বিয়ের আগে অন্তরঙ্গ ভিডিয়ো ভাইরালের হুমকি পাত্রের, লজ্জা-অভিমানে আত্মঘাতী হবু স্ত্রী

Suicide: "আমার ভাইঝির সঙ্গে ওই যুবকের দীর্ঘদিনের সম্পর্ক ছিল। আমরা সকলেই জানতাম। বিয়ের কথাবার্তাও চলছিল। ওই ছেলে পণের জন্য আমার ভাইঝিকে চাপ দিতে থাকে। যা নিয়ে ওদের মধ্যে ঝামেলা হয়েছিল।''

  • Updated On - 8:05 pm, Fri, 9 July 21 Edited By: সৈকত দাস
বিয়ের আগে অন্তরঙ্গ ভিডিয়ো ভাইরালের হুমকি পাত্রের, লজ্জা-অভিমানে আত্মঘাতী হবু স্ত্রী
নিজস্ব চিত্র

দক্ষিণ দিনাজপুর: দীর্ঘ দিনের সম্পর্ক, দুই পরিবারের উদ্যোগেই শুরু হয়েছিল বিয়ের প্রস্তুতি। কিন্তু বিয়ের কয়েক দিন আগে বেঁকে বসেন পাত্র। সম্বন্ধ ভেঙে দিয়ে প্রেমিকার সঙ্গে অন্তরঙ্গ সময়ের গোপন ভিডিয়ো সোশাল সাইটে ছেড়ে দেওয়ার হুমকি দেন হবু স্বামী। লোকলজ্জার ভয়ে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মঘাতী হন পাত্রী। চাঞ্চল্যকর এই ঘটনাটি ঘটেছে দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার পতিরাম থানার অন্তর্গত গোপালবাটি গ্রাম পঞ্চায়েতের কামালপুর এলাকায়।

আত্মঘাতী যুবতীর নাম শিল্পী দাস (২০)। জানা গিয়েছে, বৃহস্পতিবার রাতে নিজের শোবার ঘরে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মঘাতী হন তিনি। রাতেই বিষয়টি নজরে আসে পরিবারের। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যায় পতিরাম থানার পুলিশ। পরে দেহ উদ্ধারের পর শুক্রবার তা ময়নাতদন্তের জন্য বালুরঘাট জেলা হাসপাতালে পাঠানো হয়। মৃতের পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযুক্ত যুবকের বিরুদ্ধে পতিরাম থানায় খুনের লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। অভিযুক্ত পাত্রকে গ্রেফতারও করেছে পুলিশ।

মৃতার পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে, প্রায় বছর দুয়েক ধরে কামালপুরের শিল্পীর সঙ্গে হিলি থানার ত্রিমোহনীর লালপুরের বাসিন্দা তোতা মহন্তের প্রেমের সম্পর্ক ছিল। যতদিন গিয়েছে সম্পর্ক তত গভীর হয়েছে। নিজেরাই বিয়ের উদ্যোগ নিয়েছিলেন। দিন পাঁচেক আগে পাত্রপক্ষ শিল্পীর বাড়িতে বিয়ের কথাবার্তা বলতে আসে। সবই ঠিকঠাক চলছিল।

অভিযোগ, আচমকা বৃহস্পতিবার রাতে হবু পাত্র জানান তাঁর পক্ষে শিল্পীকে বিয়ে করা অসম্ভব। এনিয়ে দু’জনের ফোনে কথোপকথন হয়। সেই সময় নাকি দু’জনের অন্তরঙ্গ মুহূর্তের ভিডিয়ো সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাইল করার হুমকি দেন পাত্র। এর পরেই লোকলজ্জার ভয়ে ও আত্মসম্মানের কথা ভেবে হবু স্বামীর সঙ্গে ফোনে কথা শেষ হতেই গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মঘাতী হন শিল্পী।

এবিষয়ে মৃতার কাকা স্বপন দাস বলেন, “আমার ভাইঝির সঙ্গে ওই যুবকের দীর্ঘদিনের সম্পর্ক ছিল। আমরা সকলেই জানতাম। বিয়ের কথাবার্তাও চলছিল। ওই ছেলে পণের জন্য আমার ভাইঝিকে চাপ দিতে থাকে। যা নিয়ে ওদের মধ্যে ঝামেলা হয়েছিল। সম্পর্কে থাকাকালীন আমার ভাইঝির সঙ্গে একাধিকবার শারীরিক সম্পর্ক করে। কিন্তু গতকাল রাতে তাকে বিয়ের করতে অস্বীকার করে এবং গোপন ভিডিয়ো ভাইরাল করে দেওয়ার হুমকি দেওয়া হয়। যার ফলে আমার ভাইঝি অভিমানে আত্মঘাতী করেছে। আমরা ওই যুবকের নামে থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছি। ওর কঠোর শাস্তি চাই৷”

আরও পড়ুন: ‘আরএসএসের ট্রেনিংপ্রাপ্ত, নবান্নেও যোগাযোগ!’ বিডিও বদলির দাবিতে বিক্ষোভ তৃণমূলের 

পতিরাম থানার ওসি বিরাজ সরকার জানিয়েছেন, ঘটনায় অভিযোগ পেয়েছেন তারা। পুরো ঘটনা তদন্ত শুরু করেছেন তারা।

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla