করোনোয় প্রয়াত সিপিএমের প্রাক্তন সাংসদ আবুল হাসনাত খান

সিপিএমের চারবারের বিধায়ক ও দু'বারের সাংসদ আবুল হাসনাত খানের (Abul Hasnat Khan) মৃত্যুতে শোকের ছায়া নেমেছে রাজনৈতিক মহলে।

করোনোয় প্রয়াত সিপিএমের প্রাক্তন সাংসদ আবুল হাসনাত খান
ফাইল চিত্র

মুর্শিদাবাদ: করোনাভাইরাস (Coronavirus) প্রাণ কাড়ল আরও এক রাজনৈতিক ব্যক্তিত্বের। প্রয়াত হলেন সিপিএমের (CPIM) চারবারের বিধায়ক ও দু’বারের সাংসদ আবুল হাসনাত খান (Abul Hasnat Khan)। শুক্রবার সন্ধেবেলা কলকাতার এক বেসরকারি হাসপাতালে মৃত্যু হল জঙ্গিপুর লোকসভার প্রাক্তন সিপিএম সাংসদের। ৭৫ বছর বয়সী আবুল হাসনত করোনার উপসর্গ নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন।

১৯৪৬ সালে বিহারের দুমকায় জন্ম আবুল হাসনাত খানের। ইতিহাস বিষয়ে স্নাতকোত্তর করেন রবীন্দ্র ভারতী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে। ছোট থেকেই ছিল বাম রাজনীতিতে দুর্নিবার আগ্রহ। ১৯৭০ সাল থেকে সিপিএমের হোলটাইম কর্মী। ভোট রাজনীতিতে তাঁর প্রথম জিত ১৯৭৭ সালে। সেই শুরু। তার পর ফারাক্কা বিধানসভা কেন্দ্র থেকে ১৯৭৭ সাল থেকে ১৯৯৬, টানা চারবারের বিধায়ক তিনি।

১৯৯৮ সালে জঙ্গিপুর কেন্দ্র থেকে সাংসদ হন। ২০০৪ সালে তাঁকে হারিয়ে ওই কেন্দ্রে সাংসদ হন প্রয়াত কংগ্রেস নেতা তথা প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায়। সিপিএমের চারবারের বিধায়ক ও দু’বারের সাংসদ আবুল হাসনাত খানের মৃত্যুতে শোকের ছায়া নেমেছে রাজনৈতিক মহলে।

আরও পড়ুন: করোনোয় প্রয়াত বিদায়ী বিধায়ক নির্মলচন্দ্র মণ্ডল, প্রশাসনিক সাহায্য না মেলার অভিযোগ

উল্লেখ্য, করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে বিধ্বস্ত সারা দেশ। মৃত্যু হয়েছে বাংলার একাধিক রাজনৈতিক ব্যক্তিত্বের। যার মধ্যে রয়েছেন একুশের বিধানসভা ভোটের চার প্রার্থীও। এদিনই করোনা আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে তৃণমূলের দু’বারের বিধায়ক নির্মলচন্দ্র মণ্ডলের।