ভ্যাকসিন ভরতেই ভুলে গেলেন নার্স, শরীরে প্রবেশ করানো হল খালি সিরিঞ্জ

মজার ছলেই ভিডিয়োটি রেকর্ড করেছিলেন এক বন্ধু। পরে ভিডিয়ো দেখতে গিয়ে তাজ্জব তাঁরা।

ভ্যাকসিন ভরতেই ভুলে গেলেন নার্স, শরীরে প্রবেশ করানো হল খালি সিরিঞ্জ
এই সেই অভিযুক্ত নার্স (ভাইরাল ভিডিয়ো থেকে পাওয়া ছবি)

পাটনা: মহামারি কাটিয়ে ওঠার মহৌষধি বলেই চিহ্নিত করা হচ্ছে ভ্যাকসিনকে (Covid vaccine)। দেশ জুড়ে দ্রুত টিকাকরণের প্রক্রিয়া চালানো হচ্ছে, যাতে সব ভয় কাটিয়ে শীঘ্রই এক সুস্থ পৃথিবীর আলো দেখা সম্ভব হয়। কিন্তু সেই ভ্যাকসিনেই তৈরি হচ্ছে মৃত্যুফাঁদ! সামনে আসছে একের পর এক কেলেঙ্কারি। একদিকে কলকাতায় যখন ভুয়ো ভ্যাকসিনের ক্যাম্পের বড়সড় অভিযোগ সামনে এসেছে, অন্য দিকে পাশের রাজ্য বিহারে দেখা গেল আর এক ভয়ঙ্কর ছবি। ভ্যাকসিন না ভরে ফাঁকা সিরিঞ্জ ইনজেক্ট করছেন নার্স। সেই ভিডিয়ো ভাইরাল হতেই ছড়িয়েছে আতঙ্ক। স্বাস্থ্যকর্মীদের ওপর কি তাহলে ভরসা করা যাবে না? অভিযোগ পেয়েই সরানো হল নার্সকে।

বিহারের ছাপড়ার ঘটনা। ঘটনা প্রকাশ্যে আসতে সরিয়ে দেওয়া হয়েছ ওই নার্সকে। যে ব্যক্তিকে ওই সিরিঞ্জের ইনজেকশন দেওয়া হয়েছিল, তাঁরই এক বন্ধু ভিডিয়োটি রেকর্ড করে সোশ্যাল মিডিয়ায় আপলোড করে দেন। সেই ভিডিয়ো ভাইরাল হয়ে যায়। ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে একটি অভিযোগ দায়ের করা হয়। তার ভিত্তিতেই কড়া ব্যবস্থা নেওয়া হয় ওই নার্সের বিরুদ্ধে।

ছাপড়া টাউনের ব্রহ্মপুর এলাকায় একটি টিকাকরণ কেন্দ্রে এই ঘটনা ঘটেছে। ভিডিয়োতে দেখা যাচ্ছে, ওই নার্স অন্যান্যদের সঙ্গে কথা বলতে ব্যস্ত। আর কথা বলতে বলতেই এই কাজ করেছেন তিনি। যিনি ভ্যাকসিন নিয়েছেন তাঁর বন্ধু জানিয়েছেন, মজা করেই ভিডিয়োটি তুলছিলেন তিনি। তখন তিনি বিষয়টি লক্ষ্য করেননি। পরে তাঁরা বাড়ি ফিরে যখন ভিডিয়োটি ভালভাবে দেখতে যান, তখনই চোখে পড়ে বিষয়টি। তাঁরা দেখেন, প্লাস্টিক কভার খুলেই ইনজেকশন দিচ্ছেন নার্স, সিরিঞ্জে নেই কোনও ভ্যাকসিন। অভিযোগকারী জানিয়েছেন, ওই সিরিঞ্জের ইনজেকশন দেওয়ার পরই তাঁর মাথা যন্ত্রণা শুরু হয়ে গিয়েছিল।

আরও পড়ুন: ‘ডেল্টা প্লাসে’র ভয়াল গ্রাসের মুখে এই রাজ্য, মিলল ৭ আক্রান্তের খোঁজ, মৃত্যু ২ জনের

বিহারের স্বাস্থ্য দফতরের অতিরিক্ত মুখ্য সচিব প্রত্যয় অমৃত জানিয়েছেন, ওই নার্সকে সাসপেন্ড করা হয়েছে। তিনি বলেন, ‘এটা একটা গুরুত্বপূর্ণ অভিযোগ। আমরা অবশ্যই ব্যবস্থা নেব। কড়া বার্তা দেওয়া হবে, যাতে এই ধরনের ঘটনা আর না ঘটে। জেলাশাসক নীলেশ রামচন্দ্র দেওরা জানিয়েছেন, ছ’দিন আগে ব্রহ্মপুরের উর্দু মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে ওই টিকাকরণ কেন্দ্রের আয়োজন করা হয়েছিল। অভিযোগ পেয়েই সরিয়ে দেওয়া হয়েছে ওই নার্সকে। তবে ওই নার্স আরও কারও ক্ষেত্রে এমন করেছেন কি না, তা চিন্তায় ফেলেছে টিকাপ্রাপ্তদের।

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla