নতুন ইলেকট্রিক স্কুটার লঞ্চ করবে ওড়িশার সংস্থা EeVe, প্রকাশ্যে এল Soul মডেলের খুঁটিনাটি

আপাতত EeVe- র ইলেকট্রিক দু'চাকার যানের ক্ষেত্রে ৪৫ শতাংশ যন্ত্রাংশ উৎপাদন হয় স্থানীয় ভাবে। কিন্তু ১০০ শতাংশ স্থানীয় উৎপাদনের লক্ষ্যে এগোচ্ছে এই সংস্থা।

  • TV9 Bangla
  • Published On - 12:40 PM, 4 May 2021
নতুন ইলেকট্রিক স্কুটার লঞ্চ করবে ওড়িশার সংস্থা EeVe, প্রকাশ্যে এল Soul মডেলের খুঁটিনাটি
ছবি প্রতীকী।

ভারতে ইলেকট্রিক স্কুটার লঞ্চ করতে চলেছে দু’চাকার যান নির্মাণকারী সংস্থা EeVe India। নতুন মডেলের নাম হতে চলেছে EeVe Soul। ইতিমধ্যেই অটোমোটিভ রিসার্চ অ্যাসোসিয়েশন অফ ইন্ডিয়ার (ARAI) তরফে সমস্ত অনুমোদন পেয়ে গিয়েছে এই সংস্থার নতুন ইলেকট্রিক স্কুটারের মডেল।

জানা গিয়েছে, EeVe আসলে ওড়িশার একটি ইলেকট্রিক ভেহিকেল তৈরির ব্র্যান্ড। তাদের নতুন মডেল EeVe Soul- এর ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ গতি ঘণ্টায় ৭০ কিলোমিটার। একবার চার্জ দিলে ১৩০ কিলোমিটার পর্যন্ত এই ইলেকট্রিক স্কুটার নিয়ে সফর করতে পারবেন আরোহী। EeVe India- র সহ-প্রতিষ্ঠাতা এবং ডিরেক্টর হর্ষ দিদওয়ানিয়া জানিয়েছেন, তাদের নতুন ইলেকট্রিক স্কুটার EeVe Soul আগামী দিনে ভারতের বাজারে তাদের সংস্থার অন্যান্য হাই-স্পিড ইলেকট্রিক ভেহিকেল (টু-হুইলার) লঞ্চের রাস্তা তৈরি করে দেবে।

দিদওয়ানি জানিয়েছেন, ARAI- এর তরফে তাদের নতুন ‘সোল’ মডেলের জন্য সমস্ত অনুমোদন পাওয়ার পরেও কিছু সমস্যা রয়েছে। সাপ্লাই চেন অর্থাৎ যোগান সংক্রান্ত সমস্যা দেখা দিয়েছে। তার অন্যতম কারণ করোনা দ্বিতীয় ঢেউ। এই সমস্যা অবশ্য শীঘ্রই মিটে যাবে বলে আশা করছেন EeVe কর্তৃপক্ষ। তারপর চলতি বছর জুন কিংবা জুলাই মাসের মধ্যেই ইলেকট্রিক স্কুটার লঞ্চের দিনক্ষণ নিশ্চিত করে ফেলতে পারবেন বলে আশাবাদী দিদওয়ানিয়া। মূলত দুর্গাপুজো এবং উৎসবের মরশুমের আগেই এই ইলেকট্রিক স্কুটার লঞ্চের পরিকল্পনা রয়েছে তাঁর সংস্থার।

আরও পড়ুন- দেশজুড়ে অক্সিজেন সংকট, সাহায্যে নামলেন আনন্দ মহিন্দ্রা, চালু করলেন ‘অক্সিজেন অন হুইলস’

আপাতত EeVe- র ইলেকট্রিক দু’চাকার যানের ক্ষেত্রে ৪৫ শতাংশ যন্ত্রাংশ উৎপাদন হয় স্থানীয় ভাবে। কিন্তু ১০০ শতাংশ স্থানীয় উৎপাদনের লক্ষ্যে এগোচ্ছে এই সংস্থা। এর পাশাপাশি নতুন বিনিয়োগ সংগ্রহ, পুঁজি বৃদ্ধি, উৎপাদনের ক্ষেত্রে নতুন কৌশল, গবেষণার সাহায্যে উন্নতির চেষ্টা করছে ওড়িশার এই সংস্থা। এছাড়া নিজস্ব ব্যাটারি প্ল্যাট তৈরির পরিকল্পনাও রয়েছে তাদের। আপাতত ইলেকট্রিক স্কুটারের মোতর আসে জার্মানি থেকে। আর ব্যাটারি আসে চিন থেকে। অন্যান্য উপাদান যেমন রবার ও প্লাস্টিকের বিভিন্ন উপাদান তৈরি হয় দেশেই।