Kurmi Agitation: গাড়িতেই পচছে মাছ, পচছে লক্ষ লক্ষ টাকার কাঁচামাল, কুড়মিদের আন্দোলনে স্তব্ধ ঝাড়গ্রামের জনজীবন

Kurmi Agitation: কুড়মিদের রেল রোকো এবং ৬ নম্বর জাতীয় সড়ক অবরোধ কর্মসূচির ফলে তিন দিন ধরে ৬ নম্বর জাতীয় সড়কের ওপর হাজার হাজার পণ্যবাহী ট্রাক। নষ্ট হচ্ছে লক্ষ লক্ষ টাকার কাঁচামাল।

Kurmi Agitation: গাড়িতেই পচছে মাছ, পচছে লক্ষ লক্ষ টাকার কাঁচামাল, কুড়মিদের আন্দোলনে স্তব্ধ ঝাড়গ্রামের জনজীবন
TV9 Bangla Digital

| Edited By: জয়দীপ দাস

Sep 22, 2022 | 11:04 PM

ঝাড়গ্রাম: কুড়মি সম্প্রদায়কে এসটি তালিকাভুক্ত করতে হবে। এই দাবিতে জোরদার আন্দোলন চালাচ্ছে কুড়মি সমাজের বিভিন্ন সংগঠন (Kurmi Agitation)। যার জেরে অবরুদ্ধ জাতীয় সড়ক (National HighWay)। আটকে পড়েছে যান চলাচল। চলছে রেল অবরোধ (Rail Strike)। এদিকে জাতীয় সড়ক অবরোধের জেরে পণ্যবাহী গাড়ি দাঁড়িয়ে গিয়েছে ৬ নং জাতীয় সড়কে। ওড়িশা, ঝাড়খণ্ড, ছত্তিশগড় এমনকী মুম্বই পর্যন্ত সমস্ত বাংলা থেকে পরিবহণ চলে এই জাতীয় সড়কের উপর দিয়ে। কিন্তু, মঙ্গলবার থেকে বেড়েছে আন্দোলনে ঝাঁঝ। আর সে কারণেই কাঁচমাল সমেত রাস্তাতেই আটকে পড়েছে ট্রাকের সারি। নষ্ট হচ্ছে লক্ষ লক্ষ টাকার কাঁচা মাল। 

সূত্রের খবর, জাতীয় সড়কে দাঁড়িয়ে থাকা মাছের গাড়িতে নষ্ট হচ্ছে মাছ। কাঁচা সবজি থেকে শুরু করে পাউরুটি-ওষুধের গাড়িও সার বেঁধে দাড়িয়ে রাস্তায়। সবথেকে বেশি দাড়িয়ে পেঁয়াজের গাড়ি। নষ্ট হচ্ছে লক্ষ লক্ষ টাকার জিনিস, কিন্তু হেলদোল নেই কারও। রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞ মহলের একাংশের মত এই আন্দোলন মনে করিয়ে দিচ্ছে সিঙ্গুর আন্দোলনের কথা। একইসঙ্গে কুড়মিদের এই আন্দোলন মনে করিয়ে দিচ্ছে ১৪ বছর আগের জঙ্গলমহল আন্দোলনের কথা। এদিকে এদিন আবার নতুন করে ঝাড়গামের লোধাশুলিতে ৫ নম্বর রাজ্য সড়ক অবরোধ শুরু হয়েছে। যার ফলে অবরুদ্ধ হয়ে পড়েছে ঝাড়গ্রাম যাওয়া রাস্তা। সামনে পুজো তার আগে এই অবরোধ আন্দোলনের ফলে জেরবার ঝাড়গ্রাম জেলা। যার ফলে ঝাড়গ্রাম জেলার জনজীবন স্তব্ধ হয়ে পড়েছে। 

এই খবরটিও পড়ুন

এদিকে কুড়মিদের এই আন্দোলন প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে ঘুরিয়ে আবার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে তোপ দেগেছেন বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। তিনি “এই সরকার ভোট নেওয়ার জন্য ২০২০ সালে কুড়মি সমাজকে এসটি করার জন্য লেখে। পরবর্তীতে ২০২১ সালে ওটা আবার প্রত্যাহার করে নেয়। আইপ্যাককে দিয়ে জঙ্গলমহলের কুড়মি ও জনজাতিদের টুপি পরিয়ে ভুল বুঝিয়ে ভোটটা নিয়ে নেয়। এখন ঠেলায় পড়েছে। আমার সঙ্গে ওদের নেতৃত্বদের কথা হয়েছে। নিশ্চিতভাবে সরকারের উচিত রাজনৈতিক চালাকি না করে, তাদেরকে বুঝিয়ে অবরোধ মুক্ত করা। কারণ রাস্তায় প্রচুর গাড়ি আটকে রয়েছে। এটা সরকারের অপদার্থতার প্রমাণ।” এখন কবে কখন অবরোধ ওঠে সে দিকেই তাকিয়ে রয়েছেন সকলে। 

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla