শুভেন্দুর দেওয়া ত্রাণের ত্রিপল লুঠের অভিযোগ, খেজুরিতে উত্তেজনা

রাতের অন্ধকারে পার্টি অফিসের দরজা ভেঙে ত্রিপল, শুকনো খাবার লুঠ করা হয়েছে। দেড় হাজার ত্রিপলের মধ্যে মাত্র একশোটি এখন পড়ে রয়েছে দাবি বিজেপি নেতৃত্বের।

শুভেন্দুর দেওয়া ত্রাণের ত্রিপল লুঠের অভিযোগ, খেজুরিতে উত্তেজনা
নিজস্ব চিত্র

পূর্ব মেদিনীপুর: শুভেন্দু অধিকারীর (Suvendu Adhikari) দেওয়া ত্রাণ সামগ্রী বিতরণের আগেই পার্টি অফিস ভাঙচুর করে লুঠ করে নেওয়ার অভিযোগ উঠল তৃণমূল (TMC) আশ্রিত দুষ্কৃতীদের বিরুদ্ধে। অন্যদিকে রাজ্য সরকারের ‘দুয়ারে ত্রাণ’ প্রকল্পের সুবিধা না নিতে এলাকার মানুষকে প্রভাবিত করার অভিযোগ উঠেছে বিজেপির (BJP) বিরুদ্ধে। সোমবার ত্রাণ বিলি নিয়ে রাজনৈতিক চাপানউতোর চরমে উঠল ঘূর্ণিঝড় ইয়াস বিধ্বস্ত খেজুরি (Khejuri)-তে।

খেজুরির আলিপুর বাজারে বিজেপির মণ্ডল পার্টি অফিস। এখানে ইয়াস দুর্গতদের সাহায্যের জন্য বিধানসভার বিরোধী নেতা তথা নন্দীগ্রামের বিজেপি বিধায়ক শুভেন্দু অধিকারীর পাঠানো ত্রাণসামগ্রী জড়ো করা হয়েছিল বলে দাবি। বিজেপির অভিযোগ, রবিবার রাতে সেই পার্টি অফিস ভেঙেই চুরি হয়ে যায় অধিকাংশ ত্রাণ সামগ্রী। রাতের অন্ধকারে পার্টি অফিসের দরজা ভেঙে ত্রিপল, শুকনো খাবার লুঠ করা হয়েছে। দেড় হাজার ত্রিপলের মধ্যে মাত্র একশোটি এখন পড়ে রয়েছে দাবি বিজেপি নেতৃত্বের। এই অভিযোগের ভিত্তিতে সোমবার পুলিশ এই ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে। এর মধ্যে তৃণমূলের বিরুদ্ধে রাজনৈতিক হিংসার অভিযোগ করেছে স্থানীয় বিজেপি নেতৃত্ব।

যদিও সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করে স্থানীয় তৃণমূল নেতৃত্বের বক্তব্য, রাজ্য সরকার ‘দুয়ারে ত্রাণ’ প্রকল্প ঘোষণা করার পর থেকেই খেজুরি বিধানসভার একাধিক এলাকার সাধারন মানুষকে সেই ত্রাণ না নিয়ে বিজেপির পার্টি অফিস থেকে ত্রাণ নেওয়ার জন্য প্রভাবিত করছেন স্থানীয় বিজেপি নেতৃত্ব। ত্রাণ নিয়ে দু’পক্ষের এই দলাদলিতেই খেজুরি বিধানসভা জুড়ে মাথাচাড়া দিয়েছে নয়া রাজনৈতিক বিতর্ক। প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে দুর্দশাগ্রস্ত মানুষদের পাশে থাকার পিছনেও কি রাজনৈতিক স্বার্থ থাকা দরকার? শুধু ত্রাণ সামগ্রী চুরিই নয়, তৃণমূল-বিজেপি দু’পক্ষই একে অপরের দিকে আঙুল তুলেছে রাজনৈতিক প্রতিহিংসার জন্য।

উল্লেখ্য, একুশের বিধানসভা ভোটের পরবর্তীতে রাজনতৈতিক হিংসা আস্তে আস্তে অধিকাংশ এলাকায় কমলেও নন্দীগ্রামের পাশের বিধানসভা খেজুরিতে তা এখনও অব্যাহত।

আরও পড়ুন: ত্রিপল লুঠের অভিযোগে শুভেন্দু ও সৌমেন্দুর নামে এফআইআর! 

ত্রাণ নিয়ে বিজেপির অভিযোগের প্রেক্ষিতে তৃণমূলের জেলা সভাপতি তথা সেচমন্ত্রী সৌমেন মহাপাত্রের বক্তব্য, তৃণমূল এ ধরনের নোংরা রাজনীতি করে না। রাজনৈতিক প্রতিহিংসার কথাও ভাবে না। তবে খেজুরি এলাকায় যারা এই ধরনের মন্তব্য করছেন তাঁদের বিরত থাকার কড়া নির্দেশ দিয়েছেন সৌমেনবাবু। অন্যদিকে শুভেন্দু অধিকারীর দেওয়া ত্রাণ তৃণমূল লুঠ করেছে বলে ধিক্কার মিছিল বের করার হুঁশিয়ারি দিয়েছে বিজেপি।

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla