Tips For Healthy Eating: একপ্লেট বিরিয়ানি বা লুচি-আলুরদম সাঁটিয়ে অপরাধবোধে ভুগবেন না, উপভোগ করুন স্বাদ! পরামর্শ করিনার পুষ্টিবিদের

Food For Health: যে খাবারই খান না কেন তা ভালবেসে খান, নইলে সেই খাবার হজম করতেও অসুবিধে হবে। শরীরের জন্য খারাপ হবে

Tips For Healthy Eating: একপ্লেট বিরিয়ানি বা লুচি-আলুরদম সাঁটিয়ে অপরাধবোধে ভুগবেন না, উপভোগ করুন স্বাদ! পরামর্শ করিনার পুষ্টিবিদের
খাবার মজা করেই খান...
TV9 Bangla Digital

| Edited By: Reshmi Pramanik

Jun 14, 2022 | 10:07 PM

আমাদের শরীরে যাবতীয় শক্তির উৎস হল খাবার। পেট ভরানোর জন্য খাবার খাওয়া, খিদে মেটাতে ভাবার খাওয়া, ভালোবেসে খাবার খাওয়া। খাবার খাওয়ার একাধিক প্রয়োজনীয়তা রয়েছে। বন্ধুত্বের সূচনা হয় খাবারের সঙ্গে। নতুন সম্পর্কের সূচনাতেও সেই গুরুদায়িত্ব পালন করে খাবার। আর স্বাদের সঙ্গে পরিচয় হয় যে অনুষ্ঠানের সঙ্গে তার প্রধান অনুষঙ্গই হল খাওয়া-দাওয়া। কোনও ভাল খবর মানেই সবাই মিলে একজোট হয়ে খাওয়া-দাওয়া, নতুন চাকরির খবর সোশ্যাল মিডিয়ায় চাউর হতেই বন্ধুরা ছেঁকে ধরে খাওয়ানোর জন্য। আসলে খাওয়ার কোনও ছুতো লাগে না। পুষ্টি আর স্বাস্থ্যের কথা মাথায় রেখে যতই বিশেষজ্ঞরা লো-কার্বস, কম তেল মশলাদার খাবার, ওটস খেতে বলুন না কেন সবারই প্রথম পছন্দ ওই এক প্লেট বিরিয়ানিই। আর কমসমের মধ্যে হলে চিলিচিকেন-চাউমিন বা ফ্রায়েড রাইস।

হালে বেড়েছে কোলেস্টেরল, ট্রাইগ্লিসারাইডের চোখরাঙানি। ব্লাড সুগার আর প্রেসার তো ছিলই।  এবার এই সব রোগ-সমস্যা জোটবদ্ধ হয়ে যদি শরীরের বিরুদ্ধে বিদ্রোহ ঘোষণা করে তখন শরীর পড়বে বিপাকে। যে কারণে আগে থেকেই সব ঠেকিয়ে রাখার জন্য এবং শরীরের গুরুত্বপূর্ণ উপাদানগুলোর মধ্যে সমতা বজায় রাখার জন্য বিশেষজ্ঞরা মেপে খাবার খাওয়ার কথা বলেন। রোজ কত ক্যালোরির খাবার খাওয়া হচ্ছে আর কত ক্যালোরি ঝরানো হচ্ছে সেই হিসেব রাখাটা গুরুত্বের। জীবনযাত্রার কারণেই শরীর আমন্ত্রণ জানাচ্ছে একাধিক রোগজ্বালাকে। শরীরচর্চা করার কোনও রকম সময়ই নেই, সারাদিন এক জায়গায় বসে কাজ। খিদে পেলে হাতের সামনে যা থাকছে তাই দিয়েই পেট ভরাচ্ছেন। এতে শুঘুই যে ওজন বাড়ে তা নয়, শরীরে যাবতীয় প্যারোমিটার ঘেঁটে গিয়ে জটিল পরিস্থিতির সম্মুখীন হতে হয়।

তাই সুস্থ থাকতে মেপে খাবার কথা বলেন বিশেষজ্ঞরা। ফিট থাকতে কিংবা ডায়েট  করলেই যে সব সময় দামি দামি খাবার খেতে হবে এমন নয়। সেলেব্রিটি পুষ্টিবিদ রুজুতা দিওয়েকর সব সময় পুষ্টিকর খাবারের দিকেও সওয়াল করেন। রুজুতা জোর করেন দেশি খাবার খেতে। যে খাবার খেয়ে আমাদের ঠাকুমা-দিদিমারা এতদিন ফিট থেকেছেন সেই খাবারই খেতে বলেন তিনি। গরমে  প্রকৃতি ভরে ওঠে নানা রকম রসালো ফলে। সেই তালিকায় থাকে খেজুর,  আম, জামরুল,জাম, সবেদা থেকে শুরু করে আরও অনেক কিছু । আর এই সব খাবারই আমাদের শরীরকে সঠিক পুষ্টি দেয়- ড্রাগন ফল বা কিউই যা দিতে পারে না।

সেই সঙ্গে রুজুতার পরামর্শ- খাবার খাওয়ার সময় মনে কোনও অপরাধ বোধ রাখবেন না। খেতে ভালোবাসেন বলেই একদিন প্লেট সাজিয়ে খেয়েছেন। সেখানে লুচি, পোলাও, ফিশফ্রাই, মটন, চাটনি, কালিয়া সবই থাকতে পারে। তবে এই পেচপুরে খাবার খেয়ে কেন এত বেশি খেয়ে নিলাম এ নিয়ে কোনও রকম প্যানিক করবেন না। এতে বরং শরীর খারাপ হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। যে কোনও খাবারই আনন্দ করে খান, তবেই তা শরীরের কাজে লাগে।

এই খবরটিও পড়ুন

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla