EURO2020 : জোড়া গোল,পুসকাসের নামাঙ্কিত স্টেডিয়ামে রোনাল্ডোর ইতিহাস

পর্তুগীজ কোচ ফার্নান্দো ডি কোস্টা দুটি বদল করতেই ভোল পাল্টে যায় পর্তুগালের। ৮১ মিনিটে কোচ তুলে নেন কার্ভালহো ও জোটা। পরিবর্তে নামানো হয় রেনাতো স্যাঞ্চেজ ও আন্দ্রে সিলভাকে। যার ফল ৩ মিনিটের মধ্যে পায় পর্তুগাল।

EURO2020 : জোড়া গোল,পুসকাসের নামাঙ্কিত স্টেডিয়ামে রোনাল্ডোর ইতিহাস
জোড়া গোলের পর উচ্ছ্বাস রোনাল্ডোর

পর্তুগাল- ৩ (গুইরেরো Raphaël Guerreiro  ৮৪’, রোনাল্ডো পেনাল্টি ৮৭’, রোনাল্ডো ৯২’)

হাঙ্গেরি-০

 

বুদাপেস্টঃ ২০১৬ সালে ঠিক যেখানে শেষ করেছিলেন, ৫ বছর পর ঠিক যেন সেখান থেকেই শুরু করলেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো(CRISTIANO RONALDO)। ২০১৬ সালের ইউরো (EURO 2021)ফাইনালে চোটের জন্য মাঠ থেকে বেরিয়ে যেতে হয়েছিল। কিন্তু পর্তুগালের (PORTUGAL) ডাগ আউটে দাঁড়িয়ে যেভাবে দলকে তাতাচ্ছিলেন, তা আজও ভুলতে পারেনি ফুটবলপ্রেমীরা। আর ঠিক সেখান থেকেই এই ইউরোতে শুরু করলেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো। জোড়া গোল করলেন। যার সৌজন্যে হাঙ্গেরির(HUNGARY) বিরুদ্ধে ৩-০ গোলে জিতল পর্তুগাল।

এখন গোটা দুনিয়া যে ৩ ফুটবল তারকার দিকে তাকিয়ে থাকে তাঁরা হলেন মেসি, নেইমার ও রোনাল্ডো। মেসি ও নেইমার কোপা আমেরিকার প্রথম ম্যাচই গোলের স্বাদ পেয়ে গিয়েছেন। এদিন নজর ছিল সিআর সেভেনের দিকে। তিনি কি ইউরো অভিযান গোল দিয়ে শুরু করতে পারবেন? হতাশ করেননি পর্তুগাল ফুটবলের সুপারস্টার।

এদিন অবশ্য হাঙ্গেরির বিরুদ্ধে শুরুটা একেবারেই ভাল ছিল না পর্তুগালের। ঘরের মাঠে প্রথমার্ধে পর্তুগালকে কার্যত নাস্তানাবুদ করে ছেড়েছিল হাঙ্গেরি। অজস্র পাস খেললেও হাঙ্গেরির বক্সে খেই হারিয়ে ফেলতে থাকে ব্রুনো ফার্নান্ডেজ-জোটারা। গোলের সুযোগ হাতছাড়া করেন রোনাল্ডোও।

দ্বিতীয়ার্ধেও সেই একই ছবি। বরং দ্বিতীয়ার্ধে আক্রমণের ঝাঁঝ বাড়ায় হাঙ্গেরি। কাউন্টার অ্যাটাকে পর্তুগাল ডিফেন্স কাঁপুনি ধরাচ্ছিলেন হাঙ্গেরির ফুটবলাররা। কিন্তু ম্যাচের মেজাজটাই বদলে গেল ৮১ মিনিটে। পর্তুগীজ কোচ ফার্নান্দো ডি কোস্টা দুটি বদল করতেই ভোল পাল্টে যায় পর্তুগালের। ৮১ মিনিটে কোচ তুলে নেন কার্ভালহো ও জোটা। পরিবর্তে নামানো হয় রেনাতো স্যাঞ্চেজ ও আন্দ্রে সিলভাকে। যার ফল ৩ মিনিটের মধ্যে পায় পর্তুগাল। ৮৪ মিনিটে গুরেইরোর গোলে এগিয়ে যায় পর্তুগাল। এরপর শুরু রোনাল্ডো ম্যাজিক।

ম্যাচের ৮৭ মিনিটে পেনাল্টি থেকে গোল করে পর্তুগালের ব্যবধান বাড়ান সিআর সেভেন। ২-০ গোলের ধাক্কা কাটাতে না কাটাতেই ফের রোনাল্ডোর গোল। এবার ম্যাচের ইনজুরি টাইমে। ৩-০ গোলে জয় পায় ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো। আর জোড়া গোল করে মিশেল প্লাতিনির রেকর্ড ভাঙলেন সিআরসেভেন। ইউরো কাপে ৯টি গোল করার কীর্তি ছিল মিশেল প্লাতিনির। এদিন জোড়া গোল করে সেই রেকর্ড ভাঙলেন সিআর সেভেন। ইউরো কাপে এই নিয়ে ১১টি গোল হয়ে গেল পর্তুগীজ সুপারস্টারের।

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla