Navjyot Sidhu to Govt: নিজের দাবিতে অনড়, ‘অনশনে বসব’ পঞ্জাব সরকারকে হুমকি সিধুর

Navjyot Singh Sidhu: দীর্ঘ টানাটানির পর পঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী পদ থেকে পদত্যাগ করেছিলেন ক্যাপ্টেন অমরিন্দর সিং। প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি সিধুর সঙ্গে অমরিন্দরের সম্পর্কে শীতলতার কথা সকলেরই জানা ছিল। মনে করা হয়েছিল সিধুর পদত্যাগের পর হয়ত পঞ্জাবে সরকার ও দলের মধ্যে সমস্যা কমবে।

Navjyot Sidhu to Govt: নিজের দাবিতে অনড়, 'অনশনে বসব' পঞ্জাব সরকারকে হুমকি সিধুর
পঞ্জাব কংগ্রেসের সভাপতি নভজ্যোৎ সিং সিধু। ফাইল চিত্র।

চণ্ডীগঢ়: আগামী বছরেই পঞ্জাবে বিধানসভা নির্বাচন (Punjab Assembly election)। তার আগেই পঞ্জাব কংগ্রংসে কোন্দল যেন থামতেই চাইছে না। ক্যাপ্টেন অমরিন্দর সিংকে (Amrinder Singh) মুখ্যমন্ত্রী পদ থেকে সরিয়ে চরণজিৎ চন্নীকে (Charanjit Singh Channi) কুর্সি দায়িত্ব দিয়েছিলেন সনিয়া-রাহুলরা। কিন্তু তাতেও দ্বন্দ থামার কোনও নামই নেই। পঞ্জাব কংগ্রেসে লাগাতার কোন্দল যে নামটিকে ঘিরে সব থেকে বেশি আবর্তিত হয়েছে, তিনি পঞ্জাব প্রদেশ কংগ্রেসর সভাপতি নভজ্যোত সিং সিধু (Navjyot Singh Sidhu)।

একাধিক ইস্যুতে প্রকাশ্যে চন্নী সরকারের বিরোধিতা করে শিরোনামে থেকেছেন সিধু। আজ, সরকার বিরোধিতার সেই সুরকে আরও সপ্তমে তুললেন তিনি। সরকারে উদ্দেশে হুমকি সুরে সিধু জানিয়ছেন মাদক ও ধর্মান্তকরণ মামলায় সরকার যদি যথাযথ রিপোর্ট পেশ করে পদক্ষেপ না নেয়, তবে তিনি অনশনে বসবেন। সিধু জানিয়েছেন, মাদকের পাচারকারীদের বিরুদ্ধে পদক্ষেপের প্রতিশ্রুতি দিয়ে সরকারে এসেছিল তাঁর, সেখানে তাদের বিরুদ্ধে কোনও পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে না।
সাংবাদিকদের তিনি বলেন, “যদি সরকার মাদক নিয়ে রিপোর্ট প্রকাশ না করে তবে আমি অনশনে বসব। মানুষকে আমাদের দেখানো প্রয়োজন কেনও পূর্ব মুখ্যমন্ত্রী ক্যাপ্টেন অমরিন্দর সিং ওই রিপোর্ট প্রকাশ করতে দেননি। এখন এই সরকারকে ওই রিপোর্ট প্রকাশ্যে আনতেই হবে। আদলত যখন রিপোর্ট প্রকাশে কোনও নিষেধাজ্ঞা জারি করেনি তবে কেন ওই রিপোর্ট প্রকাশ করা হবে না।”

দীর্ঘ টানাটানির পর পঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী পদ থেকে পদত্যাগ করেছিলেন ক্যাপ্টেন অমরিন্দর সিং। প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি সিধুর সঙ্গে অমরিন্দরের সম্পর্কে শীতলতার কথা সকলেরই জানা ছিল। মনে করা হয়েছিল সিধুর পদত্যাগের পর হয়ত পঞ্জাবে সরকার ও দলের মধ্যে সমস্যা কমবে। আদতে নির্বাচনের আগে যে সমস্যা আরও বাড়ছে তা আন্দাজ করতে পারছে কংগ্রেস হাইকম্যান্ড। চরণজিৎ চন্নীকে মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে মনোনীত করার পরই নেতৃত্বের মুখ্যমন্ত্রী নির্বাচন নিয়ে প্রকাশ্যে সওয়াল করেছিলেন সিধু। অনেকেই মনে করেন সিধু স্বয়ং পঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার স্বপ্ন দেখতেন, চন্নী মুখ্যমন্ত্রী হওয়ায় তাঁর রাজনৈতিক প্রত্যাশা ধাক্কা খায় তাই ক্রমাগত সরকার বিরোধিতার পথকেই নিজের রাজনৈতিক অস্ত্র হিসেবে বেছে নিয়েছেন তিনি।

মুখ্যমন্ত্রী পদে চন্নীর শপথ গ্রহনের পরই রাজ্য পুলিশের নতুন ডিজি ও অ্যাডভোকেট জেনারেল নির্বাচন নিয়ে প্রকাশ্যেই মুখ্যমন্ত্রীর সিদ্ধান্তে বিরোধিতায় সরব হয়েছিলেন সিধু। দীর্ঘ টালবাহানার পর অ্যাডভোকেট জেনারেলকে বদল করতে বাধ্য হয় পঞ্জাব সরকার। এখনই সিধুর এই নয়া হুমকি নতুন করে কংগ্রেসর অস্বস্তি বাড়ালো বলেই মনে করছে রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা।

আরও পড়ুন PM Modi in Noida Airport: ‘উত্তরপ্রদেশ মানেই উত্তম সুবিধা’ যোগী রাজ্যে বিমানবন্দরের শিলান্যাস করে বললেন মোদী

আরও পড়ুন TMC in Meghalaya: ‘বিরোধী দলের ভূমিকা পালন করতে পারছিলাম না’, মমতাতেই আস্থা রেখে তৃণমূলে যোগ ১২ কংগ্রেস বিধায়কের

Click on your DTH Provider to Add TV9 Bangla