Indian Cricket Team: বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ ফাইনালে হার মানতে পারেননি শাস্ত্রী

রবি শাস্ত্রীর কোচিংয়ে ভারতীয় দলে টেস্টে অনেক সাফল্য এসেছে। বিদেশে সিরিজ জয়, দেশের মাঠে বিপক্ষকে হোয়াইটওয়াশ। অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে ২ বার টেস্ট সিরিজ জয়, ইংল্যান্ডের মাটিতে ২-১ এগিয়ে থাকা, ওয়েস্ট ইন্ডিজে সিরিজ জয়ের কৃতিত্ব অনস্বীকার্য। তবে বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ ফাইনাল হারের জ্বালায় বাকি সাফল্যকে উঁচু ভাবে দেখতে নারাজ শাস্ত্রী।

Indian Cricket Team: বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ ফাইনালে হার মানতে পারেননি শাস্ত্রী
ভারতের প্রাক্তন হেড কোচ রবি শাস্ত্রী (ছবি-রবি শাস্ত্রী টুইটার)

মুম্বই: দীর্ঘ ৪ বছরের কোচিং কেরিয়ারে বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ ফাইনালে (World Test Championship Final) হারকেই সবচেয়ে বড় ব্যর্থতা হিসেবে দেখছেন রবি শাস্ত্রী (Ravi Shastri)। অনেক সাফল্য-ব্যর্থতা এলেও টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ ফাইনাল হারের ক্ষত এখনও দগদগে টিম ইন্ডিয়ার (Indian Cricket Team) প্রাক্তন কোচের। ভারতীয় দলের দায়িত্ব থেকে সরে গেলেও ওই জ্বালা মিটছে না শাস্ত্রীর। এক সাক্ষাতকারে শাস্ত্রী বলেন, ‘আমার কোচিং দশায় বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ ফাইনাল হারই সবচেয়ে বড় ব্যর্থতা। আমাদের ওই ম্যাচটা হারা উচিত ছিল না। নিদেনপক্ষে ড্র করা উচিত ছিল ম্যাচটা। ৫ বছর ধরে টেস্টে ১ নম্বর থাকার পরও ওই হার মেনে নেওয়া সম্ভব নয়।’

এরই সঙ্গে যোগ করে শাস্ত্রী বলেন, ‘কোয়ারান্টিন, প্রস্তুতি, ইংল্যান্ডের আবহাওয়া সব মাতায় রেখেই বলছি ওই ম্যাচটা আমাদের হারা উচিত হয়নি। নিউজিল্যান্ডও তো ইংল্যান্ডে ছিল। ওই ম্যাচ হারের জন্য কোনও রকম অজুহাতই চলে না। ওই হতাশা আমি কখনও ভুলব না।’

রবি শাস্ত্রীর কোচিংয়ে ভারতীয় দলে টেস্টে অনেক সাফল্য এসেছে। বিদেশে সিরিজ জয়, দেশের মাঠে বিপক্ষকে হোয়াইটওয়াশ। অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে ২ বার টেস্ট সিরিজ জয়, ইংল্যান্ডের মাটিতে ২-১ এগিয়ে থাকা, ওয়েস্ট ইন্ডিজে সিরিজ জয়ের কৃতিত্ব অনস্বীকার্য। তবে বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ ফাইনাল হারের জ্বালায় বাকি সাফল্যকে উঁচু ভাবে দেখতে নারাজ শাস্ত্রী।

এ ছাড়া নেতা বিরাট কোহলির সঙ্গে মতভেদ নিয়ে ৫ বছর আগের এক ঘটনাকে তুলে আনলেন রবি শাস্ত্রী। আর সেই মতভেদ দল নির্বাচন নিয়ে। ঘটনাটা ঠিক কী? ২০১৭ সালে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির পর শ্রীলঙ্কা সফরে ৩টে টেস্ট ম্যাচের সিরিজ খেলতে যায় ভারতীয় দল। চোট সারিয়ে তখনও পুরোপুরি ফিট হতে পারেননি ওপেনার মুরলি বিজয়। সেই জায়গায় ওপেনার হিসেবে সুযোগ পান শিখর ধাওয়ান (Shikhar Dhawan)। দীর্ঘ সময় কাটিয়ে টেস্ট দলে ফিরে আসেন বাঁ-হাতি ব্যাটার। কিন্তু ধাওয়ানকে দলে নেওয়া নিয়েই মতভেদ তৈরি হয় শাস্ত্রী আর বিরাটের। ভারতীয় দলের কোচ নিজেই জানান সেই কথা।

চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে ৬৭.৬০ ব্যাটিং গড় থাকার জন্যই ধাওয়ানকে নেওয়ার জন্য সওয়াল করেন রবি শাস্ত্রী। তিনি বলেন, ‘চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে ভালো পারফর্ম করায় আমি ধাওয়ানকে নিতে চাই। কিন্তু বিরাট আপত্তি জানায়। ও তখন বলে, দলে এমন একজনকে নেওয়া উচিত, যে অনেকটা রান করতে পারবে। আমি তখন বলি, ওকে সুযোগ দিয়ে দেখ। ও বিধ্বংসী ফর্মে আছে। ও যদি রান পায়, তাহলে ও তোমাকে একটা সেশনেই ম্যাচ জিতিয়ে দেবে। প্রথম ম্যাচে চা-বিরতির পর ১৯০ রান করে ও।’

দীর্ঘদিন বাদে জাতীয় দলে টেস্টে কামব্যাক করেই ১৬৮ বলে ১৯০ রান করেন শিখর ধাওয়ান। সেই ম্যাচে ৩০৪ রানে শ্রীলঙ্কাকে হারায় ভারত। ৩-০ সিরিজ জেতে টিম ইন্ডিয়া।

আরও পড়ুন: Indian Team: ধাওয়ানকে দলে নেওয়া নিয়ে বিরাটের সঙ্গে মতভেদ হয় শাস্ত্রীর

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla