Tokyo Olympics 2020: অলিম্পিকের সময় টোকিওতে থাকতে পারে লকডাউন

অলিম্পিকের সময় যদি লকডাউন বহাল থাকেও, তা হলেও গেমস পরিচালনা করতে কোনও সমস্যা হবে না আয়োজকদের।

Tokyo Olympics 2020: অলিম্পিকের সময় টোকিওতে থাকতে পারে লকডাউন
সৌজন্যে-টুইটার

টোকিও: অলিম্পিকের (Olympics) আগেও করোনার (COVID-19) প্রকোপ কমছেই না। উল্টে তার বাড়বাড়ন্ত দেখে রীতিমতো চিন্তায় পড়ে গিয়েছে জাপান (Japan) সরকার। তাই কিছুটা বাধ্য হয়েই, টোকিও এবং আশপাশের আরও কয়েকটা শহরে লকডাউন (lockdown) বহাল রাখার কথা ভাবছে। এমনিতেই জাপানের অধিকাংশ শহরে এখন লকডাউন চলছে। ১২ জুলাই তা ওঠার কথা। কিন্তু করোনার প্রভাব এখনও কমেনি। অলিম্পিকের কথা ভেবে তাই কোনওরকম ঝুঁকি নিতে নারাজ জাপান সরকার ও টোকিও গেমসের আয়োজকরা। তাই পুরো জুলাই মাস ধরেই টোকিওতে লকডাউন চলতে পারে, এমনই বলা হচ্ছে।

২৩ জুলাই শুরু অলিম্পিক। হাতে আর একমাসও সময় নেই। আয়োজনের তোড়জোড় চলছে যেমন, তেমনই করোনা পরবর্তী সময়ে এই অলিম্পিককেই সবচেয়ে বড় ইভেন্ট বলে ধরা হচ্ছে। যা নিরাপদ ও বিপন্মুক্ত রাখার যাবতীয় চেষ্টা করছেন আয়োজকরা। করোনা নিয়ন্ত্রণের ক্ষেত্রে জাপানের ঢিলেঢালা মনোভাব সারা বিশ্বের সমালোচনার বিষয় হয়ে উঠেছিল। বিশেষ করে যে দেশে অলিম্পিকের মতো এত বড় ইভেন্ট এবং যা আয়োজন করতে বধ্যপরিকর আয়োজকরা, তারা কী করে প্রতিষেধক দেওয়ার ক্ষেত্রে এত দেরি করে, তা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছিল। মাসখানেক আগে ভ্যাকসিন দেওয়া শুরু করলেও টোকিও বা তার আশপাশের শহরগুলোর পঞ্চাশ শতাংশ মানুষকে তা দেওয়া যায়নি। তবে জরুরিকালীন তত্‍পরতায় দ্রুত পরিস্থিতি সামাল দেওয়ার চেষ্টাও করা হয়েছে। কিন্তু তা যে যথেষ্ট নয়, তা বুঝতে পেরেই লকডাউন এখনও তোলা হয়নি অধিকাংশ শহরে।

অলিম্পিকের সময় যদি লকডাউন বহাল থাকেও, তা হলেও গেমস পরিচালনা করতে কোনও সমস্যা হবে না আয়োজকদের। কারণ, অ্যাথলিটদের জাপানে থাকাকালীন যেমন নানা বিধিনিষেধ নামতে হবে, তেমনই তাঁদের জন্য বরাদ্দ গাড়ি ছাড়া ব্যবহার করতে পারবেন না। তবে স্থানীয় দর্শকদের অর্ধেকরও কম গেমস দেখার সুযোগ করে দেওয়ার কথা বললেও তা কী হবে, এ নিয়ে কোনও মন্তব্য করা হয়নি আয়োজকদের তরফে।

আরও পড়ুন: Tokyo Olympics 2020: র‍্যাঙ্কিংয়ের সুবাদে অলিম্পিকে দ্যুতি, নেই হিমা

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla