TOKYO OLYMPICS 2020 : কন্ডোম দিয়ে নৌকা বেঁধে সোনা জয় জেসিকার

হিলাদের ক্যানয়িংয়ের সি ওয়ান ফাইনালে নামার আগে অস্ট্রেলিয়ার জেসিকা ফক্স দেখেন তাঁর কায়াকের মুখ অর্থাৎ বাম্পস ও স্ক্রেপস ভেঙে গিয়েছে। মাথায় আকাশ ভেঙে পড়ে ফক্স ও তার দলের। সঙ্গে সঙ্গে সেই অংশ কন্ডোম দিয়ে বেঁধে দিলেন জেসিকা। কন্ডোম বাঁধা কায়াক নিয়েই নামলেন ফাইনাল লড়াইয়ে।

TOKYO OLYMPICS 2020 : কন্ডোম দিয়ে নৌকা বেঁধে সোনা জয় জেসিকার
বাঁদিকে সোনা জয়ের পর জেসিকা ফক্স, ডানদিকে কন্ডোম দিয়ে মেরামতি হচ্ছে কায়াক

টোকিওঃ টোকিওতে কতই না ছবি, কতই না মুহূর্ত ধরা পড়েছে বিভিন্ন ইভেন্টে। কোথাও পদকজয়ীর অন্যরকমের উচ্ছ্বাস। কোথাও হতাশার এক মন খারাপের ছবি। ছবির ছাড়াছড়ি টোকিওতে। ইভেন্ট দেখার মাঝে মেটিজেন ক্রীড়াপ্রেমীদের নজর কাড়ছে সেই মুহুর্তগুলো। এবার ভাইরাল হল একটি ভিডিও। ক্যানয়িংয়ের এক প্রতিযোগী নিজের কায়াকের ভাঙা অংশ মেরামত মেরামত করছেন কন্ডোম দিয়ে! নিমেষে ভাইরাল সেই ভিডিও।

কি এই কায়াক? আমাদের ভারত এই ক্যানয়িং প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করেনা। এই খেলা এদেশে জনপ্রিয়ও তেমন নয়। তবে পাহাড়ির খরস্রোতা নদীতে গিয়ে আমরা প্রায়ই দেখি ক্যানয়িং। ছোট্ট নৌকা বা ডিঙি হল কায়াক। যেই কায়াকে চড়তে পারেন একজন। আর সেই কায়াক নিয়েই চলে ক্যানয়িংয়ের প্রতিযোগিতা। এবার সেই কায়াকের যে মুখ থাকে, তাকে বলে বাম্পস ও স্ক্রেপস।

মহিলাদের ক্যানয়িংয়ের সি ওয়ান ফাইনালে নামার আগে অস্ট্রেলিয়ার জেসিকা ফক্স দেখেন তাঁর কায়াকের মুখ অর্থাৎ বাম্পস ও স্ক্রেপস ভেঙে গিয়েছে। মাথায় আকাশ ভেঙে পড়ে ফক্স ও তার দলের। তাহলে কিভাবে নামবেন ফাইনাল লড়াইয়ে? মাথায় খেলল বুদ্ধি। একেবারে শেষমুহুর্তে মেরামতি করে নামতে হবে। সঙ্গে সঙ্গে সেই অংশ কন্ডোম দিয়ে বেঁধে দিলেন জেসিকা। কন্ডোম বাঁধা কায়াক নিয়েই নামলেন ফাইনাল লড়াইয়ে।

জানতে চান কন্ডোম বাঁধা কায়াক দিয়ে কতদূর পৌঁছতে পারলেন জেসিকা ফক্স? তিনি সোনা জিতেছেন। প্রথমবার তিনি ক্যানয়িংয়ে জিতলেন সোনা। আর এসব কাণ্ড দেখে নেটিজেনরা মজা করে বলছেন, কোন জিনিস যে কি কাজে লাগে, তা বোঝা দায়!

অলিম্পিকের আরও খবর দেখতে ক্লিক করুনঃ টোকিও অলিম্পিক২০২০

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla