‘স্বামী’র বয়স ১৫, স্ত্রীর অধিকার ছিনিয়ে নিতে ‘শ্বশুরবাড়ি’র সামনে ধরনা ২৫-এর যুবতীর

Dharna: বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে সহবাসের অভিযোগে অভিযুক্তের বয়স মাত্র ১৫ বছর, আর অভিযোগকারিণী ২৫! যুবতীর দাবি, ইসলামিক শরিয়ত মোতাবেক বছর খানেক আগে তাঁদের গোপনে বিয়ে হয়। কিন্তু বিয়ের পরেই নাকি মুখ ঘুরিয়েছে প্রেমিক।

'স্বামী'র বয়স ১৫, স্ত্রীর অধিকার ছিনিয়ে নিতে 'শ্বশুরবাড়ি'র সামনে ধরনা ২৫-এর যুবতীর
নিজস্ব চিত্র

মালদহ: ‘প্রেমে পড়তে লাগে না বয়স, মনে থাকে না উনিশ-বিশ।’ কিন্তু সেই প্রেমিকের বয়স যদি হয় মাত্র ১৫ বছর, আর প্রেমিকা ২৫? শুধু তাই নয়, সেই নাবালক ‘স্বামী’র সঙ্গে ঘর করতে চেয়ে যদি তার বাড়ির সামনে ধরনা দেন প্রেমিকা? হ্যা, এমনই ঘটনায় বুধবার তীব্র চাঞ্চল্য ছড়াল মালদহের হরিশচন্দ্রপুরে।

বুধবার সকাল। হঠাৎ স্ত্রীর অধিকার পেতে প্রেমিকের বাড়ির সামনে ধরনায় বসে পড়লেন এক প্রেমিকা। অভিযোগ বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে তাঁর সঙ্গে একাধিকবার সহবাস করেছে প্রেমিক। কিন্তু এখন সংসার করতে চাইছে না সে। তবে চমক অন্য জায়গায়। বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে সহবাসের অভিযোগে অভিযুক্তের বয়স মাত্র ১৫ বছর, আর অভিযোগকারিণী ২৫! যুবতীর দাবি, ইসলামিক শরিয়ত মোতাবেক বছর খানেক আগে তাঁদের গোপনে বিয়ে হয়। কিন্তু বিয়ের পরেই নাকি মুখ ঘুরিয়েছে প্রেমিক। এদিকে ২৫-এর প্রেমিকাও নাছোড়। তিনি নাবালক স্বামীর সঙ্গেই ঘর করবেন। এই পণ করেই বাড়ি ছেড়ে এসেছেন।

প্রতিজ্ঞা নিয়ে নাবালকের বাড়ির সামনে ধরনায় বসে রয়েছেন এক যুবতী। এদিকে ঘরের মধ্যে তীব্র অস্বস্তিতে ছেলে ও তার পরিবারের লোকেরা। তাই সকাল থেকেই বাড়ির গেটে তালা ঝুলিয়ে তারা গা ঢাকা দিয়েছেন বলে অভিযোগ। বুধবার এমন ঘটনাকে ঘিরে তীব্র চাঞ্চল্য মালদহের হরিশ্চন্দ্রপুরে। ওই বাড়ির সামনে কৌতূহলী জনতার ভিড় বাড়ছে। তা অবশ্য পরোয়া করছেন না যুবতী।

তাঁর দাবি, মাজেরুল ইসলামের (১৫) সঙ্গে দু’ দুটো বছর চুটিয়ে প্রেম করেছেন। আক্তারি খাতুন (২৫) এও দাবি করছেন যে বিয়ের ছবিও তাঁর কাছে রয়েছে। আক্তারি বলতে থাকেন, একটা রং নম্বরে ফোন কল থেকে দু’জনের মধ্যে ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক গড়ে ওঠে। ছেলের সঙ্গে একাধিকবার সহবাসও হয়েছে। সে তাঁকে স্ত্রীর মতো ‘ব্যবহার’ করেছে। বছরখানেক আগে তাঁর এক আত্মীয়র বাড়িতে গোপনে ইসলামিক শরিয়ত মোতাবেক তাঁদের বিয়ে হয়। ছেলের পরিবারের লোকেরা তাঁদের সম্পর্কের কথা সবই জানেন।

কিন্তু এখন ছেলে এবং তার পরিবারের লোকেরা তাঁকে মানতে অস্বীকার করছেন। বুধবার প্রেমিকের বাড়িতে গেলে তার মা তাঁকে বাড়ি থেকে বের করে দেন বলে অভিযোগ যুবতীর। অন্যদিকে ছেলের মা নুরসেবা বিবি জানান, তাঁর ছেলে নাবালক। বয়স মাত্র ১৫ বছর। তাদের মধ্যে কোনো প্রেমের সম্পর্কই নেই। এবিষয়ে এলাকার কেউ কিচ্ছু জানে না। যদি বিয়ে হয়েই থাকে তাহলে তার প্রমাণ দিতে হবে। তাঁর আরও অভিযোগ, মাস দুয়েক আগে তাঁর ছেলেকে অপহরণ করে ওই মেয়ে ও তার পরিবার। পুলিশ গিয়ে ছেলেকে উদ্ধার করে নিয়ে আসে।

এদিকে প্রেমিকা আক্তারি খাতুনের দাবি, ‘‘আমাদের দু’বছরের সম্পর্ক৷ একাধিকবার শারীরিক সম্পর্ক হয়েছে মাজেরুলের সঙ্গে। এমনকি আমাদের বিয়েও হয়েছে। কিন্তু মৌলভী এখন বিয়ের কাগজপত্র দিতে অস্বীকার করছে যে!’ আরও পড়ুন: ‘বলছে রেজাল্ট ইনকমপ্লিট!’ স্কুলের ছাদে উঠে আত্মহত্যার হুমকি ৫ পড়ুয়ার! নিচে চিলচিৎকার শিক্ষকদের 

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla