে তির্যক আক্রমণ শানিয়ে পঞ্জাবের মন্ত্রী পরগত সিং বলেছিলেন, আমি সবসময়েই বলে এসেছে, ক্যাপ্টেন শুধু বিজেপির সঙ্গেই রয়েছে। এর আগে তিনি দিল্লিতে গিয়ে শস্য় কেনায় দেরি করিয়েছেন। আর এখন এই সবে সমর্থন দিচ্ছেন। পঞ্জাবে সীমান্ত রক্ষী বাহিনীর হাতে অতিরিক্ত ক্ষমতা দেওয়ার থেকেই কেন্দ্রের চিন্তা ভাবনা স্পষ্ট। তারা পঞ্জাবে রাষ্ট্রপতির শাসন আনতে চায়।

ক্যাপ্টেন তার আগে সীমান্ত রক্ষী বাহিনীর ক্ষমতা বাড়ানো স্বাগত জানিয়ে বলেছিলেন, দেশের সশস্ত্র বাহিনীকে রাজনীতির মধ্যে টেনে আসা উচিত নয়।

সম্প্রতিই স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ(Amit Shah)-র সঙ্গে দেখা করেছিলেন পঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী। সেই সময় তিনি অনুরোধ করেছিলেন যে, সীমান্তে ক্রামাগত অনুপ্রবেশের ঘটনা বাড়ছে। কেন্দ্রের তরফে সীমান্তে যেন নিরাপত্তা আরও বাড়ানো হয়। এদিকে বিএসএফের ক্ষমতা বৃদ্ধি করতেই নয়া মুখ্যমন্ত্রী চন্নির দাবি, এটি যুক্তরাষ্ট্রীয় ব্যবস্থার উপর আক্রমণ। কেন্দ্র যেন দ্রুত এই নির্দেশ প্রত্যাহার করে নেয়।

এতদিন পর্যন্ত পশ্চিমবঙ্গ, পঞ্জাব ও অসমে সীমান্ত থেকে ১৫ কিলোমিটার ভিতর পর্যন্ত তল্লাশি অভিযান, বাজেয়াপ্ত ও গ্রেফতারির ক্ষমতা ছিল সীমান্তরক্ষী বাহিনীর হাতে। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের নতুন নিয়মে বিএসএফের বিচরণের ক্ষেত্র বাড়িয়ে ৫০ কিলোমিটার পর্যন্ত করা হয়েছে। অর্থাৎ, এখন থেকে পাকিস্তান ও বাংলাদেশের সঙ্গে সীমান্তবর্তী এলাকায় দেশের ভিতরে সীমান্ত থেকে ৫০ কিলোমিটার ভিতর পর্যন্ত তল্লাশি, গ্রেফতারি করতে পারবেন জওয়ানরা।

আরও পড়ুন : Punjab: ‘যুক্তরাষ্ট্রীয় ব্যবস্থায় আক্রমণ’, বিএসএফের ক্ষমতা বৃদ্ধির বিরোধিতা পঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রীর, দলের অন্দরেও শুরু দোষারোপের পালা

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla