নীতা আম্বানিকে পত্রবোমা বেঙ্গালুরু এফসির মালিকের

পার্থ জিন্দালের দাবি, প্রতি বছর ক্লাবকে প্রায় ২৫ কোটি টাকার ক্ষতির ধাক্কা সামলাতে হচ্ছে।

নীতা আম্বানিকে পত্রবোমা বেঙ্গালুরু এফসির মালিকের
পার্থ জিন্দালের পত্রবোমা। ছবি-টুইটার।
sushovan mukherjee

|

Jan 28, 2021 | 2:42 PM

বেঙ্গালুরু:  ফুটবলে নতুন মাত্রা যোগ করল বেঙ্গালুরু এফসির কর্ণধার পার্থ জিন্দালের চিঠি। আইএসএলের চেয়ারপার্সন নীতা আম্বানিকে পাঠানো চিঠিতে ক্লাবের আর্থিক ক্ষতির কথা তুলে ধরলেন জিন্দাল গোষ্ঠীর অন্যতম কর্তা। পার্থের দাবি, প্রতি বছর ক্লাবকে প্রায় ২৫ কোটি টাকার ক্ষতির ধাক্কা সামলাতে হচ্ছে।

ভারতীয় ফুটবলে অন্যতম সফল ক্লাব বেঙ্গালুরু এফসি। নীতা আম্বানিকে পাঠানো চিঠিতে পার্থ জিন্দাল লিখেছেন, কোভিড পরিস্থিতিতে এবার গোয়ায় বায়ো বাবলে খেলা হচ্ছে। ফলে টিকিট বিক্রির কোনও জায়গা নেই। স্পনসরশিপও হারাতে হয়েছে। আবার জৈব সুরক্ষা বলয়ে থাকার জন্য খরচও বেড়েছে। সব মিলিয়ে ক্ষতির পরিমাণ ২৫ কোটিরও বেশি। এই পরিস্থিতিতে ভবিষ্যতে কীভাবে এগোনো উচিত, সে ব্যাপারে নীতা আম্বানির পরামর্শ চেয়েছেন বেঙ্গালুরুর কর্ণধার।

আরও পড়ুন:বাড়ি খুঁজছেন পন্থ

সূত্রের খবর, প্রতি বছর আইএসএল দলগুলোর খরচ হয় প্রায় ৫০ কোটি টাকা। সেখানে ক্লাবগুলো সব মিলিয়ে পায় ২০ থেকে ২৫ কোটি টাকা। ফলে সব কটা দলকেই ক্ষতির সম্মুখীন হতে হয়। কোভিড পরিস্থিতিতে সেই পরিমাণ এবার বেড়েছে। ইতিমধ্যেই আর্থিক কারণে ঝাঁপ বন্ধ করেছে এফসি পুণে সিটি। দিল্লি ডায়নোমোস স্থান পরিবর্তন করে চলে গেছে ওড়িশায়। এবার আইএসএলের আর্থিক মডেল নিয়ে বড়সড় প্রশ্ন তুলে দিলেন বেঙ্গালুরু এফ সি-র কর্ণধারও।

আরও পড়ুন:স্মিথের পর এ বার ‘মিশন রুট’ ভারতের

আইএসএলের শুরু থেকেই বিনিয়োগ ও মুনাফা প্রশ্ন বারবার উঠেছে। সময় অনেকখানি পেরলেও পরিস্থিতি বদলায়নি। আইএসএল এখনও লাভজনক লিগ হয়ে উঠতে পারেনি। যে কারণে বারবার মালিকানা বদলেছে কেরালা ব্লাস্টার্সে। অন্যান্য ক্লাবগুলোও নতুন নতুন স্পনসরের দ্বারস্থ হতে হয়েছে। পার্থ জিন্দালদের চিঠি আইএসএলের আয়োজকরা কী ভাবে সামলায়, তা দেখার জন্য অপেক্ষা করছে ফুটবলমহল।

Follow us on

Related Stories

Most Read Stories

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla