Period Fatigue: পিরিয়ড হলে কাজ করার এনার্জি এক্কেবারে চলে যায়? এই ৫ টিপস মানলে মাসের ওই ক’টা দিন থাকবে না কোনও কষ্ট

Women Health: ঋতুস্রাবের সময় প্রায় এক তৃতীয়াংশ মহিলা তীব্র পেটের যন্ত্রণায় সহ্য করেন। এছাড়া কোমরে ব্যথা, পায়ে ব্যথাও রয়েছে। তার সঙ্গে কারও অত্যধিক রক্তক্ষরণ হয়। শরীর ভারী হয়ে থাকে। শরীর অত্যন্ত দুর্বল হয়ে থাকে। তার উপর আপনার যদি ফাইব্রয়েড, পিসিওডি, এন্ডোমেট্রিয়াল সিস্টের সমস্যা থাকে, কষ্ট আরও বাড়তে থাকে।

Period Fatigue: পিরিয়ড হলে কাজ করার এনার্জি এক্কেবারে চলে যায়? এই ৫ টিপস মানলে মাসের ওই ক'টা দিন থাকবে না কোনও কষ্ট
Follow Us:
| Updated on: Jun 24, 2024 | 10:17 AM

ঋতুস্রাবের সময় প্রায় এক তৃতীয়াংশ মহিলা তীব্র পেটের যন্ত্রণায় সহ্য করেন। এছাড়া কোমরে ব্যথা, পায়ে ব্যথাও রয়েছে। তার সঙ্গে কারও অত্যধিক রক্তক্ষরণ হয়। শরীর ভারী হয়ে থাকে। শরীর অত্যন্ত দুর্বল হয়ে থাকে। তার উপর আপনার যদি ফাইব্রয়েড, পিসিওডি, এন্ডোমেট্রিয়াল সিস্টের সমস্যা থাকে, কষ্ট আরও বাড়তে থাকে। ঋতুস্রাবের সময় অনেকেই পেট ফাঁপা, মুড সুইংয়ের সমস্যারও মুখোমুখি হন। সব মিলিয়ে এই সময় দেহে এনার্জি লেভেল একদম কমে যায়। শরীরে ক্লান্তি থাকে। কিন্তু কাজ থেকে মুক্তি নেই। পিরিয়ড হলেও রোজকারের কাজ থেকে ছুটি নেই। এই অবস্থায় কীভাবে ক্লান্তি কাটাবেন এবং শরীরকে সুস্থ রাখবেন, রইল টিপস।

সুষম আহার: পিরিয়ডের সময় মিষ্টি খাবারের প্রতি আকাঙ্ক্ষা বেড়ে যায়। চেষ্টা করুন চিনিযুক্ত খাবার এই সময় এড়িয়ে চলার। তাজা ফল, সবজি বেশি করে খান। এমন খাবার খান যার মধ্যে ভিটামিন সি, আয়রন, ভিটামিন বি-এর পরিমাণ বেশি।

হাইড্রেশন: শারীরিক ক্লান্তি ও দুর্বলতা কাটাতে শরীরকে হাইড্রেটেড রাখা দরকার। ৮-১০ গ্লাস জল খাওয়ার পাশাপাশি ফলের রস, ডাবের জল ও তরল খাবার বেশি করে খান। অ্যালকোহল, চা-কফি এড়িয়ে চলুন।

এই খবরটিও পড়ুন

শরীরচর্চা: অনেকেই মনে করেন, পিরিয়ড হলে যোগব্যায়াম করা যায় না। এই ধারণা সম্পূর্ণরূপে ভুল। বরং, এই সময় হালকা শরীরচর্চা করলে শরীরে রক্ত সঞ্চালন ভাল থাকে এবং পিরিয়ড ক্র্যাম্পের হাত থেকেও মুক্তি মেলে। শারীরিক দুর্বলতাও কাটানো যায় খুব সহজে।

ঘুম: মেন্সট্রুয়াল ফাটিগো এড়াতে রাতে ঘুম বিশেষ দরকার। পর্যাপ্ত পরিমাণ ঘুম, বিশেষত ভাল মানের ঘুম শারীরিক দুর্বলতা কাটাতে সাহায্য করে। সকালে ঘুম থেকে উঠেও যদি দেখেন, কাজ করার এনার্জি না পান, বুঝবেন দেহে বিশ্রামের অভাব রয়েছে। চেষ্টা করুন দুপুরের পর চা-কফি না খাওয়ার। পাশাপাশি ঘুমোতে যাওয়ার আগে স্ক্রিন টাইম কমান।

বিশ্রাম নিন: পিরিয়ডের সময় ঘন ঘন মুড সুইং হয়। মন খারাপ হয়ে থাকে। নানা ধরনের চিন্তা মাথায় ঘুরপাক খেতে থাকে। মনকে শান্ত করে এবং শারীরিক দুর্বলতা কাটাতে শ্বাস-প্রশ্বাসের ব্যায়ম করুন। মেডিটেশন করুন। ঈষদুষ্ণ জলে স্নান করুন। আর মন যাতে ভাল  থাকে সেরকম কাজ করুন।