ইয়াসের গতিবিধি বুঝতে হাওয়া অফিসে রাজ্যপাল, কল্যাণের কটাক্ষ ‘আবহাওয়াই তো বোঝার চেষ্টা করবেন এখন’

ইয়াস (Cyclone Yaas) মোকাবিলায় রাজ্য সরকারের সক্রিয়তার প্রশংসাও করেন।

ইয়াসের গতিবিধি বুঝতে হাওয়া অফিসে রাজ্যপাল, কল্যাণের কটাক্ষ 'আবহাওয়াই তো বোঝার চেষ্টা করবেন এখন'
ফাইল চিত্র।

কলকাতা: ঘূর্ণিঝড় ইয়াসের (Cyclone Yaas) আছড়ে পড়া এখন শুধু সময়ের অপেক্ষা। বাংলা কতটা প্রস্তুত সেই পরিস্থিতি সামাল দিতে, আবহাওয়া দফতরের আপডেটই বা কী তা জানতে আলিপুর আবহাওয়া দফতরে হাজির হলেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। মঙ্গলবার বিকেল ৪টে নাগাদ হাওয়া অফিসে যান তিনি। সেখানে গিয়ে ইয়াস মোকাবিলায় রাজ্য সরকারের সক্রিয়তার প্রশংসাও করেন। বলেন, আমফানের পুনরাবৃত্তি চাই না। কেন্দ্র-রাজ্য এক যোগে কাজ করছে ইয়াস মোকাবিলায়। যদিও রাজ্যপালের এই সফর নিয়ে আবারও কটাক্ষ শোনা গিয়েছে তৃণমূল সাংসদ কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়ের গলায়। তিনি বলেন, “আবহাওয়াই তো বোঝার চেষ্টা করবেন এখন। উনি কোনওটাই তো বুঝতে পারেন না। আবহাওয়াও বোঝেন না, আইনও বোঝেন না, রাজনীতিও বোঝেন না।”

আরও পড়ুন: ল্যান্ডফলের আগেই ইয়াসের দাপট দেখানো শুরু, বাঁধ টপকে জল ঢুকছে তাজপুর, দিঘার গ্রামে

রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়ের কথায়, আমফানের সময় যে সঙ্কট এসেছিল তার পুনরাবৃত্তি যেন না হয় তা দেখাই এবার মূল কর্তব্য। ভারতীয় বায়ুসেনা এবার অনেক বেশি ব্যবস্থা করে রেখেছে। ভারতীয় নৌসেনাও বিশাখাপত্তনম থেকে বিশেষ দল নিয়ে এসেছে। এনডিআরএফও প্রস্তুত। রাজ্য সরকারও পুরোপুরি সক্রিয়।

ধনখড় বলেন, “সবসময় এ ভাবেই সকলের সঙ্গে যোগাযোগ রেখে কাজ করা দরকার। আমাদের লক্ষ্য একটাই, সাধারণ মানুষের যেন কোনও সমস্যা না হয়। সে কারণেই আমি মুখ্যসচিবের সঙ্গে কথা বলেছি। আমি মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গেও কথা বলেছি। প্রথম নাগরিক হিসাবে আমি ভারতীয় মৌসম ভবনের সঙ্গেও আলোচনা করেছি। টেকনিক্যালি বিষয়টা বলেছেন। এখন পূর্বাভাস অনেক বেশি বিজ্ঞানসম্মত। তাই আগেভাবে বিপর্যয় মোকাবিলা করাও সুবিধাজনক।” রাজ্য সরকার ইতিমধ্যেই হাজার হাজার মানুষকে বিপদমুক্ত জায়গায় উদ্ধার করে নিয়ে এসেছে বলে প্রশংসা করেন রাজ্যপাল।

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla