Virat Test Debut: টেস্ট অভিষেকের এক দশক পার, বিরাটের ব্যাটের নীরবতা কবে ভাঙবে ?

Virat Test Debut: টেস্ট অভিষেকের এক দশক পার, বিরাটের ব্যাটের নীরবতা কবে ভাঙবে ?
বিরাটের টেস্ট অভিষেকের ১১ বছর
Image Credit source: Twitter

দেশের প্রাক্তন অধিনায়ক নিজের সুনামের প্রতি সুবিচার করতে পারছেন কই। শেষবার সাদা জার্সি গায়ে শতরান করেছিলেন ইডেন গার্ডেন্সে। তিনবছর ধরে বিরাট কোহলির ব্যাটে একটা শতরান দেখার অপেক্ষায় হা পিত্যেশ করে বসে আছেন অনুরাগীরা।

TV9 Bangla Digital

| Edited By: Tithimala Maji

Jun 20, 2022 | 3:58 PM

কলকাতা: ভারতীয় ক্রিকেটে ২০ জুন দিনটির মাহাত্ম্য আলাদা। সাল আলাদা হলেও এই দিনটিতে ভারতীয় টেস্ট ক্রিকেট পা পড়েছিল তিন মহারথীর। সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়, রাহুল দ্রাবিড় এবং বিরাট কোহলি। প্রথম দু’জন বাইশ গজ থেকে অনেকদিন আগেই অবসর নিয়েছেন। একজন ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের প্রধান তো অন্যজন জাতীয় দলের হেড কোচ। তাই বিরাট কোহলির ক্ষেত্রে দিনটির প্রাসঙ্গিকতা বেশি। ২০১১ সালে আজকের দিনে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে টেস্ট অভিষেক হয় বিরাটের। অভিষেক টেস্টটা স্মরণে রাখার মতো না হলেও পরবর্তীকালে এই ফরম্যাটে বর্তমান ক্রিকেট বিশ্বের অন্যতম সেরা ব্যাটারদের একজন ধরা হয় বিরাটকে। ১১টা বছর ধরে টেস্ট ক্রিকেট খেলে আসছেন। সম্প্রতি ১০০তম টেস্টও খেলে ফেলেছেন। ক্রিকেটের এই সনাতনী ফরম্যাটকে প্রাসঙ্গিক করে রাখার পক্ষে সওয়াল করে গিয়েছেন। তাঁর নেতৃত্বে ঘরের মাঠে টেস্ট সিরিজ না হারার রেকর্ডও রয়েছে বিরাটের ঝুলিতে।

বর্তমানে পরিস্থিতি অবশ্য অনেকটাই আলাদা। দেশের প্রাক্তন অধিনায়ক নিজের সুনামের প্রতি সুবিচার করতে পারছেন কই। শেষবার সাদা জার্সি গায়ে শতরান করেছিলেন ইডেন গার্ডেন্সে। বাংলাদেশের বিপক্ষে গোলাপী বলের টেস্টে। তারপর থেকে নীরবই থেকেছে রানমেশিনের ব্যাট। তিনবছর ধরে বিরাট কোহলির ব্যাটে একটা শতরান দেখার অপেক্ষায় হা পিত্যেশ করে বসে আছেন অনুরাগীরা। আলোচনা, সমালোচনার অন্ত নেই। তবে প্রিয় ক্রিকেটারের প্রতি বিশ্বাস হারাননি। ফের একদিন জ্বলে উঠবে বিরাটের ব্যাট, সেই আশাই দিন গুণছেন কোহলি অনুরাগীরা। তার আগে দেখে নিন লাল বলের ফরম্যাটে কোহলির মুন্সিয়ানার কয়েকটি ঝলক।

১. ২৫৪ রান, প্রতিপক্ষ দক্ষিণ আফ্রিকা, ২০১৯ সাল ক্রিকেটের দীর্ঘতম ফরম্যাটে কোহলির পছন্দের প্রতিপক্ষ দক্ষিণ আফ্রিকা। এই প্রোটিয়াদের বিরুদ্ধেই টেস্ট ক্রিকেটে সর্বোচ্চ স্কোর রয়েছে তাঁর। ২০১৯ সালে পুনেতে অপরাজিত ২৫৪ রানের ইনিংস এসেছিল কোহলির ব্যাটে।

২. ১১৯ রান, প্রতিপক্ষ দক্ষিণ আফ্রিকা, ২০১৩ সাল জোহানেসবার্গে দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে প্রথম টেস্ট। সিরিজের শুরুটা হয়েছিল কোহলির শতরান দিয়ে। বিরাটের সেই ইনিংস তৎকালীন প্রোটিয়া কোচ অ্যালান ডোনাল্ডকে সচিন তেন্ডুলকরের কথা মনে পড়িয়ে দিয়েছিল।

৩.১০৫ রান, প্রতিপক্ষ নিউজিল্যান্ড, ২০১৪ সাল ব্রেন্ডন ম্যাককালাম, বিজে ওয়াটলিংয়ের জুটি চাপ বাড়িয়ে দিয়েছিল সেদিন কোহলির ক্লাস ইনিংস দলের চাপ কমিয়ে টেস্ট ড্রয়ের দিকে চালিত করে।

৪. ১১৪ রান, প্রতিপক্ষ অস্ট্রেলিয়া, ২০১৪ সাল অধিনায়ক কোহলির প্রথম টেস্ট শতরান। অ্যাডিলেডে প্রথম ইনিংসেই সেঞ্চুরি হাঁকান। অস্ট্রেলিয়ার দেওয়া ৩৬৪ রানের চ্যালেঞ্জের সামনে ঢাল হয়ে দাঁড়ান তিনিই।

৫. ২৩৫ রান, প্রতিপক্ষ ইংল্যান্ড, ২০১৬ সাল তখন ভারতীয় দল বিশ্বের পয়লা নম্বর টেস্ট টিম। ওয়াংখেড়ের মাঠে প্রথম ইনিংসে ইংল্যান্ড ৪০০ রানের পাহাড় গড়ে । অষ্টম উইকেটে জয়ন্ত যাদবকে সঙ্গে নিয়ে কোহলির লড়াই শুরু হয়। প্রথম ইনিংসে শেষে কোহলির ব্যাটে আসে দ্বিশতরান।

৬.১৫৩, প্রতিপক্ষ দক্ষিণ আফ্রিকা, ২০১৮ সাল এই সিরিজের ঠিক আগে বিশ্ব টেস্ট একাদশে প্রথমবার অন্তর্ভুক্তি ঘটেছিল বিরাট কোহলির। প্রথম টেস্টে ব্যর্থতার পর দ্বিতীয় টেস্টে সেঞ্চুরিয়নে ক্যাপ্টেনের ব্যাটে আসে শতরান। যদিও বড় ব্যবধানে হার হজম করতে হয়েছিল ভারতকে।

এই খবরটিও পড়ুন

৭. ১৪৯ রান, প্রতিপক্ষ ইংল্যান্ড, ২০১৮ সাল সালটা দারুণভাবে শুরু করেছিলেন কোহলি। দেশের প্রথম অধিনায়ক হিসেবে দক্ষিণ আফ্রিকার মাটিতে ওয়ান ডে সিরিজ জেতার নজির গড়েন। এরপরই ছিল ইংল্যান্ড সফর। এজবাস্টনে সিরিজের প্রথম টেস্টে ১৪৯ রানের ইনিংস খেলেন তৎকালীন অধিনায়ক।

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 BANGLA