করোনার মৃতদের গণচিতা শিলিগুড়িতে, একসঙ্গে দাহ হল ৪৯টি দেহ!

গত তিন দিনে শিলিগুড়িতে (Siliguri) মৃত্যু হয়েছে ৩৯ জনের। বেশ কিছু মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে জলপাইগুড়িতেও। এই পরিস্থিতিতে মৃতদেহের পাহাড় জমেছে সাহুডাঙ্গি শ্মশানে।

  • TV9 Bangla
  • Published On - 17:57 PM, 4 May 2021
করোনার মৃতদের গণচিতা শিলিগুড়িতে, একসঙ্গে দাহ হল ৪৯টি দেহ!
নিজস্ব চিত্র

শিলিগুড়ি: কোভিড (Covid) ঝড়ে বিধ্বস্ত ভারত। বাংলা তথা সারা দেশে লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে করোনা আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা। এই অবস্থায় গায়ে কাঁটা দেওয়ার মতো ছবি দেখা গেল শিলিগুড়িতে। সোমবার বিকেলে শিলিগুড়ির সাউডাঙ্গি শ্মশানে এক সঙ্গে দাহ হল ৪৯ টি মৃতদেহ।

গত ২৪ ঘণ্টায় দার্জিলিং জেলায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৬৪০ জন। বাড়ছে মৃত্যুর সংখ্যাও। এদিকে আবহাওয়া খারাপ থাকায় মৃতদেহ সৎকারে দেরি হচ্ছে। জমছে একের পর এক করোনায় মৃতের শরীর। এই অবস্থায় শিলিগুড়ির সাহুডাঙ্গিতে শ্মশানে পোড়ানো হল দার্জিলিং ও জলপাইগুড়ি থেকে আনা ৪৯ জন করোনা আক্রান্তের দেহ।

গত তিন দিনে শিলিগুড়িতে মৃত্যু হয়েছে ৩৯ জনের। বেশ কিছু মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে জলপাইগুড়িতেও। এই পরিস্থিতিতে মৃতদেহের পাহাড় জমেছে সাহুডাঙ্গি শ্মশানে। এদিকে আবহাওয়া খারাপ থাকায় সৎকারে অনেক দেরি হচ্ছে। তাই একসঙ্গে মোট ৪৯জন করোনা মৃতের দেহ দাহ করা হল বিকেলে। এমনটাই জানান পুর আধিকারিকরা।

কোচবিহার, জলপাইগুড়ি থেকে করোনা আক্রান্তের দেহ আনা হচ্ছে সাহুডিঙ্গি শ্মশানে। এদিকে মৃতের পরিজনেরা এদিন সকাল থেকে ঠায় অপেক্ষায়। নিকট আত্মীয়ের শেষকৃত্য সম্পন্নের সংবাদটুকু নিয়ে তাঁদের ঘরে ফিরে যেতে হবে। তার উপর রয়েছে অ্যাম্বুলেন্সের খরচ।

কয়েকজন জানান, শিলিগুড়িতে হাসপাতাল থেকে শ্মশানে দেহ আনতে গড়ে ১১ হাজার টাকা নিচ্ছে অ্যাম্বুলেন্স। সেই টাকা জোগাড় করে মৃতদেহ শ্মশানে এনেও লম্বা লাইনে দাঁড়াতে হচ্ছে। এদিকে একটানা চলার জন্য মাঝেমাঝেই বন্ধ রাখতে হচ্ছে বৈদ্যুতিক চুল্লি। খারাপ আবহাওয়ায় বন্ধ থাকছে দাহকাজ। এই পরিস্থিতিতে কাঠের চিতা জ্বালিয়ে দেহ দাহ করার চেষ্টা শুরু হয়। কিন্তু খারাপ আবহাওয়ায় সেই কাজও সম্ভব হচ্ছিল না। অবশেষে গণচিতা করে পোড়ানো হল ৪৯ করোনায় মৃতের দেহ। করুণ দৃশ্যের সাক্ষী হল শিলিগুড়ি।

প্রসঙ্গত, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ৩ লক্ষ ৫৭ হাজার ২২৯ জন। তবে ২৪ ঘণ্টায় করোনাকে পরাজিত করে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৩ লক্ষ ২০ হাজার ২৮৯ জন। যার ফলে সক্রিয় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা এখন ৩৪ লক্ষ ৪৭ হাজার ১৩৩। এ পর্যন্ত দেশে করোনা জয় করেছেন ১ কোটি ৬৬ লক্ষ ১৩ হাজার ২৯২ জন।