কেউ অসুস্থ হলেই শুধু একটা ফোন! টোটো নিয়ে হাজির হয়ে যাচ্ছেন সোনারপুরের দেবা

নিজেই ছড়িয়ে দিয়েছেন তাঁর মোবাইল নম্বর। দিনভর খোলা থাকছে মোবাইল ফোন। ফোন এলেই টোটো নিয়ে বেরিয়ে পড়েছেন সোনারপুরের (Sonarpur) দেবা।

কেউ অসুস্থ হলেই শুধু একটা ফোন! টোটো নিয়ে হাজির হয়ে যাচ্ছেন সোনারপুরের দেবা
নিজস্ব চিত্র।

দক্ষিণ ২৪ পরগনা: যখন সবাই সংক্রমিতদের এড়িয়ে চলছেন, তখন কোভিড আক্রান্তদের নিয়ে হাসপাতালে পৌঁছে দেওয়ার ভার নিজের কাঁধে তুলে নিয়েছেন সোনারপুরের দেবা। পোশাকি নাম দেবাশিস সরকার। সোনারপুরের ঘাসিয়ারার বাসিন্দা দেবা পেশায় টোটো চালক। আপাতত তাঁর টোটো মানুষের সেবায় নিয়োজিত।

আরও পড়ুন: অন্ধকারে নয়ানজুলিতে ছিটকে পড়ল পুলিশের গাড়ি, রক্তে ভাসছেন এএসআই

পুরো টোটোজুড়েই রয়েছে কোভিড সংক্রান্ত সচেতনতার নানান প্রচার। দেবার এখন একটাই কাজ, কোভিড আক্রান্তদের চিকিৎসার ব্যবস্থা করা। ২৪ ঘণ্টাই সোনারপুরে এই পরিষেবা দিয়ে যাচ্ছেন তিনি। দেবা জানালেন, “এই করোনা পরিস্থিতিটা তো খুব ভয়াবহ। কেউ যদি অসুস্থ হয়ে পড়েন অ্যাম্বুলেন্স পাচ্ছেন না। এদিকে চার পাঁচ ঘণ্টা বাড়িতে পড়ে থাকলেও তিনিও তো আরও অসুস্থ হয়ে পড়বেন। তাই ভাবলাম আমিই এগিয়ে আসি। বলে দিয়েছি সবাইকে, আমাকে ফোন করবেন, আমি চলে যাব। অন্তত হাসপাতালে পৌঁছে তো দিতে পারব।”

মানুষ মানুষের জন্যে, এই বিশ্বাস থেকেই দিনভর পথে পথে ঘুরছে দেবার টোটো। নিজেই ছড়িয়ে দিয়েছেন তাঁর মোবাইল নম্বর। দিনভর খোলা থাকছে মোবাইল। ফোন এলেই টোটো নিয়ে বেরিয়ে পড়েছেন দেবা। টোটোতে রেখেছেন অক্সিমিটার, প্রেশার মাপার যন্ত্র, থার্মোমিটার। রয়েছে স্যানিটাইজেশনের ব্যবস্থাও। ফোন এলে কোভিড রোগীর কাছে পৌঁছে যাচ্ছেন তিনি। রোগী নিয়ে পৌঁছে দিচ্ছেন হাসপাতাল কিংবা নার্সিংহোমে। যার যা সামর্থ্য, তাই পারিশ্রমিক দিচ্ছেন। এমনও হয়েছে, কেউ হয়ত কোনও টাকাই দিতে পারেননি। তবে পয়সার জন্য ‘দেবা’রা কাউকে ফেরান না! সোনারপুরে এখন এই দেবাই দেবতা।

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla