হোয়াটসঅ্যাপের উচিত নতুন প্রাইভেসি পলিসি তুলে নেওয়া, নতুন নোটিস দিল কেন্দ্রীয় মন্ত্রক

১৫ মে পর্যন্ত হোয়াটসঅ্যাপের প্রাইভেসি পলিসির আপডেট গ্রহণ করার সময়সীমা ছিল।

হোয়াটসঅ্যাপের উচিত নতুন প্রাইভেসি পলিসি তুলে নেওয়া, নতুন নোটিস দিল কেন্দ্রীয় মন্ত্রক
ছবি প্রতীকী

প্রাইভেসি পলিসির পরিবর্তন প্রসঙ্গে হোয়াটসঅ্যাপকে কড়া দাওয়াই দিল ইলেকট্রনিক্স এবং তথ্য প্রযুক্তি মন্ত্রক। সূত্রের খবর, কেন্দ্রীয় মন্ত্রকের তরফে চিঠি পাঠানো হয়েছে হোয়াটসঅ্যাপ কর্তৃপক্ষকে। আর সেখানে বলা হয়েছে, ফেসবুক অধিকৃত এই মেসেজিং অ্যাপ কর্তৃপক্ষের উচিত তাদের নতুন প্রাইভেসি পলিসি তুলে নেওয়া।

সূত্রের খবর, কেন্দ্রীয় মন্ত্রকের তরফে বলা হয়েছে যেভাবে হোয়াটসঅ্যাপের প্রাইভেসি পলিসি পরিবর্তন করা হয়েছে এবং যে ভঙ্গিমায় তা ব্যবহারকারীদের জানানো হয়েছে, তা সঠিক নয়। হোয়াটসঅ্যাপের প্রাইভেসি পলিসির পরিবর্তনের সঙ্গে সঙ্গে প্রশ্নের মুখে পড়েছে ইউজারদের ব্যক্তিগত তথ্যের নিরাপত্তা। শোনা গিয়েছে, হোয়াটসঅ্যাপ কর্তৃপক্ষকে সাতদিনের সময় দিয়েছে আইটি মন্ত্রক। তার মধ্যে সদুত্তর না পেলে প্রয়োজনীয় আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও হুঁশিয়ারি দিয়েছে কেন্দ্রীয় মন্ত্রক।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, ১৫ মে পর্যন্ত হোয়াটসঅ্যাপের প্রাইভেসি পলিসির আপডেট গ্রহণ করার সময়সীমা ছিল। হোয়াটসঅ্যাপ কর্তৃপক্ষ অবশ্য একদম শেষ পর্যায়ে এসে জানিয়েছিলেন, ১৫ মে- র মধ্যে যদি ভারতীয় ইউজাররা আপডেটেড প্রাইভেসি পলিসি অ্যাকসেপ্ট না করেন, তাহলে তাঁদের অ্যাকাউন্ট ডিলিট হবে না। তবে পরিষেবা সীমাবদ্ধ হবে। যেমন- ইউজারদের কাছে হোয়াটসঅ্যাপের নোটিফিকেশন আসবে। ভিডিয়ো এবং অডিয়ো, দু’রকম হোয়াটসঅ্যাপ কলও আসবে। কিন্তু ইউজাররা মেসেজ পাঠাতে বা পড়তে পারবেন না। এমনকি ভিডিয়ো বা ভয়েস কল এলেও সেটা অ্যাকসেপ্ট করতে পারবেন না ইউজাররা।

আরও পড়ুন- Google IO 2021: আসছে অ্যানড্রয়েড ১২, গুগলের নতুন ‘ওএস’-এ কী কী ফিচার রয়েছে?

হোয়াটসঅ্যাপের নতুন প্রাইভেসি পলিসি নিয়ে দীর্ঘদিন ধরেই জল্পনা চলছে। প্রাথমিক ভাবে হোয়াটসঅ্যাপ কর্তৃপক্ষ জানিয়েছিলেন, ৮ ফেব্রুয়ারির মধ্যে নতুন প্রাইভেসি পলিসি গ্রহণ করতে হবে। এরপর সময়সীমা বাড়িয়ে ১৫ মে পর্যন্ত করা হয়েছিল। তারপর জানানো হয়েছিল, ১৫ মে- র মধ্যেও যাঁরা নতুন প্রাইভেসি পলিসি গ্রহণ করবেন না, তাঁদের আরও ১২০ দিন সময় দেওয়া হবে।