মমতাকে ‘পিসি’ সম্বোধন, মালব্যের আইটি সেলের বিরুদ্ধে বিভ্রান্তি ছড়ানোর অভিযোগ তৃণমূলের

পশ্চিমবঙ্গে বিশেষ দায়িত্ব পেয়ে রাজ্যে পা রেখেছেন বিজেপির আইটি সেলের প্রধান অমিত মালব্য, তৃণমূল নেতৃত্বের অভিযোগ, বিজেপি-র আইটি সেল মানুষকে বিভ্রান্ত করছে।

মমতাকে 'পিসি' সম্বোধন, মালব্যের আইটি সেলের বিরুদ্ধে বিভ্রান্তি ছড়ানোর অভিযোগ তৃণমূলের
amit malviya vs tmc

TV9 বাংলা ডিজিটাল: সবে সপ্তাহখানেক হয়েছে পশ্চিমবঙ্গে বিশেষ দায়িত্ব পেয়ে রাজ্যে পা রেখেছেন বিজেপি (BJP)-র আইটি সেলের প্রধান অমিত মালব্য (Amit Malviya)। এর মধ্যেই তৃণমূল (TMC) শিবিরের মাথাব্যথার কারণ হয়ে উঠেছেন তিনি। উত্তর দিনাজপুর (Uttar Dinajpur) তৃণমূল নেতৃত্বের অভিযোগ, বিজেপি-র আইটি সেল মানুষকে বিভ্রান্ত করছে।

উত্তরবঙ্গের সবকটি জেলার দলীয় কর্মীদের সঙ্গে ইতিমধ্যেই শিলিগুড়িতে (Siliguri) বৈঠক সেরেছেন মালব্য। বৈঠক সেরে টুইটারে তিনি লেখেন, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee) উত্তরবঙ্গকে অবহেলা করেছেন। মুখ্যমন্ত্রীকে ‘পিসি’ সম্বোধন করে মালব্যর দাবি ছিল, একুশের বিধানসভা ভোটে উত্তরবঙ্গে ‘ক্লিন সুইপ’ করবে বিজেপি। গেরুয়া শিবিরের আইটি প্রধানের এই বক্তব্যের একদিন পরেই পাল্টা অভিযোগ জানাল শাসকদল। শনিবার তৃণমূল কংগ্রেসের উত্তর দিনাজপুর জেলা সভাপতি কানাহাইয়ালাল আগরওয়াল দাবি করেছেন, বিজেপি সামাজিক মাধ্যমে অসত্য খবর প্রচার করছে। ২০১১ সালে ক্ষমতায় আসার পর থেকে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় একাধিক জনকল্যাণমূলক প্রকল্প এনেছেন যাতে জনগণ সরাসরি লাভবান হয়েছে। পাশাপাশি পরিকাঠামোগত উন্নয়নও হয়েছে জেলায় জেলায়। এই উন্নয়নের সঙ্গে পাল্লা না দিতে পেরেই বিজেপি-র আইটি সেল সোশ্যাল মিডিয়ায় ‘ফেক খবর’ ছড়িয়ে দিচ্ছে বলে সাংবাদিক বৈঠকে দাবি করে তৃণমূল শিবির। যদিও সাধারণ মানুষ বিজেপি-র এই ‘প্ররোচনায়’ পা দেবে না বলেই বিশ্বাস শাসক শিবিরের।

২০১৪ লোকসভা ভোটের বহু আগে থেকেই বিজেপি-র শীর্ষ নেতৃত্ব সোশ্যাল মিডিয়ার মাহাত্ম্য খুব ভালভাবে বুঝে গিয়েছিলেন। অন্যদিকে, তৃণমূল কংগ্রেসের মতো দল কখনই সোশ্যাল মিডিয়া প্রচারকে খুব একটা গুরুত্ব দেয়নি। কিন্তু, ২০১৯ লোকসভা নির্বাচনের পর তারা বুঝতে পারে, এর তাৎপর্য কতটা। সেই মতো এখন বিজেপি-র সোশ্যাল মিডিয়ার বিরুদ্ধে তৃণমূলও ফেসবুক-টুইটারে অভিনব কায়দায় প্রচার শুরু করেছে। সেই প্রচারের অগ্রভাগ সামলাচ্ছে প্রশান্ত কিশোরের সংস্থা আই-প্যাক। পিছন থেকে খেলছেন ডেরেক ও’ব্রায়েন, অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের মতো নেতারা। ফলে একটা বিষয় ক্রমশ দিনের আলোর মতোই পরিষ্কার হয়ে যাচ্ছে। দেশের ‘মোস্ট ওয়েটেড’ বিধানসভা নির্বাচনের লড়াই যতটা না মাঠেঘাটে হবে, তার চেয়েও বেশি হবে সোশ্যাল মিডিয়ায়।

আরও পড়ুন: বিপ্লব কি পারবেন কুর্সি বাঁচাতে? হেস্তনেস্ত করতে ডাক এল দিল্লি থেকে

সেই লড়াইয়ের তীব্রতা আগে থেকেই অনুমান করে শাহ-নাড্ডারা খোদ আইটি সেল প্রধান অমিত মালব্যকে রাজ্যে পাঠিয়েছেন। তবে এটাও সত্যি যে বিজেপি আইটি সেলের বিরুদ্ধে ‘মিথ্যে খবর’ প্রচারের অভিযোগ ওঠে অহরহ। মাসকয়েক আগে তো খোদ বিজেপি সাংসদ সুব্রহ্মণ্যম স্বামী এই নিয়ে অমিত মালব্যকে তোপ দেগেছিলেন।

গত শুক্রবার দলীয় কর্মীদের সঙ্গে বৈঠক শেষে টুইটে মালব্য লেখেন, ‘উত্তরবঙ্গের সকল জেলার শতাধিক কর্মীদের সঙ্গে গত দু’দিন শিলিগুড়িতে কাটালাম। এমন এক এলাকা (উত্তরবঙ্গ) যাকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় অবহেলা করেছিলেন। বিজেপিকে ৮টার মধ্যে ৭টা লোকসভা আসন দিয়েছে এই উত্তরবঙ্গ। ২০২১-এর মে মাসে এখানে গেরুয়া ঝড় উঠবে। পিসি আরামসে এই এলাকাকে হিসেবের বাইরে রাখতে পারেন।’

পাল্টা প্রচারে নেমে আইটি সেল প্রধানের এই ‘অবহেলার’ দাবিকে বিভ্রান্ত বলে দাবি করেছে তৃণমূল।