Rahul Sinha: ‘তৃণমূলের ক্ষমতা নেই রাজ্যপালকে বাদ দেওয়ার’, আচার্য-বিতর্ক উস্কে দিয়ে মন্তব্য রাহুলের

Rahul Sinha in Burdwan: আচার্য বিতর্ক নিয়ে রাজ্য সরকারকে কটাক্ষ করলেন রাহুল সিনহা। বললেন, "মন্ত্রিসভায় পাশ করিয়ে নিলেও বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য রাজ্যপালই থাকবেন। তৃণমূলের ক্ষমতা নেই রাজ্যপালকে বাদ দেওয়ার।"

Rahul Sinha: 'তৃণমূলের ক্ষমতা নেই রাজ্যপালকে বাদ দেওয়ার', আচার্য-বিতর্ক উস্কে দিয়ে মন্তব্য রাহুলের
বিজেপি নেতা রাহুল সিনহা
TV9 Bangla Digital

| Edited By: Soumya Saha

May 30, 2022 | 11:17 PM

বর্ধমান : বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য রাজ্যপালই থাকবেন। দাবি বিজেপি নেতা রাহুল সিনহার। গত বৃহস্পতিবার রাজ্য মন্ত্রিসভার বৈঠকে, রাজ্য বিশ্ববিদ্যালয়গুলির আচার্য পদ থেকে রাজ্যপালকে সরানো সংক্রান্ত প্রস্তাবে অনুমোদন দেওয়া হয়। যদি এই প্রস্তাব বিধানসভায় পাস হয়ে যায়, তারপরও এতে রাজ্যপালের চূড়ান্ত সম্মতির প্রয়োজন। ফলে, রাজ্য সরকারের জন্য এই পথ খুব একটা সহজ নয়। এমন পরিস্থিতিতে এই আচার্য বিতর্ক নিয়ে রাজ্য সরকারকে কটাক্ষ করলেন রাহুল সিনহা। বললেন, “মন্ত্রিসভায় পাশ করিয়ে নিলেও বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য রাজ্যপালই থাকবেন। তৃণমূলের ক্ষমতা নেই রাজ্যপালকে বাদ দেওয়ার।”

সোমবার বাঁকুড়া থেকে কলকাতায় ফেরার পথে বর্ধমানে বিজেপির কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য রাহুল সিনহা এই কথা বলেন। তাঁর বক্তব্য, “তৃণমূল চাইলেও বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য পদ থেকে রাজ্যপালকে সরানো যাবে না। রাজ্যপাল তৃণমূলের দুর্নীতি, চুরি নিয়ে সরব হচ্ছেন। তাই তাঁকে সরানোর চেষ্টা চলছে। কিন্তু তৃণমূলের ইচ্ছা পূরণ হবে না।” যদিও রাজ্য বিশ্ববিদ্যালয়গুলির আচার্য পদ থেকে রাজ্যপালকে সরানোর বিষয়ে বেশ আত্মবিশ্বাসী সুর তৃণমূলের গলায়। শ্যামনগরে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের সভা থেকে বর্ষীয়ান সাংসদ সৌগত রায় দাবি করেন, “রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড় কোনও শিক্ষাবিদ নন। উনি উপাচার্য নিয়োগে বাঁধা দিতে পারেন না। মুখ্যমন্ত্রীই হবেন আচার্য।”

এই খবরটিও পড়ুন

উল্লেখ্য, আচার্য পদ নিয়ে এমন সিদ্ধান্তের নজির ভারতে আগেও রয়েছে। অতীতে তামিলনাড়ু, গুজরাট, কেরলেও এই ধরনের সিদ্ধান্ত নিতে দেখা গিয়েছে। কিন্তু বাংলায় রাজ্য়-রাজ্যপাল সম্পর্ক যে অবস্থায় দাঁড়িয়ে, তাতে মন্ত্রিসভায় এই প্রস্তাব পাস হলেও, শেষ পর্যন্ত কতটা বাস্তবায়িত হবে, তা নিয়ে প্রশ্ন থেকেই যাচ্ছে রাজনৈতিক মহলে। বিশেষ করে রাজ্যপাল নিজেও এই নিয়ে যে মন্তব্য করেছেন, তাতে গুঞ্জন আরও বেড়েছে। রবিবার শিলিগুড়িতে রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড় জানিয়েছিলেন, রাজ্যে দুর্নীতি থেকে নজর ঘোরাতেই বিষয়টিকে একটি ইস্যু করা হচ্ছে। আচার্য পদ থেকে তাঁকে সরাতে হলে, তাতে যে চূড়ান্ত সিলমোহর দেবেন রাজ্যপালই, সেই কথাও মনে করিয়ে দিয়েছিলেন তিনি।

Latest News Updates

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla