IND vs SA: টিম নির্বাচন স্থগিত, দক্ষিণ আফ্রিকা সফর কি পিছোচ্ছে?

কানপুরে নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে প্রথম টেস্টের পরই দক্ষিণ আফ্রিকা সফরের জন্য দল নির্বাচনের কথা ছিল। ওয়াংখেড়ে দ্বিতীয় টেস্টে বিশ্রাম দেওয়া হয়েছে কিছু ক্রিকেটারকে। দলে জায়গা পাওয়ার পর দক্ষিণ আফ্রিকা উড়ে যাওয়ার আগে তাঁদের বাধ্যতামূলক পাঁচদিনের কোয়ারান্টিনে থাকার কথা। কিন্তু এখনও সেই সব ক্রিকেটারদের কিছুই জানানো হয়নি।

IND vs SA: টিম নির্বাচন স্থগিত, দক্ষিণ আফ্রিকা সফর কি পিছোচ্ছে?
IND vs SA: টিম নির্বাচন স্থগিত, দক্ষিণ আফ্রিকা সফর কি পিছোচ্ছে?

মুম্বই: বিরাট কোহলি (Virat Kohli), রোহিত শর্মাদের (Rohit Sharma) দক্ষিণ আফ্রিকা (South Africa) সফর নিয়ে ক্রমশ তৈরি সংশয়। করোনাভাইরাসের নতুন ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রন ঘিরে তীব্র চাঞ্চল্য তৈরি হয়েছে সারা বিশ্বে। ইউরোপের অধিকাংশ দেশ দক্ষিণ আফ্রিকাকে নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছে। আমেরিকা সহ আরও অনেক দেশ এ নিয়ে রীতিমতো আশঙ্কায়। এই পরিস্থিতিতে ওই দেশে পূর্ণাঙ্গ ক্রিকেট সফরে যাওয়া উচিত কিনা, তা নিয়ে দ্বিধায় রয়েছে কেন্দ্রীয় সরকারও। দক্ষিণ আফ্রিকা সফরের জন্য সরকারি অনুমতি নিতে হবে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডকে। আর তাই ওই সফরের জন্য় টিম নির্বাচন আপাতত স্থগিত রাখছে বিসিসিআই।

কানপুরে নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে প্রথম টেস্টের পরই দক্ষিণ আফ্রিকা সফরের জন্য দল নির্বাচনের কথা ছিল। ওয়াংখেড়ে দ্বিতীয় টেস্টে বিশ্রাম দেওয়া হয়েছে কিছু ক্রিকেটারকে। দলে জায়গা পাওয়ার পর দক্ষিণ আফ্রিকা উড়ে যাওয়ার আগে তাঁদের বাধ্যতামূলক পাঁচদিনের কোয়ারান্টিনে থাকার কথা। কিন্তু এখনও সেই সব ক্রিকেটারদের কিছুই জানানো হয়নি। বিশ্রামে থাকা রোহিত শর্মা, ঋষভ পন্থ, মহম্মদ সামি, লোকেশ রাহুল, শার্দূল ঠাকুররা বোর্ডের নির্দেশের অপেক্ষায় আছেন। যা থেকে অনুমান করা হচ্ছে, দক্ষিণ আফ্রিকা সফর হয়তো পিছোতে চলেছে। বাতিল হতে পারে কি? সেই আশঙ্কাও উড়িয়ে দেওয়া যাচ্ছে না।

এই মুহূর্তে ভারতীয় এ টিমের ক্রিকেটাররা দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে রয়েছেন। তাঁদের ফিরিয়ে আনা হচ্ছে না। দক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেট বোর্ডের তরফেও সুরক্ষার যাবতীয় প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছে। বোর্ডের তরফেও বলা হয়েছে, ‘দক্ষিণ আফ্রিকা বোর্ডের তরফে ক্রিকেটারদের সুরক্ষিত রাখার যাবতীয় ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। বায়ো বাবলে আছে ক্রিকেটাররা।’

সফর কি হবে? বিসিসিআই এখনও এ নিয়ে নিশ্চিত ভাবে কিছু বলছে না। বোর্ডের এক কর্তা বলছেন, ‘সফর যাতে হয়, তার জন্য দক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেট বোর্ড ও তাদের সরকার এ নিয়ে কথা চালাচ্ছে। একই সঙ্গে কেন্দ্রীয় সরকারের তরফে সবুজ সঙ্কেতের জন্য অপেক্ষা করছে বোর্ড। আশা করি দিন কয়েকের মধ্যে সব মিটে যাবে। ম্যাঞ্চেস্টারে যা হয়েছিল, তা আবার ঘটুক আমরা চাই না।’

আরও পড়ুন: Virat Kohli on RCB: আরসিবির সমর্থকদের কী বার্তা দিলেন কিং কোহলি?

আরও পড়ুন: IPL 2022: রিটেনশনে হায়েস্ট পেইড রোহিত, জাডেজা, ঋষভ

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla