Hira Mondal-Bengaluru FC: জীবন বদলাতেই বেঙ্গালুরুতে হীরা মণ্ডল

সুনীল ছেত্রী। এই একটা নাম বললে, যে কোনও তরুণ ফুটবলারের কল্পনায় নানা কিছু ভাসবে। তাঁর সঙ্গে ড্রেসিংরুম ভাগ করে নেওয়া কিংবা খেলার সুযোগ, কেউই হারাতে চাইবেন না। শেখার জন্য এক শতাংশ সুযোগও লুফে নেওয়ার চেষ্টা করবেন। হীরা মণ্ডলও ব্যতিক্রম নন।

Hira Mondal-Bengaluru FC: জীবন বদলাতেই বেঙ্গালুরুতে হীরা মণ্ডল
Image Credit source: TWITTER
TV9 Bangla Digital

| Edited By: Dipankar Ghoshal

Jul 20, 2022 | 7:30 PM

বেঙ্গালুরু : ইন্ডিয়ান সুপার লিগে গত মরসুমে ইস্টবেঙ্গল সাফল্য পায়নি। তবে একজন ফুটবলার সকলের প্রশংসা কুড়িয়ে নিয়েছিলেন। হীরা মণ্ডল। মনে রাখার মতো পারফরম্যান্স করেছিলেন। তাঁকে নিয়ে সকলেই ইতিবাচক মন্তব্যই করেছেন। নতুন মরসুমে তাঁকে সই করিয়েছে বেঙ্গালুরু এফসি (Bengaluru FC)। এবার দল গঠনে একের পর এক চমক দিয়েছে বেঙ্গালুরু। তার সাম্প্রতিকতম সংযোজন ফিজির তারকা স্ট্রাইকার রয় কৃষ্ণা। তার আগে এটিকে মোহনবাগানের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ সদস্য ডিফেন্ডার প্রবীর দাসকে সই করিয়েছে তারা। প্রবীর এবং রয় খুবই ভালো বন্ধু। রয় কৃষ্ণার মতো স্ট্রাইকার। সঙ্গে প্রবীর দাস-হীরা মণ্ডলের মতো দুই দক্ষ সাইড ব্যাক। গত দু বছরের হতাশাজনক পারফরম্যান্স কাটিয়ে উঠতে মরিয়া বেঙ্গালুরু এফসি। কিন্তু কী দেখে বেঙ্গালুরুতে সই করার সিদ্ধান্ত! এসব নিয়ে খোলসা করলেন হীরা মণ্ডল (Hira Mondal)। আর সুনীল ছেত্রী প্রসঙ্গ (Sunil Chhetri) উঠবে না, এমন হয় না কি!

বেঙ্গালুরুতে সই প্রসঙ্গে হীরা বলছেন, ‘বেঙ্গালুরু বড় ক্লাব। গত দশ বছরে ভারতবর্ষের অন্যতম সফল ক্লাব। এখান থেকে অনেক ফুটবলারই জাতীয় দলে খেলছে। সুতরাং, মনে হল, নিজের উন্নতি এবং স্বপ্ন পূরণের জন্য এই ক্লাবে সই করাটাই হয়তো আমার জন্য সেরা সিদ্ধান্ত। ইস্টবেঙ্গলও বড় ক্লাব। আমি স্থানীয় প্লেয়ার। সুতরাং, লাল হলুদ ছেড়ে বেঙ্গালুরুতে সই করার সিদ্ধান্তটা একেবারেই সহজ ছিল না। কেরিয়ারে উন্নতির জন্যই শহর ছাড়া সিদ্ধান্ত নিলাম।’ বেঙ্গালুরুর পরিবেশের সঙ্গে দ্রুত মানিয়ে নেওয়াই আপাতত লক্ষ্য হীরার। তার জন্য হীরার কাছে সহজ পথ, কোচের নির্দেশ মেনে চলা। দল হিসেবে অনুশীলন করলে বাকিদের দেখেও অনেক কিছু শেখার সুযোগ মিলবে।

সুনীল ছেত্রী। এই একটা নাম বললে, যে কোনও তরুণ ফুটবলারের কল্পনায় নানা কিছু ভাসবে। তাঁর সঙ্গে ড্রেসিংরুম ভাগ করে নেওয়া কিংবা খেলার সুযোগ, কেউই হারাতে চাইবেন না। শেখার জন্য এক শতাংশ সুযোগও লুফে নেওয়ার চেষ্টা করবেন। হীরা মণ্ডলও ব্যতিক্রম নন। বলছেন, ‘ভারতের প্রতিটা ফুটবলারের জন্যই সুনীল ছেত্রীর সঙ্গে অনুশীলন করা এবং খেলা স্বপ্নের মতো ব্যাপার। আমিও এই স্বপ্ন দেখেছি। আনন্দ যেমন হচ্ছে, তেমনই নিজেকে ভাগ্যবান মনে হচ্ছে, আমি সেই সুযোগ পেতে চলেছি। কত তাড়াতাড়ি সেই সুযোগ আসবে তারই অপেক্ষায় রয়েছি। ফুটবলার হিসেবে খুবই শৃঙ্খলাবদ্ধ জীবন যাপন করেন। তাঁর সম্পর্কে আরও অনেক কিছু জানার অপেক্ষায় রয়েছি।

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla