5

Mo Salah: তালাবন্ধ করে রাখা হয়েছিল… সালাহকে নিয়ে হঠাৎই ফাঁস চাঞ্চল্যকর তথ্য

English Premier League: সালাহর সঙ্গে তিন বছরের জন্য ১০০ মিলিয়ন ডলারের চুক্তি রয়েছে লিভারপুলের। কিন্তু সৌদির চ্যাম্পিয়ন ক্লাব আল ইত্তিহাদ প্রথমে ১৫০ মিলিয়ন ডলার অফার করেছিল সালাহকে। তাতেও সাড়া না মেলায় ২০০ মিলিয়ন দর তুলেছিল তারা। ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো যে লিগে খেলছেন, সেখানে ইউরোপ থেকে একে একে নামী ফুটবলাররা যোগ দিচ্ছেন। এশিয়ান ফুটবলের নকশা পাল্টে যাবে, এমনই বলা হচ্ছে। সেই তালিকায় সালাহর মতো ফুটবলারও থাকতে পারতেন।

Mo Salah: তালাবন্ধ করে রাখা হয়েছিল... সালাহকে নিয়ে হঠাৎই ফাঁস চাঞ্চল্যকর তথ্য
Image Credit source: twitter
Follow Us:
| Edited By: | Updated on: Sep 19, 2023 | 3:57 PM

লন্ডন: বিশাল অর্থের টোপ। বারবার অনুরোধ-উপরোধ সত্ত্বেও মো সালাহ কেন পা বাড়ালেন না সৌদি লিগের দিকে? এত দিন প্রচার করা হচ্ছিল, আসলে সালাহ লিভারপুল ছেড়ে আসতে চান না। ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ কিংবা ইউরোপিয়ান ফুটবল মাধুর্য থেকে বঞ্চিত থাকতে চান না। এত দিনের প্রচার যে মিথ্যে ছিল, তা হঠাৎই এসে পড়েছে প্রকাশ্যে। মিশরের ফুটবলার কেন এত দিন মুখ খুলতে পারেননি, তাও জানা গিয়েছে। আর এই নতুন তথ্য রীতিমতো বিতর্ক বাঁধিয়ে দিয়েছে। ফুটবলার না চাইলেও কি ক্লাব ধরে রাখতে পারে? এই প্রশ্নের উত্তর খুঁজতে শুরু করে দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা। TV9Bangla Sportsএ বিস্তারিত।

সালাহর সঙ্গে তিন বছরের জন্য ১০০ মিলিয়ন ডলারের চুক্তি রয়েছে লিভারপুলের। কিন্তু সৌদির চ্যাম্পিয়ন ক্লাব আল ইত্তিহাদ প্রথমে ১৫০ মিলিয়ন ডলার অফার করেছিল সালাহকে। তাতেও সাড়া না মেলায় ২০০ মিলিয়ন দর তুলেছিল তারা। ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো যে লিগে খেলছেন, সেখানে ইউরোপ থেকে একে একে নামী ফুটবলাররা যোগ দিচ্ছেন। এশিয়ান ফুটবলের নকশা পাল্টে যাবে, এমনই বলা হচ্ছে। সেই তালিকায় সালাহর মতো ফুটবলারও থাকতে পারতেন। কিন্তু লিভারপুল তাঁকে ছাড়তে না চাওয়ায় শেষ পর্যন্ত দলবদলের বাজারে এই ডিল অসম্পূর্ণই থেকে গিয়েছিল। বলা হচ্ছিল, বছরের দ্বিতীয় ট্রান্সফার উইন্ডোতে নাকি সালাহ যোগ দিতে পারেন আল ইত্তিহাদে। তা নিয়েও অনিশ্চয়তা কম নেই। তারই মধ্যে এমন চাঞ্চল্যকর তথ্য উঠে এল।

ওয়েস্ট হ্যামের ফরোয়ার্ড মিখাইল অ্যান্টোনিও এক পডকাস্টে দাবি করেছেন, যুরগেন ক্লপের লিভারপুল কোনও ভাবেই ছাড়তে চায়নি সালাহকে। কার্যত তাঁকে তালাবন্ধ করে রেখেছিল ক্লাব। ৩১ বছরের ফুটবলার সম্পর্কে অ্যান্টোনিও বলেছেন, ‘সালাহ এই অফারটা ছাড়তে চায়নি। ওকে কার্যত তালাবন্ধ করে রাখা হয়েছিল। বলে দেওয়া হয়েছিল, তুমি কোথাও যাচ্ছ না। সালাহ একেবারেই চায়নি লিভারপুল যা চাইছে, সেটা করুক। ওর ইচ্ছে ছিল আল ইত্তিহাদে যোগ দেওয়া। তৈরিও হয়ে গিয়েছিল।’

অ্যানফিল্ডে ছ’বছর খেলছেন সালাহ। ১৮৮ গোল করে ফেলেছেন। ক্লাবের হয়ে যা যা ট্রফি জিততে পারতেন, জিতে ফেলেছেন। আর নতুন করে কী দেওয়ার আছে, এই প্রশ্নও উঠছে। অ্যান্টোনিওর কথায়, ‘ও আর লিভারপুলের হয়ে নতুন কী করতে পারে? সব করে ফেলেছে। সৌদি লিগ ওর কাছে নতুন একটা চ্যালেঞ্জ হতে পারে। তা ছাড়া ও মুসলিম। ওই দেশে প্রচুর জনপ্রিয়তা পাবে। সত্যি বলতে কী, সৌদিতে ওর জন্য সবই পজিটিভ। যে চুক্তি লিভারপুলের সঙ্গে ওর রয়েছে, তা কিন্তু পূরণ করে ফেলেছে।’