আপনার সঙ্গে কি এমনটা ঘটছে! কীভাবে বুঝবেন বাড়িতে কেউ কালাজাদু করেছে?

Signs of Black Magic: যা ঘটছে, বা যা ঘটতে চলেছে, সবটাই অন্য কারও ইশারায়! ভেবে দেখেছেন সময় থাকতে তা বুঝতে না পারলে কতটা বিপদ বাড়তে পারে! ঠিক ধরেছেন, কালাজাদুর কথাই বলা হচ্ছে। 

আপনার সঙ্গে কি এমনটা ঘটছে! কীভাবে বুঝবেন বাড়িতে কেউ কালাজাদু করেছে?
Follow Us:
| Updated on: May 22, 2024 | 4:51 PM

সব ঠিকই ছিল। কিছুদিন আগেই পরিবারের সকলের মুখে হাসি লেগে থাকত। হঠাৎ করে যেন সব সুখ হারিয়ে যেতে শুরু করে। একদিন-দুদিন করে দেখতে দেখতে অনেকটা সময় কেটে যায়, তবুও পরিস্থিতি পাল্টায় না। বাড়ির পরিবেশটাই কেমন যেন পাল্টে যেতে থাকে। বিষণ্ণতা ঘিরে ধরে। এই সমস্যাটা কি স্বাভাবিক? সবটাকেই কি ভাগ্য বলে ছেড়ে দেওয়া যায়! কিংবা নিজের ভুল বলে মেনে নিয়ে সবটা শেষ হতে দেখা যায়! আচ্ছা যদি উল্টোটা হয়? ধরুন আপনার কোনও দোষই নেই। যা ঘটছে, বা যা ঘটতে চলেছে, সবটাই অন্য কারও ইশারায়! ভেবে দেখেছেন সময় থাকতে তা বুঝতে না পারলে কতটা বিপদ বাড়তে পারে! ঠিক ধরেছেন, কালাজাদুর কথাই বলা হচ্ছে।

তবে সত্যি সত্যি আপনার পরিবার তার শিকার কি না, তা বুঝে নেওয়ার বেশ কয়েকটি লক্ষণ রয়েছে। সেগুলো কী কী? 

সুগন্ধ গন্ধ পাওয়া যাবে না: আপনি ধুপ জ্বালান কিংবা ভাল পারফিউম ব্যবহার করুন, দেখবেন কোনও গন্ধই একটা নিদিষ্ট সময়ের পর স্থায়ী হচ্ছে না। বেশ কিছুটা সময় পর তার গন্ধ কোথায় যেন মিলিয়ে যাচ্ছে। সুগন্ধ জায়গা করতে পারে না এই ধরনের কোনও সমস্যা পরিবারে থেকে থাকলে।

সব সময় আঁশটে গন্ধ ছাড়বে ঘরে: সুগন্ধ যে পাওয়া যায় না, এমনটা নয়। পাশাপাশি কেমন যেন একটা আঁশটে গন্ধ নাকে আসতে থাকে। খুব ভাল করে লক্ষ্য করে দেখবেন, একটা অন্যরকমের গন্ধ, যা শত চেষ্টাতেও বাড়ি থেকে বেরচ্ছে না।

নিত্য অশান্তি লেগেই থাকবে: পরিবারে মান অভিমান কার না থাকে। তবে এই অশান্তি যেন মানসিক শান্তির অভাবে জোর করে করা বিবাদ। কেন অশান্তি হচ্ছে, কেন সবাই বিরক্ত, তার কোনও সঠিক কারণই খুঁজে পাওয়া যায় না। সামান্য কথা থেকেই দেখবেন কত বড় সমস্যা সৃষ্টি হয়ে গিয়েছে।

ঘরে যে কোনও নল-কলে সমস্যা হতে পারে: জলের ক্ষেত্রে একটা সমস্যা দেখা যায়। দেখবেন, জল পড়ছে না কলে। কিংবা ঘনঘন কল খারাপ হয়ে যাচ্ছে, এমন নানাবিধ সমস্যা দেখা যায়।

নেগেটিভ ভাবনা-চিন্তা: আর যতই মানসিক শান্তি খোঁজার চেষ্টা করুন না কেন, দেখবেন কারণে, অকারণে মন খারাপ হয়ে যাচ্ছে। কষ্ট পাচ্ছেন কোনও কারণ ছাড়াই। বুঝতে পারবেন না কেন কাঁদছেন, তবুও যেন এক চাপা কষ্ট।

এই লক্ষ্যণগুলো যদি চোখে পড়ে তবে অবশ্যই ভাবনার দরকার আছে বৈকি। এক্ষেত্রে সময় থাকতে সচেতন হওয়ার প্রয়োজন রয়েছে।

Disclaimer: এখানে উপলব্ধ তথ্য শুধুমাত্র বিশ্বাস এবং তথ্যের উপর ভিত্তি করে। এখানে উল্লেখ করা গুরুত্বপূর্ণ যে টিভিনাইন বাংলা কোনও বিশ্বাস বা তথ্য নিশ্চিত করে না। কোনও তথ্য বা বিশ্বাস অনুশীলন করার আগে একজন বিশেষজ্ঞের সঙ্গে পরামর্শ করুন।