Anubrata Mondal: আসানসোল থেকে অনুব্রতকে নিয়ে রাত পৌনে তিনটেয় নিজাম প্যালেসে পৌঁছল সিবিআই

CBI: শীতলপুরের গেস্ট হাউজেই সিবিআই অ্যারেস্ট মেমো বা গ্রেফতারি পরোয়ানায় সই করায় অনুব্রতকে।

Anubrata Mondal: আসানসোল থেকে অনুব্রতকে নিয়ে রাত পৌনে তিনটেয় নিজাম প্যালেসে পৌঁছল সিবিআই
গরু পাচার মামলায় গ্রেফতার অনুব্রত মণ্ডল।
TV9 Bangla Digital

| Edited By: Sanjoy Paikar

Aug 12, 2022 | 2:57 AM

আসানসোল ও কলকাতা: চরম নাটকীয়তায় ভরা লক্ষ্মীবার। বুধবার রাতেই সিবিআই দলবল নিয়ে পৌঁছে গিয়েছিল বোলপুরে। রতন কুঠি গেস্ট হাউজে ভোরের আলোর অপেক্ষা। বৃহস্পতিবার সকাল হতেই ১০০ জন সিআরপিএফ জওয়ান ঘিরে ফেলে অনুব্রতর বোলপুরের নীচুপট্টি এলাকার বাসভবন। ভিতরে ঢোকেন সিবিআই আধিকারিকরা। এরপর থেকে পরতে পরতে নাটকীয়তা। গ্রেফতার করা হয় অনুব্রতকে। নিয়ে যাওয়া হয় আসানসোলে সিবিআইয়ের বিশেষ আদালতে। অনুব্রতকে ১০ দিনের হেফাজতে পায় সিবিআই। এরপর আসানসোল থেকে অনুব্রত নিয়ে সিবিআইয়ের কনভয় রওনা দেয় কলকাতার নিজাম প্যালেসের উদ্দেশে। অনুব্রতকে নিয়ে আসার পথে ধনেখালিতে যানজটে আটকে যায় সিবিআইয়ের গাড়ি। যানজটে বেশ কিছুক্ষণ আটকে ছিল গাড়ি। স্থানীয় পুলিশের সহযোগিতায় যানজট কাটিয়ে রওনা দেয় সিবিআইয়ের কনভয়। শেষপর্যন্ত রাত প্রায় পৌনে তিনটের সময় অনুব্রতকে নিয়ে নিজাম প্যালেসে পৌঁছন সিবিআই আধিকারিকরা।

এর আগে বিকেল পাঁচটা নাগাদ আসানসোলের কুলটিতে ইসিএলের শীতলপুর গেস্ট হাউস থেকে আসানসোলে সিবিআইয়ের বিশেষ আদালতে নিয়ে আসা হয় গরু পাচার মামলায় গ্রেফতার হওয়া বীরভূমের তৃণমূল কংগ্রেস জেলা সভাপতি অনুব্রত মণ্ডলকে। প্রথম থেকে একটা ধোঁয়াশা তৈরি হয়েছিল, অনুব্রতর গ্রেফতারি নিয়ে। তাঁর আইনজীবী দাবি করেছিলেন, অনুব্রতকে গ্রেফতার করা হয়নি। এদিকে সিবিআই সূত্রে জানা যায়, বীরভূমের ‘বাহুবলী’ নেতা গ্রেফতার। এ নিয়ে একটা প্রশ্নের খেলা চলতে থাকে।

ওদিকে ‘কেষ্ট’কে নিয়েও সিবিআই সড়কপথে ইলামবাজার দুর্গাপুরে দুপুর দেড়টা নাগাদ পৌঁছয়। সঙ্গে ১৫ টিরও বেশি গাড়ির কনভয়। যার মধ্যে সাদা একটি গাড়িতে ছিলেন অনুব্রত। দুর্গাপুর থেকে সোজা সেই কনভয় আসানসোলের ২ নম্বর জাতীয় সড়ক দিয়ে এথোড়া মোড় হয়ে কুলটি থানার সীতারামপুর রোড ধরে নিয়ামতপুর ও লিথুরিয়া রোড পার করে পৌঁছয় শীতলপুরে ইসিএলের গেস্ট হাউজে। ঘড়ির কাঁটা তখন দুপুর আড়াইটের ঘর ছুঁয়েছে।

সে সময় জানা যায়, তখনও নাকি অনুব্রত অ্যারেস্ট মেমোতে সই করেননি। এরপরই গরু পাচার মামলায় বেলা ৩টে ৪০ মিনিটে গ্রেফতার করা হয় অনুব্রত মণ্ডলকে। শীতলপুরের গেস্ট হাউজেই সিবিআই অ্যারেস্ট মেমো বা গ্রেফতারি পরোয়ানায় সই করায় অনুব্রতকে। সেখানে ইসিএলের সাঁকতোড়িয়া হাসপাতাল থেকে চিকিৎসকের দল আসে। অনুব্রতর স্বাস্থ্যপরীক্ষা করানো হয়। শীতলপুর থেকে আসানসোলের আট কিলোমিটার রাস্তাতে ছিল অক্সিজেনের ব্যবস্থা-সহ অত্যাধুনিক অ্যাম্বুলেন্স। এরপর বিকেল পাঁচটায় আসানসোল আদালত।

এই খবরটিও পড়ুন

অনুব্রত মণ্ডলের ১০ দিনের সিবিআই হেফাজত চলবে ২০ অগস্ট পর্যন্ত। এর মধ্যে তাঁর শরীরে কোনও সমস্যা হলে কলকাতার হাসপাতালে চিকিৎসা করানো যাবে। এই হেফাজতপর্বে তাঁর সঙ্গে দেখা করতে পারবেন তাঁর দুই আইনজীবী। জানা গিয়েছে, সেনা হাসপাতালের কার্ডিওলজির এমডি ও এমডি মেডিসিন এবং এমএসকে নিয়ে একটি মেডিক্যাল বোর্ড তৈরি করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে সিবিআইয়ের আসানসোল বিশেষ আদালতের তরফে। অনুব্রতর শারীরিক পরীক্ষানিরীক্ষা করবে এই বোর্ড।

Latest News Updates

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla