‘ক্ষমতায় এলে অ্যান্টি রোমিও স্কোয়াড’, রোমিও রুখতে বঙ্গ রাজনীতিতে সাড়া ফেলল যোগীর দাওয়াই

উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ (Yogi Adityanath) ঘোষণা করে গেলেন, "ক্ষমতায় এলে অ্যান্টি রোমিও স্কোয়াড তৈরি করবে বিজেপি (Bengal BJP)।"

  • TV9 Bangla
  • Published On - 15:25 PM, 8 Apr 2021
'ক্ষমতায় এলে অ্যান্টি রোমিও স্কোয়াড', রোমিও রুখতে বঙ্গ রাজনীতিতে সাড়া ফেলল যোগীর দাওয়াই
বঙ্গে ভোট প্রচারে যোগী। ছবি- পিটিআই

হুগলি: রোমিও ঠেকাতে যোগীর হুঁশিয়ারি। হুগলির চাঁপদানিতে নির্বাচনী প্রচারে (West Bengal Assembly Election 2021) এসে উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ (Yogi Adityanath) ঘোষণা করে গেলেন, “ক্ষমতায় এলে অ্যান্টি রোমিও স্কোয়াড তৈরি করবে বিজেপি (Bengal BJP)।”  ভোট আবহে দাঁড়িয়ে এহেন মন্তব্যে তোলপাড় বাংলার রাজনৈতিক মহল থেকে শুরু করে বুদ্ধিজীবী মহল।

যোগী ঠিক কী বলেছেন?

চাঁপদানির সভায় যোগী বলেন, “বাংলা থেকে ভ্রষ্টাচার শেষ হবে। আইন জারি হবে।বিজেপি ক্ষমতায় এলে কেজি থেকে পিজি পর্যন্ত শিক্ষা বিনামূল্যে হবে। পাবলিক ট্রান্সপোর্টেও বিনামূল্যে যাতায়াত করতে পারবেন।” এরপরই যোগীর ঘোষণা, “মেয়েদের স্কুলের আশেপাশে ঘুরে বেড়ানো রোমিওদের জন্য অ্যান্টি রোমিও স্কোয়াড তৈরি করে দেওয়া হবে।”

এটা অবশ্য প্রথমবার নয়। মালদার সভায় দাঁড়িয়ে এর আগেও যোগী ঘোষণা করে গিয়েছিলেন, “ক্ষমতায় এলে বাংলায় লভ জিহাদ আইন তৈরি করা হবে।” যোগী আবারও দিয়ে গেলেন রোমিও-দাওয়াই।

যোগীর এই মন্তব্য ঘিরে রাজনৈতিক মহলে জল্পনা শুরু হয়েছে। রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা বলছেন, যোগীর এই মন্তব্য বিজেপির পক্ষে কিছুটা ব্যুমেরাং হতে পারে। এ প্রসঙ্গে সিপিএম নেতা শতরূপ ঘোষ বলেন, “বিজেপি বাংলাতে এমনিতেই কম ভোট পেত। তবে যাওবা পেত, এবার আর সেটাও পাবে না। পশ্চিমবঙ্গ লিবারাল স্টেট। এখানে মানুষ ইচ্ছা মতো বিয়ে করে, প্রেম করে। এখানে এসব কথা ধার ধারে না।”

আরও পড়ুন: কলকাতা-সহ চার জেলায় দ্বিগুণ পজিটিভ কেস, বাড়ছে মৃত্যুও! প্রচারে ব্যস্ত মমতা ফের এড়ালেন প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কোভিড-বৈঠক

তবে বিজেপি নেতা অভিনেতা সুমন বন্দ্যোপাধ্যায়ের বক্তব্য, “অ্যান্টি রোমিও স্কোয়াড মানে তো এই না যে কোনও প্রেমিক প্রেমিকা রাস্তা দিয়ে হেঁটে যেতে পারবে না। কিন্তু রাস্তাঘাটে যেভাবে মেয়েদের উত্ত্যক্ত করা হয়, শ্লীলতাহানি হয়, তা রুখতেই এই পদক্ষেপ। বাংলার মহিলাদের ওপর অত্যাচার চলছে গত দু’দিনে গণধর্ষণ হয়েছে দুটি। এই ধরনের স্কোয়াড প্রয়োজন। অনেক আগে আসা প্রয়োজন ছিল। দুর্ভাগ্যজনক ব্যাপার এটাই যে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এটা নিয়ে কিছু ভাবেননি।”

আর তৃণমূল নেতা দেবাংশু ভট্টাচার্যের বক্তব্য, “ওর তো প্রেম সহ্য হয় না। বাংলায় ভ্যালেন্টাইন ডে মানেই সরস্বতী পুজো। বাঙালি প্রেমিকা নিয়ে রাস্তায় চলছে আর উত্তরপ্রদেশের মতো অ্যান্টি রোমিও স্কোয়াড এসে হাত পা ভেঙে দিয়ে চলে গেল! আমি একটাই কথা বলব, আমার মাটি সইবে না এসব।”

বিরোধীরাই প্রশ্ন তুলছেন, যে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী একথা বাংলার মাটিতে এসে বলে গেলেন, তাঁর রাজ্যে নারী নিরাপত্তার চিত্রটা ঠিক কীরকম?

এক নজরে দেখে নেওয়া যাক রাজ্যভিত্তিক অপরাধের তালিকা

রাজ্যভিত্তিক অপরাধের তালিকা