সুন্দরী-গরাণের জঙ্গল ঠেলে খাঁড়িতে রোদ পোহাতে এল দক্ষিণ রায়

এর আগে গত ডিসেম্বরে কুয়াশায় ঘেরা সুন্দরবনে সুধন্যখালির জঙ্গলে দেখা মিলেছিল এরকম এক রয়্যাল বেঙ্গল টাইগারের। 

সুন্দরী-গরাণের জঙ্গল ঠেলে খাঁড়িতে রোদ পোহাতে এল দক্ষিণ রায়
প্রমোদ ভ্রমণে বাঘমামা।

দক্ষিণ ২৪ পরগনা: আবারও ক্যামেরাবন্দি হল সুন্দরবনের দক্ষিণ রায়। দোঁ বাকি জঙ্গল সংলগ্ন খাঁড়িপথের ঢালে দেখা মিলল তার। কলকাতা থেকে ১৮ জনের এক পর্যটক দল সোমবার গোসাবার গদখালি থেকে বোটে ওঠে সুন্দরবন ভ্রমণের জন্য। বোট কিছুটা এগোনোর পরই নজরে আসে জঙ্গল লাগোয়া কাদামাখা পাড়ে কে যেন এগিয়ে আসছে। হলুদ গায়ে ডোরা কাটা দাগ। খুশিতে ডগমগ পর্যটকরা।

একটা সময় শীতেই বেশি ভিড় হতো সুন্দরবনে। গরমের লবন হাওয়ায় পর্যটকদের বেড়ানোটা একটু কষ্টের। কিন্তু গত কয়েক বছরে সে ধারায় বদল এসেছে। এখন তো বারো মাসই কলকাতা থেকে পর্যটকরা যান। শুধু কলকাতা কেন, বাইরে থেকেও অনেকেই ঘুরতে যান সুন্দরবনে।

তবে ২০২০ সালে তা খানিকটা ব্যহত হয়। অতিমারি, লকডাউনে কয়েক মাস সুন্দরবন একেবারেই পর্যটক শূন্য ছিল। নভেম্বরের শেষ থেকে ফের পর্যটকরা যাচ্ছেন হেতাল, সুন্দরী, গেও, গরাণের পাড়ে। শীতের সুন্দরবনে শুধু প্রকৃতিই নিজেকে উজাড় করে দেয় না, মাঝে মধ্যে এভাবে চমকে দেয় সুন্দরবনের রাজাও। এদিনও তেমনটাই হয়। গুটি গুটি পায়ে খাঁড়ির কাদায় এসে খানিক রোদ পোহাল বাঘ বাবাজী। কিছুক্ষণ এদিক ওদিক ঘুরে ফের জঙ্গলে প্রবেশ। এমন দৃশ্যে বারবার শিউরে উঠছিলেন পর্যটকরা। মুহূর্তটি ক্যামেরাবন্দি করার সুযোগ ছাড়েননি কেউই। এর আগে গত ডিসেম্বরে কুয়াশায় ঘেরা সুন্দরবনে সুধন্যখালির জঙ্গলে দেখা মিলেছিল এরকম এক রয়্যাল বেঙ্গল টাইগারের।

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla