ISL 2021-22: কাস্টমসের চাকরির প্রতিশ্রুতিই আরও জেদি করে তুলেছে লাল-হলুদের শুভমকে

শুভমের উত্তর, 'পরিস্থিতি আমাকে অনেক কঠিন করে তুলেছে। তাই কোনও কিছুতে আর ভয় পাই না। কাস্টমস আমাকে চাকরির প্রতিশ্রুতি দিয়ে ৪ বছর খেলিয়েছে। সেই সময় অনেক দলের প্রস্তাব ফিরিয়েছি। এই কষ্ট কখনও ভোলার নয়। সেই কথা ভাবলে এখনও মাঝে মধ্যে অনুশোচনা হয়। সার্টিফিকেটগুলো কোনও কাজে আসেনি। যদি একটা চাকরি পেতাম...'

ISL 2021-22: কাস্টমসের চাকরির প্রতিশ্রুতিই আরও জেদি করে তুলেছে লাল-হলুদের শুভমকে
শুভম সেন। ছবি: টুইটার

কৌস্তভ গঙ্গোপাধ্যায়

বড় ম্যাচ সবসময়ই কারও না কারও জন্ম দিয়ে যায়। আগামীর উত্থান হয় এই ম্যাচ থেকেই। কেউ সেই ধারাবাহিকতা নিয়ে সফল হন, আবার কেউ হারিয়ে যান মাঝপথেই। কিন্তু বড় ম্যাচে সুযোগ পাওয়া তো আর মুখের কথা নয়? অনেক ঘাম ঝরানোর পরই ডার্বি (Derby) খেলার সুযোগ আসে। আর সেই ডার্বিতে পারফর্ম করতে না পারলেই জোটে অপমান, অপবাদ।

এ রকম অনেক ডার্বির সাক্ষী থেকেছে কলকাতার ফুটবলপ্রেমীরা। শতবর্ষের ডার্বিতে এটিকে মোহনবাগানের (ATK Mohun Bagan) কাছে ০-৩ গোলে হারের দিনও উজ্জ্বল লাল-হলুদের এক বঙ্গতনয়। সোশ্যাল মিডিয়ায় যাঁকে ঘিরে হইচই শুরু হয়ে গিয়েছে। শুভম সেন (Suvam Sen)। ২৩ মিনিটের মধ্যেই ০-৩ পিছিয়ে এসসি ইস্টবেঙ্গল। তিন গোল হজমের পরই চোট পেয়ে মাঠ ছাড়লেন অধিনায়ক অরিন্দম ভট্টাচার্য। পরিবর্ত হিসেবে লাল-হলুদের তিন কাঠির তলায় শুভম সেন। গত বছর আইএসএলে এসসি ইস্টবেঙ্গলে (SC East Bengal) ডাক পেলেও একটা ম্যাচও খেলার সুযোগ হয়নি তাঁর। এ বছরও ডাক পান মশাল ব্রিগেডে। নেতা অরিন্দমই দলের ফার্স্ট গোলকিপার। সুযোগ মেলাই দায়। শনিবারের ডার্বিই কপাল খুলে দিল শুভমের। কিন্তু এ রকম পরিস্থিতিতে সুযোগ পাবেন তা হয়তো কল্পনা করতেও পারেননি। খেলা সবে ৩০ মিনিট গড়িয়েছে। রয় কৃষ্ণা, মনবীর, জনি কাউকোরা বিধ্বংসী রূপ ধারণ করেছেন। গোল করার খিদেয় মত্ত কৃষ্ণা-মনবীররা। লাল-হলুদের ভাঙা মাঝমাঠ আর দুর্বল রক্ষণ দেখে লোভ সামলাতে পারছেন না বাগান ফুটবলাররা। এই অবস্থাতেই মশাল বাহিনীর দূর্গ আগলাতে মাঠে নামলেন শুভম সেন।

আইএসএলে অভিষেক ম্যাচ। লাল-হলুদ জার্সিতেও প্রথম বার মাঠে। আর দুটো গোল হজম করলেই ম্যাচের রেজাল্ট হবে ০-৫। ভেঙে যাবে ‘৭৫-র রেকর্ড। ইস্টবেঙ্গল সমর্থকরা ডার্বি মানেই ওই ম্যাচের ফলের কথা তুলে আনেন। শুভম যখন মাঠে নামলেন, গোয়া থেকে কয়েক হাজার কিলোমিটার দূরে এ রাজ্যের লাল-হলুদ সমর্থকরা আশঙ্কার সময় গুণছেন। ম্যাচ শেষে রেজাল্ট এটিকে মোহনবাগান ৩ : এসসি ইস্টবেঙ্গল ০। ডার্বি হেরেও তখন স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলছেন লাল-হলুদ সমর্থকরা। কারণ একটাই, ৫-০ রেকর্ড অক্ষত থাকার জন্য। আর তার জন্য যাবতীয় কৃতিত্ব প্রাপ্য গোলকিপার শুভম সেনের। বাঁচালেন বেশ কয়েকটি নিশ্চিত কয়েকটি গোল। রয় কৃষ্ণা-জনি কাউকো-মনবীরদের পা থেকে ছোঁ মেরে নিলেন বল। লজ্জার হারের দিনেও লাল-হলুদের প্রাপ্তি উত্তরপাড়ার এই গোলরক্ষক।

গোয়া থেকে টেলিফোনে শুভম বললেন, ‘সুযোগ যখন পেয়েছি, প্রমাণ করতেই হত। অনেক বছর এই দিনটার জন্য অপেক্ষা করেছিলাম। যে কোনও পরিস্থিতিতেই গোল হজম করব না। তার জন্য জীবন বাজি রাখব। লাল-হলুদ সমর্থকদের গর্বকে মাটিতে মিশতে দেব না। এই লক্ষ্য নিয়েই মাঠে নেমেছিলাম।’

কিন্তু এ রকম পরিস্থিতিতে যে কেউই স্নায়ুর চাপে ভুগতে থাকেন। এ প্রসঙ্গে শুভমের উত্তর, ‘পরিস্থিতি আমাকে অনেক কঠিন করে তুলেছে। তাই কোনও কিছুতে আর ভয় পাই না। কাস্টমস আমাকে চাকরির প্রতিশ্রুতি দিয়ে ৪ বছর খেলিয়েছে। সেই সময় অনেক দলের প্রস্তাব ফিরিয়েছি। এই কষ্ট কখনও ভোলার নয়। সেই কথা ভাবলে এখনও মাঝে মধ্যে অনুশোচনা হয়। সার্টিফিকেটগুলো কোনও কাজে আসেনি। যদি একটা চাকরি পেতাম…’ একটা দীর্ঘশ্বাস শোনা যায় ডার্বির ট্র্যাজিক হিরোর গলায়।

এর সঙ্গে যোগ করে বলেন, ‘ডার্বি খেলার পর পরিবারের সঙ্গে কথা হয়েছে। ফোন করে অনেকে অভিনন্দন জানিয়েছে। তবে দল না হারলে অনেক বেশি ভালো লাগত। আমাদের এখন সামনের দিকে তাকাতে হবে।’

গত বছর আইএফএ শিল্ডে ইউনাইটেড স্পোর্টসের হয়ে খেলেছিলেন শুভম সেন। সেখানে দুরন্ত গোলকিপিং করেই নজরে আসেন। ইউনাইটেডের কর্তা নবাব ভট্টাচার্য বলেন, ‘গত বছর শিল্ডে শুভমের গোলকিপিং দেখার পরই সোশ্যাল মিডিয়ায় আমি লিখেছিলাম, ওর মতো গোলকিপারের আইএসএল খেলা উচিত। সেটা দেখেই এসসি ইস্টবেঙ্গলের টিম ম্যানেজমেন্ট আমার সঙ্গে যোগাযোগ করে।’

উত্তরপাড়ার নেতাজি ব্রিগেড থেকেই উঠে আসা শুভম সেনের। প্রীতম কোটাল, দেবজিত্‍ মজুমদার, অরিজিত্‍ বাগুইদের উত্থান এই ক্লাব থেকেই। জনাইয়ে প্রীতম-শুভম-সৌরভ-অরিজিত্‍-সামাদরা মিলে একটা ফুটবল অ্যাকাডেমিও গড়ে তুলেছে। ভবিষ্যত্‍ প্রজন্মকে তুলে আনতে এখন থেকেই উদ্যোগী।

শুভমের বয়স ৩২। ফুটবল কেরিয়ারের আসল সময়টাই ফেলে এসেছেন। তবু স্বপ্ন দেখা কখনও ছাড়েননি। কাস্টমসের ওই ‘প্রতিশ্রুতি’ তাঁকে আরও জেদি করে তুলেছে। ডার্বি হেরেও লাল-হলুদ সমর্থকদের মুখে মুখে ঘুরছে শুভমের নাম। অনেক না পাওয়ার যন্ত্রণার মাঝেও যা বিরাট পাওনা।

আরও পড়ুন: ISL 2021-22: ডার্বিতে গোল করেই ধাওয়ানের থাই ফাইভ স্টাইলে সেলিব্রেশন কবাডিপ্রেমী মনবীরের

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla