দারুচিনিতে অ্যান্টিভাইরাল, অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল এবং অ্যান্টিফাঙ্গাল বৈশিষ্ট্য রয়েছে। একটি গবেষণায় বলা হয়েছে, দারুচিনি টাইপ-২ ডায়াবেটিসের ঝুঁকিও কমায়।

যখন প্রসঙ্গ ডায়বেটিসের আসে, হলুদ ইনসুলিন সংবেদনশীলতা উন্নত করতে এবং রক্তে শর্করার মাত্রা কমাতে সবচেয়ে বেশি কার্যকর

ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য মেথির বীজ খুবই উপকারী। এটি টাইপ ২ ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য খুব ভাল।

জিরে রক্তে শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করে। রক্তে শর্করার মাত্রা কমাতে সকালে খালি পেটে জিরের জল খেতে পারেন।

মৌরির বীজে স্বাস্থ্যকর এনজাইম থাকে যা ডায়াবেটিসের জন্য উপকারী।