Agniveer: অবসরের পর কোন কাজে লাগানো হবে কর্মবীরদের? জানালেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী অনুরাগ ঠাকুর

Agniveer: অবসরের পর কোন কাজে লাগানো হবে কর্মবীরদের? জানালেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী অনুরাগ ঠাকুর
indian army

Anurag Thakur: অগ্নিপথ প্রকল্প নিয়ে সারা দেশ জুড়ে ক্ষোভ ছড়িয়েছে যুবকদের মধ্যে। প্রতিবাদে আঁচ জ্বলছে রাজ্যে রাজ্যে। সে বিষয়েও নিজের মত জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী।

TV9 Bangla Digital

| Edited By: Angshuman Goswami

Jun 20, 2022 | 4:04 PM

নয়াদিল্লি: সেনাবাহিনীর অগ্নিপথ প্রকল্পের প্রশংসায় পঞ্চমুখ কেন্দ্রীয় যুব ও ক্রীড়ামন্ত্রী অনুরাগ ঠাকুর। এই প্রকল্পকে ঐতিহাসিক অ্যাখ্যা দিয়েছেন তিনি। টিভি৯ নেটওয়ার্কের ‘হোয়াট ইন্ডিয়া থিঙ্কস টুডে গ্লোবাল সামিট’-এ উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী। সেখানেই এক আলোচনা সভায় অগ্নিপথ প্রকল্পের ব্যাপারে বক্তব্য রেখেছেন তিনি। পাশাপাশি অবসর নেওয়ার পর অগ্নিবীরদের কাজে নিযুক্তির ব্যাপারে কেন্দ্রীয় সরকার কী ভাবছে সে কথাও জানিয়েছেন। সেনাবাহিনী থেকে অবসরের পর অগ্নিবীরদের স্কুলে শরীরশিক্ষার প্রশিক্ষক হিসাবে নিয়োগের চিন্তাভাবনা কেন্দ্র করছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

এ ব্যাপারে অনুরাগ বলেছেন, “অগ্নিপথ প্রকল্প একটি ঐতিহাসিক সিদ্ধান্ত। অবসরের পর অগ্নিবীরদের কাজে লাগানো নিয়ে আমার মন্ত্রক চিন্তাভাবনাও চালাচ্ছে। প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত যে সব অগ্নিবীর শারীরিকভাবে সক্ষম থাকবেন তাঁদের স্কুলের শরীরশিক্ষার প্রশিক্ষক হিসাবে নিয়োগ করার চিন্তা চলছে। এর জন্য ব্রিজকোর্স চালুর চিন্তাভাবনাও করা হচ্ছে।” অগ্নিপথ প্রকল্প নিয়ে সারা দেশ জুড়ে ক্ষোভ ছড়িয়েছে যুবকদের মধ্যে। প্রতিবাদে আঁচ জ্বলছে রাজ্যে রাজ্যে। সে বিষয়েও নিজের মত জানিয়েছেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী। তিনি জানিয়েছেন, বিক্ষোভকারীদের উচিত আইন নিজেদের হাতে তুলে না নিয়ে সরকারের সঙ্গে কথা বলা। এ ব্যাপারে অনুরাগ বলেছেন, “সরকারি সম্পত্তি নষ্টের মধ্যে কোনও প্রাপ্তি নেই। আমি আবেদন করছি ভুল তথ্যের জালে জড়াবেন না। কোনও বিভ্রান্তি থাকলে আলোচনা করুন। নিশ্চয় কোনও উপায় বার করা হবে।”

এই খবরটিও পড়ুন

অগ্নিবীরদের ভবিষ্যতের পাশাপাশি অলিম্পকে ভারতের ভবিষ্যত ও দেশের ফিল্ম ইন্ড্রাস্টি নিয়েও মত ব্যক্ত করেছেন অনুরাগ। আগামী ১০ বছরের মধ্যে অলিম্পিকে ভারত বিশ্বের প্রথম দশে থাকবে ববলে আশা তাঁর। এ ব্যাপারে তিনি বলেছেন, “এক জন ক্রীড়াবিদের সর্বোচ্চ পর্যায়ের পরিণত হত সময় লাগে। ৮-৯ বছরের কঠোর পরিশ্রম, সহযোগিতায় তা সম্ভব হয়। এই ফল পাওয়ার আশায় আমরা পরিকাঠামো ইতিমধ্যেই তৈরি করেছি। এবং প্রশিক্ষণের উপরেও জোর দিয়েছি। ভারতে প্রথম দশে আনার যে লক্ষ্যে আমরা হাঁটছি, তা এক দিন সফল হবে।” দেশের প্রায় ৩ হাজার ক্রীড়াবিদকে প্রতিমাসে ১০ হাজার টাকা করে দেওয়া হবে বলেও জানিয়েছেন তিনি। এর পাশাপাশি দেশের ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রি আগামী ১০ বছরে ১০০ বিলিয়ন ডলারে পৌঁছে যাবে বলেও আশা তাঁর।

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 BANGLA