অশোকের বাড়িতে মিষ্টি হাতে শঙ্কর, অভিমানী গুরু বললেন, ‘আমি রিজেক্টেড পার্সন’

শঙ্কর ঘোষের (Shankar Ghosh) কথায়, "উনি আমার অভিভাবকের মতো। দীর্ঘদিন একসঙ্গে রাজনীতি করেছি। বহু আন্দোলন-সংগ্রামে একসঙ্গে থেকেছি। অনেক কাজ শিখেছি ওঁর থেকে। সেই শেখা অভিজ্ঞতা নিয়েই আগামীতে শিলিগুড়ির উন্নয়ন করব।''

অশোকের বাড়িতে মিষ্টি হাতে শঙ্কর, অভিমানী গুরু বললেন, 'আমি রিজেক্টেড পার্সন'
নিজস্ব চিত্র

শিলিগুড়ি: একসময় তাঁর ছায়াসঙ্গী ছিলেন। তাঁর হাত থেকেই রাজনীতির হাতেখড়ি। সেই শিষ্য শঙ্কর ঘোষই খানখান করে দিয়েছেন শিলিগুড়ির ‘অশোক মডেল’।সিপিএমের (CPIM) অবিসংবাদী নেতাকে একুশের ভোটে হেলায় হারিয়েছেন বিজেপি (BJP)-র শঙ্কর ঘোষ। তবে বিধায়ক হয়েই সেই গুরুর বাড়িতেই মিষ্টি হাতে দেখা করতে গেলেন শঙ্কর। পায়ে হাত দিয়ে প্রণাম করলেন তাঁকে।

বিধানসভা নির্বাচনের আগে সিপিএম ছেড়ে শঙ্কর ঘোষের বিজেপিতে যোগ দেওয়া শিলিগুড়ির রাজনৈতিক ময়দানে ভিন্ন সমীকরণ তৈরি করেছিল। এবারের বিধানসভা নির্বাচনে শিলিগুড়িবাসী দেখেছে গুরু-শিষ্যের লড়াই। শেষ হাসি হাসেন অবশ্য শিষ্য। গত বার তৃণমূল ঝড়ে নিজের দুর্গ ধরে রাখলেও এবার বিজেপি প্রার্থী শঙ্কর ঘোষের কাছে হারতে হয় অশোক ভট্টাচার্যকে।

সেই শঙ্কর বিধায়ক হিসেবে শপথ গ্রহণের পর এদিন শিলিগুড়িতে এসেই সোজা চলে যান অশোক ভট্টাচার্যের সঙ্গে দেখা করতে। পায়ে হাত দিয়ে প্রণাম করেন গুরুকে। আগামীর জন্য তাঁকে শুভেচ্ছা জানালেও অভিমানী অশোক বলেন, ‘আমি তো রিজেক্টেড পার্সন!’

BJP MLA Shankar Ghosh Meets CPIM Leader Asok Bhattacharya In His Siliguri House

গুরুর পায়ে হাত দিয়ে প্রণাম শিষ্যের

 

শঙ্কর ঘোষের কথায়, “উনি আমার অভিভাবকের মতো। দীর্ঘদিন একসঙ্গে রাজনীতি করেছি। বহু আন্দোলন-সংগ্রামে একসঙ্গে থেকেছি। অনেক কাজ শিখেছি ওঁর থেকে। সেই শেখা অভিজ্ঞতা নিয়েই আগামীতে শিলিগুড়ির উন্নয়ন করব।”

আরও পড়ুন: রাজনীতিতে এসো না, সৌরভকে পরামর্শ অশোকের 

তা শঙ্করকে কী পরামর্শ দিলেন? শিষ্যের জয়ে খুশি হলেও খানিক যেন অভিমানী অশোক ভট্টাচার্য। সেই অভিমানী সুরে বলেন, “আমি রিজেক্টেড পার্সন। মানুষ আমায় রিজেক্ট করেছে। নিজের ক্রেডিবিলিটি নেই। আমার অধিকার কী যে কাউকে পরামর্শ দেব!” শিষ্যের জয়ে শুভেচ্ছা জানিয়েই অশোক যোগ করেন, “বিজেপির বিরুদ্ধে লড়াই চলবে। কিন্তু শঙ্কর এখন জনপ্রতিনিধি। ও এসেছে। তাই দেখা করেছি।”