Arvind Kejriwal: মদ নিয়ে ধুন্ধুমার! কেজরীবাল সরকারের বিরুদ্ধে CBI তদন্ত চান লেফটেন্যান্ট গভর্নর

Arvind Kejriwal: গত বছর ১৭ নভেম্বর ২০২১-২২ অর্থবর্ষের জন্য নয়া আবগারি নীতি চালু করেছিল দিল্লি সরকার। সেই সময় গোটা শহরকে ৩২টি জ়োনে ভাগ করে ৮৪৯টি দোকানকে মদের লাইসেন্স দেওয়া হয়েছিল।

Arvind Kejriwal: মদ নিয়ে ধুন্ধুমার! কেজরীবাল সরকারের বিরুদ্ধে CBI তদন্ত চান লেফটেন্যান্ট গভর্নর
ছবি: ফাইল চিত্র
TV9 Bangla Digital

| Edited By: অরিজিৎ দে

Jul 22, 2022 | 1:42 PM

নয়া দিল্লি: দিল্লির আম আদমি পার্টি (Aam Admi Party) সরকারের বিরুদ্ধে এবার সিবিআই তদন্তের দাবিতে সরব হলেন লেফটেন্যান্ট গভর্নর বিনয় কুমার সাক্সেনা (Vinai Kumar Saxena)। অরবিন্দ কেজরীবাল (Arvind Kejriwal) সরকারের নয়া আবগারি নীতির বিরুদ্ধে সিবিআই তদন্তের সুপারিশ করেছেন তিনি। দিল্লির মুখ্য সচিব ৮ জুলাই যে নির্দেশিকা জারি করেছেন, তাতে নিয়ম লঙ্ঘন করা হয়েছে বলেই দাবি সাক্সেনার। সাক্সেনার দফতর থেকে প্রকাশিত প্রেস বিবৃতিতে দাবি করা হয়েছে, সুযোগ-সুবিধা পাওয়ার জন্য টেন্ডার হয়ে যাওয়ার পরেও মদের লাইসেন্স প্রদানে বেশ কিছু বেনিয়ম করা হয়েছে। আবগারি দফতরের দিল্লির উপমুখ্যমন্ত্রী মণীশ সিসোদিয়ার দিকে সরাসরি আঙুল তুলেছেন লেফটেন্যান্ট গভর্নর। সাক্সেনার অভিযোগ, এই নতুন নীতিতে আর্থিকভাবে লাভবান হয়েছেন সিসোদিয়া। মদ ব্যবসায়ীদের সুবিধা করে দেওয়ার জন্যই নতুন আবগারি নীতি নেওয়া হয়েছে বলে মনে করেন সাক্সেনা।

খোদ উপমুখ্যমন্ত্রী তথা আম আদমি পার্টির শীর্ষনেতার দিকে লেফটেন্যান্ট গভর্নরের অভিযোগ অত্যন্ত গুরুতর বলেই মনে করছে রাজনৈতিক মহল। বিবৃতিতে সাক্সেনা বলেন, “আবাগারি দফতরের দায়িত্বপ্রাপ্ত মন্ত্রী নিয়ম লঙ্ঘন করে বেশ কিছু বেআইনি পদক্ষেপ করেছেন এবং বড় সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। সেই কারণে রাজ্যের অর্থনীতিতে গুরুতর আর্থিক প্রভাব পড়েছে।” একাধিকবার মণীশের আর্থিকভাবে লাভবান হওয়ার প্রসঙ্গে জোর দিয়েছেন সাক্সেনা।

গত বছর ১৭ নভেম্বর ২০২১-২২ অর্থবর্ষের জন্য নয়া আবগারি নীতি চালু করেছিল দিল্লি সরকার। সেই সময় গোটা শহরকে ৩২টি জ়োনে ভাগ করে ৮৪৯টি দোকানকে মদের লাইসেন্স দেওয়া হয়েছিল। এলাকাগত সমস্যার জন্য লাইসেন্স পেয়েও বেশ কিছু মদের দোকান খোলা সম্ভব হয়নি এমনকী অনেকগুলি দোকানের সিল করে দিয়েছিল পুরনিগম। দিল্লি সরকারের নয়া আবগারি নীতির বিরোধিতা করেছিল কংগ্রেস, বিজেপি সহ বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলি। তারা লেফটেন্যান্ট গভর্নরের কাছে সরকারের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেছিল। এমনকী বিরোধী দলগুলির তরফে কেন্দ্রীয় সংস্থাকে দিয়ে তদন্তের দাবিও উঠেছিল। চলতি সপ্তাহেই মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরীবালের সিঙ্গাপুর সফরকে অনুমতি দেননি সাক্সেনা। লেফটেন্যান্ট গভর্নরের এই অভিযোগ নিয়ে আম আদমি পার্টি কী প্রত্রিক্রিয়া দেয় সেটাই এখন দেখার।

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla