Arvind Kejriwal’s Campaign for Punjab Poll: ‘বড় ভক্ত, অটোওয়ালা’র বাড়িতে পাত পেরে খেলেন দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরীবাল

AAP: ২০২২-এ পঞ্জাবে বিধানসভা ভোট। তার আগে জোর প্রচারে নেমেছে আম আদমি পার্টি।

Arvind Kejriwal’s Campaign for Punjab Poll: 'বড় ভক্ত, অটোওয়ালা'র বাড়িতে পাত পেরে খেলেন দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরীবাল
অটো চালকের বাড়িতে নৈশ আহার সারলেন অরবিন্দ কেজরীবাল। ছবি টুইটার।

পঞ্জাব: ২০২২-এ পঞ্জাবে বিধানসভা ভোট। তার আগে নয়া তিন কৃষি আইন প্রত্যাহারের কথা ঘোষণা করে যেমন মোদী সরকার মাস্টার স্ট্রোক দিয়েছে। দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী আম আদমি পার্টির অরবিন্দ কেজরীবালও (Arvind Kejriwal) তেমনই ভোট প্রচারে গিয়ে একের পর এক চমক দিচ্ছেন।

সোমবার মোগায় দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল ঘোষণা করেন, ২০২২ -এ আম আদমি পার্টি পঞ্জাবের ক্ষমতায় এলে, ১৮ বছর বয়সের উপরে সমস্ত মহিলা প্রতি মাসে এক হাজার টাকা করে পাবেন। ‘বিশ্বের সবচেয়ে বড় প্রকল্প’ হবে এটি, দাবি কেজরীবালের। তাঁর বক্তব্য, এই প্রকল্প প্রতিটি মহিলাকে আর্থিকভাবে স্বাধীনতা দেবে।

একই সঙ্গে এদিন লুধিয়ানায় অটো ও ক্যাব চালকদের নিয়ে একটি প্রচার বৈঠক করেন আম আদমি পার্টির সুপ্রিমো। সেখানে কেজরীবাল বলেন, যে কোনও রকম প্রয়োজনে অটো ও ক্যাব চালকরা তাঁর সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারেন।

এদিন যে সভাঘরে দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অটো চালকদের নিয়ে বৈঠক করেন, গোটা ঘর সাজানো হয়েছিল রঙিন বেলুনে। বৈঠকে ছিল প্রশ্নোত্তর পর্ব। সেখানে দিল্লির মুখ্যমন্ত্রীকে প্রশ্ন করার সুযোগ পান উপস্থিত অটো চালকরা।

এরই মধ্যে একজন মাইক্রোফোন হাতে নিয়ে বলেন, “আমি আপনার বড় ভক্ত। আমি একজন অটোওয়ালা। স্যর আপনি অটোচালকদের অনেক সাহায্য করেছেন। আপনি এই গরীব অটোওয়ালাদের বাড়িতে একবেলা খাবার খেতে আসবেন? আমি আপনাকে মন থেকে আমন্ত্রণ জানাচ্ছি।” ‘অটোওয়ালা’র এই আমন্ত্রণের কথা শুনে করতালিতে ফেটে পড়ে সভাঘর।

পাল্টা অরবিন্দ কেজরীবালও উত্তর দেন, “একদম। আজ রাতেই?” দিল্লির মুখ্যমন্ত্রীর এই জবাব যেন তিনগুন বাড়িয়ে দেয় সেখানে উপস্থিত অটো, ক্যাব চালকদের উৎসাহ। এরপরই কেজরীবাল জানতে চান, ভগবন্ত সিং মন, হরপাল সিংও তাঁর সঙ্গে যেতে পারেন কি না। দিল্লির মুখ্যমন্ত্রীর এমন কথায় হতবাক হয়ে যান অটোচালক নিজেও। রাতেই ওই অটোচালকের বাড়িতে খেতে যান আপ সুপ্রিমো।

রাতে টুইটারে অরবিন্দ কেজরীবাল লেখেন, ‘দিলীপ তিওয়ারি আজ মন থেকে আমাকে বাড়িতে নিমন্ত্রণ করেছিল। ওনার পরিবার আমাকে অত্যন্ত যত্ন করেছেন। আর খাবারগুলোও খুবই সুস্বাদু ছিল। আমিও ওনার পুরো পরিবারকে দিল্লিতে আমার বাড়িতে আসার জন্য আমন্ত্রণ জানিয়েছি।’

এদিন অটো চালকদের সভায় অরবিন্দ কেজরীবাল বলেন, “আমি আপনাদের ভাইয়ের মতো। যে কোনও প্রয়োজনে আমার কাছে আসতে পারেন। এমনকী আপনার অটো খারাপ হয়ে গেলেও।” এই সভাতেই পঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী চরণজিৎ সিং চন্নিকে বিঁধে কেজরীবাল বলেন, “আমি পঞ্জাবে মহল্লা ক্লিনিকের কথা ঘোষণা করেছি। ভুয়ো কেজরীবাল একই কথা বলেছেন, কিন্তু একটিও করেননি। আমি অটো ইউনিয়নের সঙ্গে দেখা করব, এটা ১০ দিন আগে থেকে পরিকল্পনা করা হয়েছিল। তিনিও সোমবারই চলে গেলেন। ভয় পাওয়া ভাল।”

আরও পড়ুন:  TMC Supreme Court: ত্রিপুরা নিয়ে সুপ্রিম কোর্টে আজই তৃণমূলের মামলার শুনানি

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla