Henry Olonga: বাউন্সারে সচিনকে আউট, সরকারের বিরুদ্ধে মুখ খুলে দেশছাড়া, হেনরি ওলোঙ্গা এখন করেন কী?

TV9 Bangla Digital

TV9 Bangla Digital | Edited By: অরিজিৎ দে

Updated on: Nov 03, 2022 | 9:30 AM

T20 World Cup: বুধবারই নেদারল্যান্ডের কাছে হেরে জিম্বাবোয়ের সেমিফাইনালের স্বপ্ন শেষ হয়েছে। সে দিন সে দেশের জাতীয় দল নিয়ে মুখ খুলেছেন ওলোঙ্গা।

Henry Olonga: বাউন্সারে সচিনকে আউট, সরকারের বিরুদ্ধে মুখ খুলে দেশছাড়া, হেনরি ওলোঙ্গা এখন করেন কী?
ছবি: ফাইল চিত্র

অ্যাডিলেড: গায়ে কালো কোট, মাথায় উলের টুপি, হাতে চামড়ার ব্যাগ এবং চোখে চশমা। জিম্বাবোয়ের প্রাক্তন পেসার হেনরি ওলোঙ্গাকে এ ভাবেই দেখা গিয়েছে অ্যাডিলেড ওভালে। দেখে মনে হচ্ছে তিনি কোনও প্রাক্তন ক্রিকেটার নন, তিনি যেন অ্যাডিলেড বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক।

বুধবারই নেদারল্যান্ডের কাছে হেরে জিম্বাবোয়ের সেমিফাইনালের স্বপ্ন শেষ হয়েছে। সে দিন সে দেশের জাতীয় দল নিয়ে মুখ খুলেছেন ওলোঙ্গা। তাঁর মতে, জিম্বাবোয়ের ক্রিকেট দল যা করছে তা ভালো কিছুর করার স্বপ্ন দেখা কঠিন। হেনরি ওলোঙ্গা যে খুব বড়মাপের ক্রিকেটার ছিলেন এমনটা নয়। এমনকী জিম্বাবোয়ে ক্রিকেটের স্বর্ণ যুগেও তিনি বিশেষ নাম করতে পারেননি। তবে তাঁর বোলিং অ্যাকশন ও ঝাঁকরা চুল বরাবরই সংবাদ শিরোনামে থেকেছে। শারজাতে সচিন তেন্ডুলকরকে দেওয়া তাঁর বাউন্সার এখনও ভারতীয় ক্রিকেট ফ্যানদের স্মৃতিতে রয়েছে। ১৯৯৯ বিশ্বকাপে ভারতের বিরুদ্ধে জ্বলে উঠেছিলেন ওলোঙ্গা। ভারতের ৫ উইকেট তুলে নিয়েছিলেন তিনি।

জিম্বাবোয়ে প্রসঙ্গে হেনরি ওলোঙ্গা বলেন, “এখন আমি গায়ক। আমার জীবন সঙ্গীতে পরিপূর্ণ। গত শুক্রবারও আমি ২টি শো করেছি, আমার একক পারফরম্যান্স ছিল। শুধু আমি এবং দর্শকরা সেখানে ছিলাম। জিম্বাবোয়ে ক্রিকেট থেকে সরে যাওয়ার পর আমি অনেক কিছু করেছি। আমি সচিনরে সঙ্গে ল্যাশিংস একাদশে খেলেছি। সেখান ভিভিএস লক্ষ্মণও খেলত। এমনকী আমি ধারভাষ্যকারের ভূমিকাও পালন করেছি।”

ওলোঙ্গা জানিয়েছেন, এই মুহূর্তে অস্ট্রেলিয়ার অ্যাডিলেডে তিনি পরিবারকে নিয়ে সুখে রয়েছেন। তিনি বলেন, “ক্রিকেট ছেড়ে দেওয়ার পর আমার জীবনের মোড় অন্য দিকে ঘুরে গিয়েছে। আমার ১২ ও ১০ বছর বয়সী দুই মেয়ে রয়েছে। আমার স্ত্রী অস্ট্রেলিয়ান নাগরিক। আমিও নাগরিকত্বের জন্য আবেদন জানিয়েছি। আশা করছি, খুব দ্রুত আমি পেয়ে যাব। আমি নাগরিকত্ব পেয়ে গেলে আমাকে জ্যাভলিন হাতে মাঠেও দেখা যেতে পারে।”

উল্লেখ্য, ২০০৩ ক্রিকেট বিশ্বকাপে শেষবার ওলোঙ্গাকে জাতীয় দলের জার্সিতে দেখা গিয়েছিল। সে বার রবার্ট মুগাবে সরকারের নীতির বিরুদ্ধে জিম্বাবোয়ের ক্রিকেট তারকা অ্যান্ডিস ফ্লাওয়ার হাতে কালো ব্যান্ডও বেঁধেছিলেন। মুগাবে সরকারের জমি অধিগ্রহণ নীতির বিরুদ্ধে সোচ্চার হয়েছিলেন ওলঙ্গা। তিনি জানিয়েছেন, প্রতিবাদ জানানোর কারণে তাঁকে হুমকির মুখেও পড়তে হয়েছে। এমনকী তাঁর পরিবারকে খুনের হুমকিও দেওয়া হয়েছে। তিনি জানিয়েছেন, সেই কারণে তিনি জিম্বাবোয়ে ছেড়ে বেরিয়ে আসতে বাধ্য হয়েছেন।

Latest News Updates

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla