TOKYO OLYMPICS 2020 :মাস্ক ছাড়াই উদ্বোধনে পাকিস্তান, তীব্র বিতর্ক অলিম্পিকে

এ বার অলিম্পিকে ভারতের সবচেয়ে বড় টিম গিয়েছে। ২১ নম্বর দেশ হিসেবে উদ্বোধনে হাঁটতে দেখা গিয়েছে ভারতকে। তবে সব ছাপিয়ে গিয়ে আলোচনায় অবশ্য পাকিস্তানের মতো দেশগুলোর মাস্ক না পরা।

TOKYO OLYMPICS 2020 :মাস্ক ছাড়াই উদ্বোধনে পাকিস্তান, তীব্র বিতর্ক অলিম্পিকে
করোনা আবহে মাস্ক ছাড়াই পাকিস্তান অ্যাথলিটরা, শুরু বিতর্ক

টোকিও: মাস্ক ছাড়াই টোকিও গেমসের উদ্বোধনে হাঁটলেন পাকিস্তানের দুই পতাকাবাহক। শুধু তাই নয়, কির্গিজ়স্তান, তাজিকিস্তানের অ্যাথলিটরাও মাস্ক ছাড়াই হেঁটেছেন মার্চ পাস্টে। যা নিয়ে তীব্র বিতর্ক টোকিও গেমসে। একেই করোনার ধাক্কায় রীতিমতো বেসামাল অলিম্পিক। বায়ো বাবল ভেঙে পড়েছে। গেমস ভিলেজে হুহু করে বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। জাপান তো বটেই, টোকিওতেও লাগামছাড়া করোনা। তার মধ্যে কী করে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এত বড় ঝুঁকি নিলেন পাকিস্তান, তাজিকিস্তানের অ্যাথলিটরা?
যে কোনও গেমসের উদ্বোধন মানেই সেই দেশের সংস্কৃতি, ঐতিহ্য, গৌরবকে তুলে ধরা হয়। টোকিওতে এর ব্যতিক্রম হল না। গেমসের পবিত্র মশাল জ্বালালেন টেনিস তারকা নাওমি ওসাকা। কিন্তু তার মধ্যেও অভিনবত্বের ছোঁয়া রাখল আয়োজক দেশ। ৪৯ বছর আগে, ১৯৭২ সালে মিউনিখ অলিম্পিকে ঘটে গিয়েছিল রক্তাক্ত ঘটনা। প্যালেস্টাইনের জঙ্গিরা আচমকা হানা দিয়েছিল গেমস ভিলেজে। ইজ়রায়লের অ্যাথলিটদের গুলি করে মারে তারা। অলিম্পিকের ইতিহাসে ওই ঘটনা এখনও চরম শোকগাথা হিসেবেই দেখা হয়। সেই জঙ্গিহানার বিরুদ্ধে সোচ্চার হল অলিম্পিক। এক মিনিটের নীরবতা পালন করা হয়।
আইওসির তরফে বলা হয়েছে, ‘আমরা যাদের হারিয়েছি, তাদের জন্য আমাদের খারাপ লাগা রয়েছে। তার মধ্যে যাদের আমরা অলিম্পিক গেমসের সময় হারিয়েছিলাম, তাদের কথা আরও বেশি করে মনে পড়ছে। ১৯৭২ সালের ইজ়রায়লের অ্যাথলিটদের হারানো এখনও যন্ত্রণা দেয়।
অলিম্পিকের উদ্বোধন অবশ্য একই রকম রঙিন ছিল। তবে করোনার কথা মাথায় রেখে খুব কম সংখ্যক অ্যাথলিট ছিলেন মার্চপাস্টে। ভারতের ১৯ অ্যাথলিট হেঁটেছেন। পতাকাবাহক হিসেবে ছিলেন মেরি কম ও মনপ্রীত সিং। এ বার অলিম্পিকে ভারতের সবচেয়ে বড় টিম গিয়েছে। ২১ নম্বর দেশ হিসেবে উদ্বোধনে হাঁটতে দেখা গিয়েছে ভারতকে। তবে সব ছাপিয়ে গিয়ে আলোচনায় অবশ্য পাকিস্তানের মতো দেশগুলোর মাস্ক না পরা।

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla