শুভেন্দু-বাবুল-কুণাল সাক্ষাৎ, বৈঠক না নেহাত সৌজন্য!

হোটেলে মুখোমুখি দেখা হয়ে গেল তৃণমূলের (TMC) মুখপাত্র কুণাল ঘোষ (Kunal Ghosh), কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয় (Babul Supriyo) ও বিজেপি (BJP) নেতা শুভেন্দু অধিকারীর (Suvendu Adhikari)। সূত্রের খবর, দুই দলের নেতারা প্রায় ১৫ মিনিট ধরে বৈঠক করেন।

  • TV9 Bangla
  • Published On - 23:18 PM, 23 Feb 2021
শুভেন্দু-বাবুল-কুণাল সাক্ষাৎ, বৈঠক না নেহাত সৌজন্য!
অলংকরণ- অভীক দেবনাথ

দক্ষিণ ২৪ পরগনা: বারুইপুরের একটি হোটেলে মুখোমুখি দেখা হয়ে গেল তৃণমূলের (TMC) মুখপাত্র কুণাল ঘোষ (Kunal Ghosh), কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয় (Babul Supriyo) ও বিজেপি (BJP) নেতা শুভেন্দু অধিকারীর (Suvendu Adhikari)। সূত্রের খবর, দুই দলের নেতারা প্রায় ১৫ মিনিট ধরে বৈঠক করেন। যদিও কুণাল ঘোষ এই বৈঠকের কথা অস্বীকার করেছেন। তবে ‘সৌজন্য সাক্ষাৎ’ হয়েছিল সে কথা মেনে নেন। তবে রাজনৈতিক মঞ্চে যারা একে অন্যের তীব্র বিরোধী, তাঁদের এ হেন ‘আচমকা’ সাক্ষাতে রাজনৈতিক মহলে শুরু হয়েছে জল্পনা।

সূত্রের খবর, ক্যানিংয়ে এ দিন তৃণমূলের একটি সভা থেকে ফিরছিলেন কুণাল ঘোষ। একই সময়ে পালটা সভা ছিল বিজেপির। যেখানে বক্তা ছিলেন কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয় এবং শুভেন্দু অধিকারী। প্রায় একই সময়ে দু’টি সভা শেষ হয়। তাঁরা কলকাতার উদ্দেশে রওনা দিলে কামালগাজির কাছে একটি হোটেলে চা খেতে ঢোকেন কুণাল ঘোষ। তিনি আসার ১০-১৫ মিনিটের মধ্যেই ওই হোটেলে ঢোকেন শুভেন্দু ও বাবুল।

এই সাক্ষাৎ নিয়ে কুণালের বক্তব্য, “চা খেতে আমি যে হোটেলে ঢুকেছিলাম, ঘটনাচক্রে সেখানেই ওঁরাও এসে পড়েন। এর মধ্যে কোনও রাজনৈতিক সমীকরণ নেই।” কী কথা হয়েছিল জানতে চাওয়া হলে কুণাল দ্ব্যর্থহীন ভাষায় জানান, “দু’জন পরিচিত মানুষের সঙ্গে দেখা হয়ে গেলে যা হয় সেটুকুই কথা হয়েছে। আলাদা দল করলেও ন্যূনতম সৌজন্যবোধটা থাকবে।” এই সাক্ষাৎ নিয়ে যদিও বিজেপির তরফে কোনও প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি।

হোটেল কর্ণধারের ছবিও তোলেন তাঁরা

আরেকটি সূত্র মারফতও এই সাক্ষাৎকে নেহাতই সৌজন্য সাক্ষাৎ বলেই দাবি করে হয়েছে। তবে বিধানসভা নির্বাচনের মাসদুয়েক আগে আদায়-কাঁচকলায় সম্পর্ক থাকা দুই দলের শীর্ষ নেতাদের এই সাক্ষাৎ জল্পনা সৃষ্টি করেছে রাজনৈতিক মহলে।