অনুব্রত-গড়ে ভাঙন তৃণমূলে, দল ছাড়লেন জেলা সহ-সভাপতি আলি মোর্তাজা খান

 আলি মোর্তাজার মতো দক্ষ সংগঠক ও জেলার ‘হেভিওয়েট’ নেতার দলত্যাগের ফলে তৃণমূলের ভোটব্যাঙ্কে বড় আঘাত আসতে পারে বলেই মনে করছেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা। এমনকী, মোর্তাজার অনুগামীরাও যে এবার ঘাসফুল শিবির থেকে বিমুখ হতে পারেন এমন আশঙ্কার কথাও উড়িয়ে দিচ্ছেন না খোদ তৃণমূল কর্মীদের একাংশ।

  • TV9 Bangla
  • Published On - 21:58 PM, 4 Apr 2021
অনুব্রত-গড়ে ভাঙন তৃণমূলে, দল ছাড়লেন জেলা সহ-সভাপতি আলি মোর্তাজা খান
ছবি: প্রতীকী

বীরভূম: একুশের বঙ্গযুদ্ধে সম্পূর্ণ হয়েছে দু’দফার নির্বাচন। কিন্তু বাধ সেধেছে কোভিড। করোনায় আক্রান্ত হয়ে তৃণমূলের (TMC) প্রার্থীপদ থেকে বাধ্য হয়ে সরে দাঁড়িয়েছেন মুরারইয়ের আবদুর রহমান। তাঁর জায়গায় কে প্রার্থী হবেন তা নিয়ে জল্পনা চলছিল। অনুমান করা হচ্ছিল, প্রার্থী হবেন বীরভূমের (Birbhum) জেলা সহ-সভাপতি আলি মোর্তাজা খান। কিন্তু শনিবার মোর্তাজার বদলে প্রার্থী মোশারফ হোসেনকে প্রার্থী হিসেবে ঘোষণা করে হাইকমান্ড। আর এতেই চটেছেন মোর্তাজা। রবিবার দল ছাড়লেন তিনি।

শনিবার বিকেলে নতুন প্রার্থীর নাম ঘোষণার পরই নিজের অনুগামীদের সঙ্গে আলোচনায় বসেন মোর্তাজা। রবিবারই তিনি চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিয়ে জানিয়ে দেন, ঘাসফুলের (TMC) প্রতীক ছেড়ে এ বার নির্দল প্রার্থী হয়ে লড়বেন।

প্রসঙ্গত, ২০১৬ সালের বিধানসভা নির্বাচনে কংগ্রেসের টিকিটে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে ২৮০ ভোটে তৃণমূলের আবদুর রহমানের কাছে পরাজিত হয়েছিলেন আলি মোর্তাজা খান। ভোটের পরেই তিনি যোগদান করেন ঘাসফুল শিবিরে (TMC)। এবারও তৃণমূলের টিকিটের দাবি করে জেলা নেতৃত্বের কাছে আবেদন করেছিলেন মোর্তাজা। কিন্তু, দল ফের আবদুর রহমানকেই প্রার্থী হিসাবে ঘোষণা করে দল।

রবিবার আলি মোর্তাজা খান বলেন, “ভেবেছিলাম নতুন প্রার্থী তালিকায় আমার নাম থাকবে। পরে দেখা গেল ড. মোশারফ হোসেনকে প্রার্থী করা হয়েছে। এতেই আমাদের কর্মী সমর্থকরা ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠেন। সকলের মতামত নিয়ে নির্দল হিসাবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। আগামী ৭ এপ্রিল মনোনয়ন জমা দেব।”

আলি মোর্তাজার মতো দক্ষ সংগঠক ও জেলার ‘হেভিওয়েট’ নেতার দলত্যাগের ফলে তৃণমূলের ভোটব্যাঙ্কে বড় আঘাত আসতে পারে বলেই মনে করছেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের একাংশ। এমনকী, মোর্তাজার অনুগামীরাও যে এবার ঘাসফুল (TMC) শিবির থেকে বিমুখ হতে পারেন এমন আশঙ্কার কথাও উড়িয়ে দিচ্ছেন না খোদ তৃণমূল কর্মীদের একাংশ। যা নিয়ে ইতিমধ্যেই দলের অন্দরে গুঞ্জন শুরু হয়েছে।

এ প্রসঙ্গে তৃণমূলের (TMC) জেলা সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল কোনও পদক্ষেপ করেন কি না তা নিয়েও জল্পনা চলছে। যদিও, অনু্ব্রতর সঙ্গে যোগাযোগ করেও তাঁকে পাওয়া যায়নি। তৃণমূলের দলীয় সূত্রে খবর, অনুব্রতর কথায় চিঁড়ে ভিজলেও ভিজতে পারে। দলে ফিরে আসতে পারেন মোর্তাজা। তবে তা কতটা সম্ভাব তা নিয়ে সংশয় রয়েছে। এই ঘটনায় বিজেপির তরফে কোনও প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি।

আরও পড়ুন: ছোট এলাকাতেই পাখির চোখ, জয় পেতে মরিয়া সায়নী