রামানন্দ সাগরের জন্মদিনে ফিরে দেখা ‘রামায়ণ’

রামানন্দ সাগরের ১০৩তম জন্মবার্ষিকীতে ফিরে দেখা যাক রামানন্দ ও তাঁর অসামান্য সৃষ্টিকে।

  • Publish Date - 6:38 pm, Tue, 29 December 20
1/9
ভারতীয় মহাকাব্য ‘রামায়ণ’কে যিনি টেলিভিশনের পর্দায় প্রথম এনেছিলেন, তিনি রামানন্দ সাগর। আজ তাঁর ১০৩তম জন্মবার্ষিকী। গ্যালারিতে ফিরে দেখা যাক রামানন্দ ও তাঁর অসামান্য সৃষ্টিকে।
ভারতীয় মহাকাব্য ‘রামায়ণ’কে যিনি টেলিভিশনের পর্দায় প্রথম এনেছিলেন, তিনি রামানন্দ সাগর। আজ তাঁর ১০৩তম জন্মবার্ষিকী। গ্যালারিতে ফিরে দেখা যাক রামানন্দ ও তাঁর অসামান্য সৃষ্টিকে।
2/9
অনেকেরই হয়তো অজানা, ‘রামায়ণ’ তৈরি করার আগে টেলিভিশনের জন্য ‘বিক্রম বেতাল’ তৈরি করেছিলেন রামানন্দ। তবে ‘রামায়ণ’ই হয়ে ওঠে সর্বকালের সেরা। প্রথমবার টেলিকাস্ট হতেই এপিসোড প্রতি ৪০ লক্ষ টাকা লাভের মুখ দেখে দূরদর্শন।
অনেকেরই হয়তো অজানা, ‘রামায়ণ’ তৈরি করার আগে টেলিভিশনের জন্য ‘বিক্রম বেতাল’ তৈরি করেছিলেন রামানন্দ। তবে ‘রামায়ণ’ই হয়ে ওঠে সর্বকালের সেরা। প্রথমবার টেলিকাস্ট হতেই এপিসোড প্রতি ৪০ লক্ষ টাকা লাভের মুখ দেখে দূরদর্শন।
3/9
একসময় টেলিভিশন কোনও লাভদায়ী মাধ্যম ছিল না। তাই সেটির জন্য ভাবনাচিন্তাও ছিল না। তখন রামানন্দই ছিলেন সেই ব্যক্তি, যিনি ‘রামায়ণ’এর মতো মহাকাব্যকে তুলে আনেন টেলিভিশনের পর্দায়। পাল্টে দেন ছোট পর্দার পরিভাষা। শুরুতে অনেকের বিরোধিতাও সহ্য করেছিলেন রামানন্দ।
একসময় টেলিভিশন কোনও লাভদায়ী মাধ্যম ছিল না। তাই সেটির জন্য ভাবনাচিন্তাও ছিল না। তখন রামানন্দই ছিলেন সেই ব্যক্তি, যিনি ‘রামায়ণ’এর মতো মহাকাব্যকে তুলে আনেন টেলিভিশনের পর্দায়। পাল্টে দেন ছোট পর্দার পরিভাষা। শুরুতে অনেকের বিরোধিতাও সহ্য করেছিলেন রামানন্দ।
4/9
শুধু ভারত নয়। রামানন্দের ‘রামায়ণ’এর দর্শক ছড়িয়ে রয়েছে সারা বিশ্বে। মোট ৫৫টি দেশে ‘রামায়ণ’ দেখেছেন ৪৫০ কোটিরও বেশি দর্শক।
শুধু ভারত নয়। রামানন্দের ‘রামায়ণ’এর দর্শক ছড়িয়ে রয়েছে সারা বিশ্বে। মোট ৫৫টি দেশে ‘রামায়ণ’ দেখেছেন ৪৫০ কোটিরও বেশি দর্শক।
5/9
প্রত্যেক দর্শকের কাছে নিজেকে দায়বদ্ধ মনে করতেন রামানন্দ। একবার একটি আশ্চর্য ঘটনা ঘটে। ‘রামায়ণ’-এর একটি বিশেষ এপিসোড মিস করেন এক ব্যক্তি। তাঁকে আলাদাভাবে সেই এপিসোড দেখানোর ব্যবস্থা করা হয়।
প্রত্যেক দর্শকের কাছে নিজেকে দায়বদ্ধ মনে করতেন রামানন্দ। একবার একটি আশ্চর্য ঘটনা ঘটে। ‘রামায়ণ’-এর একটি বিশেষ এপিসোড মিস করেন এক ব্যক্তি। তাঁকে আলাদাভাবে সেই এপিসোড দেখানোর ব্যবস্থা করা হয়।
6/9
‘রামায়ণ’-এর এপিসোডগুলির শুটিং করতে সময় লেগেছিল ৫৫০দিন। প্রতি এপিসোড শুট করতে ব্যয় হয়েছিল ৯ লক্ষ টাকা। সেই সময় দাঁড়িয়ে উন্নত প্রযুক্তি ব্যবহার করা হয়েছিল।
‘রামায়ণ’-এর এপিসোডগুলির শুটিং করতে সময় লেগেছিল ৫৫০দিন। প্রতি এপিসোড শুট করতে ব্যয় হয়েছিল ৯ লক্ষ টাকা। সেই সময় দাঁড়িয়ে উন্নত প্রযুক্তি ব্যবহার করা হয়েছিল।
7/9
বাল্মীকি ও তুলসীদাসের ‘রামায়ণ’-এর উপর ভিত্তি করে রামানন্দ তৈরি করেন ‘রামায়ণ’। ১৯৮৭ সালে প্রথম টেলিকাস্ট হয় দূরদর্শনে। কেবলমাত্র রামায়ণ দেখবেন বলে বাড়ি থেকেই বেরতেন না কেউ। রাস্তাঘাট ফাঁকাই পড়ে থাকত।
বাল্মীকি ও তুলসীদাসের ‘রামায়ণ’-এর উপর ভিত্তি করে রামানন্দ তৈরি করেন ‘রামায়ণ’। ১৯৮৭ সালে প্রথম টেলিকাস্ট হয় দূরদর্শনে। কেবলমাত্র রামায়ণ দেখবেন বলে বাড়ি থেকেই বেরতেন না কেউ। রাস্তাঘাট ফাঁকাই পড়ে থাকত।
8/9
এই জনপ্রিয়তাকে কাজে লাগিয়েই এইবছর লকডাউনে টেলিভিশনের পর্দায় ফের টেলিকাস্ট হয় ‘রামায়ণ’। উদ্দেশ্য একটাই, মানুষ যাতে বাড়ি থেকে না বেরোন। ‘রামায়ণ’ ফিরে পেয়ে গোটা দেশ নস্ট্যালজিয়ায় ভেসে যায়।
এই জনপ্রিয়তাকে কাজে লাগিয়েই এইবছর লকডাউনে টেলিভিশনের পর্দায় ফের টেলিকাস্ট হয় ‘রামায়ণ’। উদ্দেশ্য একটাই, মানুষ যাতে বাড়ি থেকে না বেরোন। ‘রামায়ণ’ ফিরে পেয়ে গোটা দেশ নস্ট্যালজিয়ায় ভেসে যায়।
9/9
একটি মহাকাব্যকে বইয়ের পাতা থেকে তুলে আনেন রামানন্দ। টেলিভিশন বিনোদনের নতুন সংজ্ঞা তৈরি করেন তিনি। তাঁর এই অনন্য সৃষ্টির জন্য ভারত সরকার রামানন্দকে ‘পদ্মশ্রী’ সম্মান প্রদান করে ২০০০ সালে।
একটি মহাকাব্যকে বইয়ের পাতা থেকে তুলে আনেন রামানন্দ। টেলিভিশন বিনোদনের নতুন সংজ্ঞা তৈরি করেন তিনি। তাঁর এই অনন্য সৃষ্টির জন্য ভারত সরকার রামানন্দকে ‘পদ্মশ্রী’ সম্মান প্রদান করে ২০০০ সালে।

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla