ISL 2021: বিক্রম-বিপিনদের প্রতাপে ছারখার বাগান সংসার

ATK Mohun Bagan: ডার্বি জয়ের পর আত্মতুষ্টি? ডিফেন্সের এই অবস্থা কেন? আগামী সোমবার জামশেদপুর এফসির বিরুদ্ধে মাঠে নামবে এটিকে মোহনবাগান। সেই ম্যাচে প্রশ্নের উত্তর থাকবে হাবাসের নোটবুকে?

ISL 2021: বিক্রম-বিপিনদের প্রতাপে ছারখার বাগান সংসার
চ্যাম্পিয়নের মতই দাপট দেখাল মুম্বই সিটি এফসি। সৌ: টুইটার

এটিকে মোহনবাগান ১ (উইলিয়ামস) এফসি গোয়া ৫ (বিক্রম (২), অ্যাঙ্গুলো, মোর্তাদা ফল, বিপিন,)

গোয়া: ডার্বি জয়ের আত্মবিশ্বাস উধাও। এটিকে মোহনবাগানকে (ATK Mohun Bagan) নিয়ে কার্যত ছেলে খেলা মুম্বই সিটি এফসির (Mumbai City FC)। গত বারের দুই ফাইনালিস্টের খেলায় বাগানকে ৫-১ গোলে উড়িয়ে দিল চ্যাম্পিয়ন মুম্বই। প্রথম দুটি ম্যাচে দরিন্ত খেলা বাগানের আক্রমণ ভাগ এদিন অকেজো। ডার্বি শেষে যে ডিফেন্সের প্রশংসা করেছিলেন হাবাস সেই ডিফেন্স এদিন কার্যত হামাগুড়ি দিল। সব বিভাগে সবুজ মেরুনেক টেক্কা দিয়ে গত বারের চ্যাম্পিয়নরা বুঝিয়ে দিল, ট্রফিটা ধরে রাখতেই মাঠে নামছে তারা।

খেলা শুরুর ৪ মিনিট। মোহনবাগান খেলা গুছিয়ে নেওয়ার আগেই প্রথম গোলটা করে ফেলল মুম্বই সিটি এফসি। গোল তরুণ ফুটবলার বিক্রম প্রতাপ সিংয়ের (Vikram Pratap Singh)। এই একটা গোল হাবাসের সব পরিকল্পনা গুলিয়ে দিল। উল্টো দিকে গোলটা মুম্বই শিবির ম্যাচের রাশ পায়ে পেয়ে গেল। গোল খাওয়ার ক্ষেত্রে সবুজ মেরুন গোলকিপার অমরিন্দর সিং প্রশ্নের মুখে। বিপিন, বিক্রম এবং দুই সাইডব্যাক মন্দার ও অময় তীব্র গতিতে সাইড লাইন ধরে বারবার হানা দিতে শুরু করলেন বাগানের বক্সে। ফলটাও এল হাতে নামেত। ২৫ মিনিটে বিক্রমের দ্বিতীয় গোল। ম্যাচ থেকে তখন হারিয়ে গেছেন রয় কৃষ্ণা, হুগো বোমাসরা। বাসামাল পাল তোলা নৌকার জালে তৃতীয় গোলের ভার চাপিয়ে দিলেন ইগর অ্যাঙ্গুল। খেলার বয়স তখন ৩৮ মিনিট।

প্রথম ম্যাচে কেরালা ব্লাস্টার্সের বিরুদ্ধে মোহনবাগান ডিফেন্স নিয়ে প্রশ্ন উঠেছিল। ইস্টবেঙ্গলের বিরুদ্ধে যদিও অন্য বাগানকে দেখেছে ভারতীয় ফুটবল। কিন্তু ডার্বির সেই আত্মবিশ্বাস উধাও, গতবারের চ্যাম্পিয়নদের সামনে। মাঝমাঠ সাদামাটা। সাপ্লাই পেলেন না রয় কৃষ্ণারা (Roy Krishna)। অন্যদিকে মুম্বইয়ের স্পিডে বাগান ডিফেন্সে কাঁপুনি। দ্বিতীয়ার্ধে প্রবীরকে মাঠে নামালেন হাবাস।

তবে সমস্যা মিটল না। উল্টে দ্বিতায়ার্ধের প্রথম মিনিটেই লাল কার্ড দেখলেন দীপক টাংরি। ফ্রি-কিক থেকে হেডে গোল মোর্তাদা ফলের। যদিও এই গোল নিয়ে অফসাইড বিতর্ক উঠতেই পারে। তবে খেলার স্কোর ৪-০। দশ জনের প্রতিপক্ষকে পেয়ে দাপট আরও বাড়ল মুম্বই সিটি এফসির। ৫২ মিনিটে বাগানকে পাঁচ গোলের লজ্জার মুখে ফেলে দিলেন বিপিন সিং। ম্যাকহিউ, প্রীতম, শুভাসিশরা তখন শুধুই যেন দর্শকের ভুমিকায়। সাইড লাইনে মেজাজ হারাতে শুরু করলেন হাবাস। ৬০ মিনিটে পরিবর্ত হিসেবে নামা ডেভিড উইলিয়ামসের গোল লজ্জা ঢাকার চেষ্টা। কিন্তু তাতে প্রশ্ন গুলো ঢাকা যাবে না। ডার্বি জয়ের পর আত্মতুষ্টি? ডিফেন্সের এই অবস্থা কেন? আগামী সোমবার জামশেদপুর এফসির বিরুদ্ধে মাঠে নামবে এটিকে মোহনবাগান। সেই ম্যাচে প্রশ্নের উত্তর থাকবে হাবাসের নোটবুকে?

আরও পড়ুন : IND vs SA: টিম নির্বাচন স্থগিত, দক্ষিণ আফ্রিকা সফর কি পিছোচ্ছে?

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla