স্কুটিতে ব্লুটুথ কানেকশন, ভারতে কোন কোন স্কুটারে এই পরিষেবা পাওয়া যায়? দেখে নিন

ভারতের গাড়ির বাজারে দু'চাকার যান অর্থাৎ বাইক বা স্কুটিতে এখনও ব্লুটুথ কানেকটিভিটির সেভাবে চল আসেনি। তবে কিছু সংস্থার স্কুটারে রয়েছে ব্লুটুথ কানেকটিভিটি। এই ফিচারের সাহায্যে আরোহী নিজের স্মার্টফোন স্কুটারের সঙ্গে সংযুক্ত রাখতে পারবেন।

  • TV9 Bangla
  • Published On - 20:17 PM, 8 Apr 2021
স্কুটিতে ব্লুটুথ কানেকশন, ভারতে কোন কোন স্কুটারে এই পরিষেবা পাওয়া যায়? দেখে নিন
চলুন একঝলকে দেখে নেওয়া যাক, কোন কোন স্কুটারে ব্লুটুথ কানেকশন রয়েছে।

গাড়ির ক্ষেত্রে ব্লুটুথ কানেকটিভিটি অর্থাৎ ব্লুটুথের কানেকশন থাকা নতুন কোনও ব্যাপার নেই। আজকাল অনেক বাইকেও এই পরিষেবা রয়েছে। তার পাশাপাশি অবশ্য এখন স্কুটারেও ব্লুটুথ কানেকটিভিটি থাকছে। তবে যেসব সংস্থার স্কুটি বা স্কুটারে ব্লুটুথ কানেকশন থাকছে সেগুলো সবই সেই সংস্থার প্রিমিয়াম মডেল। অত্যাধুনিক ফিচার সম্মত ওইসব স্কুটারেই এই আধুনিক ফিচার পাওয়া যায়। সময়ের সঙ্গে সঙ্গে প্রযুক্তির ক্রমাগত উন্নতি হয়েছে। তাই ফোনের পাশাপাশি দু’চাকা এবং চারচাকা, দু’ধরণের যানবাহনের ক্ষেত্রেই ব্লুটুথ কানেকশন থাকা এখন স্বাভাবিক বিষয়।

তবে ভারতের গাড়ির বাজারে দু’চাকার যান অর্থাৎ বাইক বা স্কুটিতে এখনও ব্লুটুথ কানেকটিভিটির সেভাবে চল আসেনি। তবে কিছু সংস্থার স্কুটারে রয়েছে ব্লুটুথ কানেকটিভিটি। এই ফিচারের সাহায্যে আরোহী নিজের স্মার্টফোন স্কুটারের সঙ্গে সংযুক্ত রাখতে পারবেন।

চলুন একঝলকে দেখে নেওয়া যাক, কোন কোন স্কুটারে ব্লুটুথ কানেকশন রয়েছে।

১। সুজুকি অ্যাকসেস ১২৫- সুজুকি মোটরসাইকেল কর্তৃপক্ষ গতবছর তাঁদের অ্যাকসেস ১২৫ স্কুটারের বিভিন্ন ফিচার আপডেট করেছেন। সেখানেই যুক্ত হয়েছে ব্লুটুথ এনাবেল কনসোল। এই ফিচারের সাহায্যে সুজুকি রাইড কানেক্ট অ্যাপের সাহায্যে আরোহী নিজের স্মার্টফোন কানেক্ট করতে পারবেন। তবে সুজুকির এই অ্যাপ কিন্তু শুধু অ্যানড্রয়েড ইউজাররাই ব্যবহার করতে পারবেন। আইওএস ভার্সানে এই অ্যাপ চালু নেই।

আরও পড়ুন- Citroen C5 Aircross: ভারতে লঞ্চ হল ফরাসি গাড়ি নির্মাণ সংস্থার এসইউভি

২। সুজুকি বার্জম্যান স্ট্রিট- সুজুকি বার্জম্যান স্ট্রিট একটি প্রিমিয়াম মডেলের স্কুটার। এই স্কুটারে রয়েছে ব্লুটুথ কানেকটিভিটি ফিচার। এই ফিচারের সাহায্যে আরোহী নিজের স্মার্টফোন স্কুটারের সিস্টেমের সঙ্গে যুক্ত করতে পারবেন। সেই সঙ্গে সুজুকির অ্যাপের সাহায্যে বিভিন্ন সুবিধা পাবেন। টার্ন-বাই-টার্ন নেভিগেশন, চেক কল, মিসড কল, হোয়াটসঅ্যাপ, এসএমএস আল্যার্ট, কলার আইডি, ফোনের ব্যাটারি লেভেল, ওভারস্পিড ওয়ার্নিং— এইসব ফিচার চেক করতে পারবেন আরোহী।

৩। টিভিএস এনটর্ক ১২৫- ভারতে প্রথম এই স্কুটারেই যুক্ত হয়েছিল ব্লুটুথ। ৫ ইঞ্চির একটি এলসিডি ডিসপ্লে রয়েছে এই স্কুটারে। সেখানে ল্যাপ টাইমার, ০-৬০ কিলোমিটার/ঘণ্টা অ্যাকসিলারেশন টাইম, টপ স্পিড, ইঞ্জিন টেম্পারেচার, অ্যাভারেজ স্পিড ইন্ডিকেটর, সার্ভিস রিমাইন্ডার— এইসব দেখা যায় ওই স্ক্রিনে। এই স্কুটারে ব্লুটুথ পরিষেবা থাকার ফলে আরোহী ‘Smart Xonnect’- এর সাহায্যে নিজের স্মার্টফোন স্কুটারের ব্লুটুথের সঙ্গে যুক্ত করতে পারবেন। এর ফলে নিজের স্মার্টফোনের সমস্ত ডেটা চেক করতে পারবেন স্কুটার আরোহী। এছাড়া ওই এলসিডি ডিসপ্লেতে ফোনের নোটিফিকেশন, নেভিগেশন অ্যারো এবং ট্রিপ রিপোর্টও দেখাবে।