নীল ছবিতে অভিনয়, শিখ সমাজের প্রবল বিক্ষোভে সাসপেন্ড বিজেপি নেতা

সম্প্রতি একটি অশ্লীল ভিডিয়ো ভাইরাল হয়েছে। তাতে বিজেপির যুব মোর্চার নেতা জিৎ চক্রবর্তীর গলায় দেখা গিয়েছে শিখদের ধর্মীয় প্রতীক

  • TV9 Bangla
  • Published On - 0:13 AM, 8 Apr 2021
নীল ছবিতে অভিনয়, শিখ সমাজের প্রবল বিক্ষোভে সাসপেন্ড বিজেপি নেতা
নিজস্ব চিত্র

আসানসোল: নীল ছবিতে দেখা গিয়েছে দুর্গাপুর বিজেপির যুব মোর্চার নেতা জিৎ চক্রবর্তীকে। ভোটের মুখে তাঁর ভাইরাল হওয়া ভিডিয়ো নিয়ে চরম অস্বস্তিতে পড়ে গেরুয়া শিবির। অন্যদিকে বুধবার শিখদের ধর্মীয় ভাবাবেগে আঘাত করার অভিযোগে আসানসোলে বিজেপির জেলা কার্যালয়ে বিক্ষোভ দেখান প্রতিনিধিরা। দুর্গাপুর যুব মোর্চার সম্পাদকের বিরুদ্ধে ডেপুটেশনও জমা দেওয়া হয়। প্রবল বিক্ষোভের মুখে ওই নেতাকে তিন মাসের জন্য সাসপেন্ড করল বিজেপি।

সম্প্রতি একটি অশ্লীল ভিডিয়ো ভাইরাল হয়েছে। তাতে বিজেপির যুব মোর্চার নেতা জিৎ চক্রবর্তীকে গিয়েছে। সেই ভিডিয়ো সামনে আসার পর জানা গিয়েছে ব্লু ফিল্মে কাজ ওই বিজেপি নেতা। এদিকে ভাইরাল ভিডিয়োর সিনেমার অশ্লীল দৃশ্যে বিজেপি নেতা জিৎয়ের গলায় শিখ সমাজের ধর্মীয় চিহ্ন ঝুলতে দেখা যায়। আর তার পরেই শুরু হয় তীব্র শোরগোল। শিখ ধর্মকে অপমান করার অভিযোগ ওই বিজেপি নেতার বিরুদ্ধে অবিলম্বে আইনত ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানান শিখ ধর্মাবলম্বীরা। এদিন আসানসোলের বিজেপি জেলা কার্যালয়ের সামনে কার্যত বিক্ষোভ শুরু করেন তাঁরা। বার্নপুর গুরুদুয়ারা প্রবন্ধন কমিটির সম্পাদক সুরিন্দর সিংয়ের নেতৃত্বে শিখ সমাজের প্রতিনিধিরা জেলা কার্যালয়ে গিয়ে জিৎ চক্রবর্তীর বিরুদ্ধে স্মারকলিপি তুলে দেন জেলা সভাপতির হাতে।

এদিকে বিজেপির জেলা সভাপতি শিবরাম বর্মনের দাবি ঘটনা জানাজানি হতেই ওই যুব নেতাকে শো-কজ করা হয়। এবং পরে তাঁকে তিন মাসের জন্য সাসপেন্ড করা হয়েছে বলে খবর। বিজেপি নেতৃত্বের অবশ্য দাবি, কারও ব্যক্তিগত দোষের দায় দলের ওপর চাপানো ঠিক নয়। আগামী দিনে যুব মোর্চার নেতার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নিলে শিখ সমাজকে সম্পূর্ণরূপে সহযোগিতা আশ্বাস দিয়েছেন বিজেপি নেতৃত্ব।

প্রসঙ্গত,দুর্গাপুর পশ্চিম বিধানসভা কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী (BJP Candidate) লক্ষণ ঘোড়ুইয়ের বিরোধিতা করে নির্দল প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র জমা দেন মহিলা মোর্চার রাজ্য নেত্রী চন্দ্রমল্লিকা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনিও লক্ষণ ঘোড়ুইয়ের সঙ্গে বিজেপি যুব নেতার বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ করেন। আর তার পরেই এদিন ওই নিজেপি নেতাকে তোলপাড় পড়ে যায় আসানসোলে।