Bowbazar: বউবাজারে ক্ষতিগ্রস্তদের কাছে ক্ষমা চাইল কেএমআরসিএল, বাড়ি ভাঙা নিয়ে চলছে বৈঠক

Bowbazar: বউবাজারে ক্ষতিগ্রস্তদের কাছে ক্ষমা চাইল কেএমআরসিএল, বাড়ি ভাঙা নিয়ে চলছে বৈঠক
দুর্গা পিতুরি লেনে বাড়ি ভাঙার সিদ্ধান্ত

Bowbazar: দুর্গাপিতুরি লেনে প্রথম দফায় দুটি বাড়ি ভাঙা হবে বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছে কেএমআরসিএল। ১৬ ও ১৬এ এই দুটি ভাঙা হবে বলে জানা গিয়েছে।

TV9 Bangla Digital

| Edited By: শর্মিষ্ঠা চক্রবর্তী

May 16, 2022 | 10:03 AM

কলকাতা: ক’টা বাড়ি ভাঙা হবে? আদৌ বাড়ি ভাঙা হলে ক্ষতিগ্রস্তদের যাবতীয় জিনিসপত্র কোথায় যাবে? সে সব নিয়ে দুর্গা পিতুরি লেনে তৈরি হয়েছে চরম অসন্তোষ। যথাযথ পুনর্বাসনের ব্যবস্থা না করেই কেন বাড়ি ভাঙার সিদ্ধান্ত, তা নিয়েই প্রশ্ন তুলেছেন ক্ষতিগ্রস্তরা। প্রাথমিকভাবে দুর্গা পিতুরি লেনের দুটি বাড়ি ভাঙার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কেএমআরসিএল কর্তৃপক্ষ। রবিবার থেকেই ভাঙা হতে পারে ক্ষতিগ্রস্ত বাড়ি। দুর্গা পিতুরি লেনের বাকি বাড়িগুলির বিষয়ে কলকাতা পুরসভার সঙ্গে কথা বলেই সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

দুর্গাপিতুরি লেনে প্রথম দফায় দুটি বাড়ি ভাঙা হবে বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছে কেএমআরসিএল। ১৬ ও ১৬এ এই দুটি ভাঙা হবে বলে জানা গিয়েছে। ১/৪ বাড়িতে লোহার বিম দিয়ে সাপোর্ট দেওয়া হবে। সকাল থেকেই বাড়ির সামনে ভিড় জমিয়েছেন মালিকরা। তাঁদের মাথার ওপর ছাদটাই হারিয়ে যাচ্ছে। এতদিনের সহায় সম্বল, সর্বস্ব খোয়াবেন তাঁরা। বাড়ি ভাঙছে, তবে ঘরের সব আসবাবপত্র কোথায় রাখবেন, এসব নিয়েই ভাবছেন তাঁরা। কেএমআরসিএল-আদৌ কি সে দায়িত্ব নেবে? রবিবার সকালেই কেএমআরসিএল-র প্রতিনিধিদের সঙ্গে বাদানুবাদ শুরু হয় বাড়িমালিকদের। তাঁদের বক্তব্য, কেএমআরসিএল-এর ওপর কোনও ভরসা নেই। মধ্যরাতে স্রেফ হোটেলে থাকার ব্যবস্থা করে দেওয়া হয়েছিল, কিন্তু তাঁদের ঘরের জিনিসগুলো কোথায় যাবে? সেগুলি তো বেওয়ারিশ হয়েই পড়ে রয়েছে। এলাকাবাসীদের বক্তব্য, কেবল দুটি বাড়ি ভাঙা হলেও পাশের বাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হবেই। সেই বাড়িগুলির বাসিন্দাদের কী হবে, সেটা নিয়েও প্রশ্ন থাকছে।

ক’টা বাড়ি ভাঙা হবে, তা নিয়েও তৈরি হয় ধন্দ। প্রথমে ১৬, ১৬/১, ১৯ নম্বর বাড়ি ভেঙে ফেলার সিদ্ধান্ত হয়। শনিবার খবর চাউর হতেই তুমুল উত্তেজনা তৈরি হয় এলাকায়। কাউন্সিলর বিশ্বরূপ দে-কে ফোন করে জানানো হয় বাড়ি ভাঙার কথা। তিনি ফোন করে মেট্রো রেলের সিদ্ধান্তের কথা জানান এলাকার বিধায়ককে। পরিস্থিতি বেগতিক বুঝে এলাকায় ছুটে আসেন মেট্রো রেলের এক আধিকারিক। তিনি জানান, কোথাও একটা ভুল বোঝাবুঝি হচ্ছে, তিনটি বাড়ি ভাঙা হচ্ছে না। একটি বাড়িই ভাঙা হবে। সকালে দেখা যাচ্ছে আবার ১৬, ১৬ এ এই দুটি ভাঙার ক্ষেত্রে উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

এই খবরটিও পড়ুন

বাড়ি ভাঙা নিয়ে একটি চরম জটিলতা তৈরি হয়েছে দুর্গা পিতুরি লেনে। শেষ পাওয়া খবর অনুযায়ী, ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে সাংসদ সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায় ও কেএমআরসিএলের বৈঠক হচ্ছে। ক্ষতিগ্রস্তদের কাছে ক্ষমা চেয়েছেন কেএমআরসিএল কর্তৃপক্ষ। সবরকম সাহায্যের আশ্বাস দিয়েছেন তাঁরা।

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 BANGLA