PM-CM COVID Review Meeting: করোনার বিরুদ্ধে একসঙ্গে লড়াইয়ের বার্তা, নমোকে কী কী সমস্যার কথা জানালেন মুখ্যমন্ত্রীরা?

What CMs told PM Modi in COVID Review Meeting: ঝাড়খণ্ডের মুখ্যমন্ত্রী হেমন্ত সোরেন জানান, দেশে করোনা সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ার প্রায় দুই বছর হয়ে গেলেও, এখনও বহু মানুষের মধ্যেই ভুল ধারণা রয়ে গিয়েছে।

PM-CM COVID Review Meeting: করোনার বিরুদ্ধে একসঙ্গে লড়াইয়ের বার্তা, নমোকে কী কী সমস্যার কথা জানালেন মুখ্যমন্ত্রীরা?
প্রধানমন্ত্রীকে কোন মুখ্য়মন্ত্রী কী বললেন? ছবি:PTI

নয়া দিল্লি: করোনা পরিস্থিতি নিয়ে সমস্ত রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে বৈঠকে (COVID-19 Review Meeting) বসেছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী(Narendra Modi)। বৈঠকেই তিনি টিকাকরণের উপর বিশেষ জোর দেওয়ার বার্তা দেন। করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে সমস্ত রাজ্য যাতে মিলিতভাবে এগিয়ে আসে, সেই বার্তাও দেন প্রধানমন্ত্রী। তবে শুধু নিজের বক্তব্য রাখাই নয়, বিভিন্ন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীদের কথাও শুনেছেন তিনি।

কোন মুখ্যমন্ত্রী কী বললেন?

নতুন বছরেই কঠিন লড়ািয়ের সামনে দাঁড়াতে হচ্ছে গোটা দেশকে। দৈনিক করোনা সংক্রমণ প্রায় আড়াই লক্ষের কাছাকাছি পৌঁছেছে। বাড়ছে অতি সংক্রামক ওমিক্রন ভ্যারিয়েন্টের দাপটও। এই পরিস্থিতির মাঝেই গতকাল প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বিবিন্ন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীদের কাছ থেকে তাদের মতামত জানতে চাইলে তামিলনাড়ুর মুখ্যমন্ত্রী এমকে স্ট্যালিন বলেন, “আমাদের রাজ্য কেন্দ্রের পাশে রয়েছে। করোনার এই ঢেউয়ের বিরুদ্ধে একজোট হয়ে লড়বই।”

অন্যদিকে, ঝাড়খণ্ডের মুখ্যমন্ত্রী হেমন্ত সোরেন জানান, দেশে করোনা সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ার প্রায় দুই বছর হয়ে গেলেও, এখনও বহু মানুষের মধ্যেই ভুল ধারণা রয়ে গিয়েছে। বিশেষত গ্রামীণ ও আদিবাসী অধ্যুষিত এলাকাগুলিতে টিকাকরণের ক্ষেত্রে বাধার সম্মুখীন হতে হচ্ছে। তাও জোরকদমে টিকাকরণের কাজ চলছে।

উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ জানান, রাজ্যে সামনেই বিধানসভা নির্বাচন। তাই জোরকদমে টিকাকরণ চলছে। সংক্রমণের গত দুটি ঢেউয়ে যে পরিস্থিতির সম্মুখীন হতে হয়েছিল, সেই পরিস্থিতির যাতে পুনরাবৃত্তি না হয়, তার জন্য বিভিন্ন প্রচেষ্টা চালানো হচ্ছে। কেউ যাতে করোনা টিকা থেকে বাদ না পড়েন, তা নিশ্চিত করার চেষ্টা করা হচ্ছে।

পঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রীর পালা আসতেই তিনি প্রথমেই প্রধানমন্ত্রীর নিরাপত্তায় গাফিলতির ঘটনায় ফের একবার দুঃখ প্রকাশ করেন। এরপর তিনি প্রধানমন্ত্রীকে রাজ্যে করোনা মোকাবিলার জন্য যে আর্থিক ও পরিকাঠামোগত সাহায্য করা হয়েছে, তার জন্য ধন্যবাদ জানান। বিশেষত করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে অক্সিজেন সঙ্কট দেখা দেওয়ার পর যেভাবে কেন্দ্রের তরফে প্রতিটি রাজ্যে অক্সিজেন প্ল্যান্ট তৈরি করে দেওয়া হয়েছে, তার জন্য়ও বিশেষ ধন্যবাদ জানান পঞ্জাবের মুখ্য়মন্ত্রী।

উত্তর-পূর্ব ভারতেও যেহেতু করোনা সংক্রমণ বেড়ে চলেছে, সেই কারণে উত্তর পূর্ব ভারতের রাজ্যগুলিতে করোনা পরিস্থিতি কীরকম ও টিকাকরণের কী হাল, সে সম্পর্কে জানতে চান প্রধানমন্ত্রী মোদী। অসমের মুখ্যমন্ত্রী হিমন্ত বিশ্ব শর্মা জানান, রাজ্যে সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে বেশ কিছু বিধিনিষেধ জারি করা হয়েছে। এছাড়া কেন্দ্রের নির্দেশিকা অনুযায়ী ১৫ থেকে ১৮ বছর বয়সীদের টিকাকরণ এবং স্বাস্থ্যমন্ত্রী, প্রথম সারির করোনা যোদ্ধা ও ষাটোর্ধ্ব নাগরিকদের প্রিকশন ডোজ় দেওয়াও শুরু হয়েছে। করোনার প্রিকশন ডোজ় রাজ্যবাসীর মধ্যে এক আলাদাই আত্মবিশ্বাস জোগাচ্ছে বলে জানান তিনি। অন্যদিকে মণিপুরের মুখ্যমন্ত্রী জানান, টিকাকরণের নিরিখে বর্তমানে বাকি রাজ্য়ের তুলনায় পিছিয়ে থাকলেও, প্রশাসনের তরফে টিকাকরণের গতি বাড়ানোর সর্বসম্মতভাবে প্রচেষ্টা করা হচ্ছে।

আরও পড়ুন: UP MLA Quits BJP Alliance: ৩ দিনে ১১ জন! যোগী সরকারকে ‘মিথ্যেবাদী’ বলে ইস্তফা আরও এক বিধায়কের 

Published On - 9:18 am, Fri, 14 January 22

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla