বাড়ির সামনে আম গাছে ঝুলছে বিজেপি কর্মীর দেহ, চাঞ্চল্য পূর্ব বর্ধমানে

গভীর রাতে কেউ বা কারা বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে গিয়ে খুন করেছে ওই বিজেপি কর্মীকে। এমনটাই অভিযোগ পরিবারের।

  • TV9 Bangla
  • Published On - 9:34 AM, 19 Apr 2021
বাড়ির সামনে আম গাছে ঝুলছে বিজেপি কর্মীর দেহ, চাঞ্চল্য পূর্ব বর্ধমানে

পূর্ব বর্ধমান: ভোট মিটতে না মিটতেই ফের এক বিজেপি কর্মীঋ দেহ উদ্ধার হওয়ার ঘটনায় চাঞ্চল্য। পূর্ব বর্ধমান কালনার ঘটনা। বাড়ির সামনে আম গাছে তাঁর ঝুলন্ত দেহ দেখতে পায় পরিবারের লোকজন। নিহত কর্মীর নাম অখিল প্রামানিক। এই মৃত্যুর পিছনে তৃণমূলের যোগ রয়েছে এমনটাই অভিযোগ মৃত কর্মীর পরিবারের।

পূর্ব বর্ধমানের কালনার কল্যাণপুরী এলাকার কামার পাড়ার ঘটনা। পরিবারের অভিযোগ অখিল প্রামানিককে খুন করে দেহ বাড়ির সামনে একটি আম গাছে ঝুলিয়ে দিয়ে গিয়েছে দুষ্কৃতীরা। এই খুনের ঘটনায় অভিযোগের তির তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীদের বিরুদ্ধে।

এই ঘটনায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে গোটা এলাকায়। ঘটনার তদন্তে নেমেছে চাকদা থানার পুলিশ। পরিবারের সদস্যরা জানিয়েছেন, নির্বাচনের কাজকর্মে সক্রিয়ভাবে যুক্ত ছিলেন এই কর্মী। আর তার জেরেই বাড়ছিল শত্রুতা। তার জেরেই খুন করা হয়েছে বলে অভিযোগ পরিবারের। আত্মীয়রা জানিয়েছেন, রাত ১ টা পর্যন্ত পরিবারের সঙ্গেই ছিলেন অখিল প্রামানিক। পরে সকালে তাঁরা বাড়ির সামনে আম বাগানে তাঁর ঝুলন্ত দেহ দেখতে পান। কেউ বা কারা তাঁকে মাঝরাতে ডেকে নিয়ে যায় ও খুন করে ঝুলিয়ে দিয়ে যায় বলে অভিযোগ।

আরও পড়ুন: দ্বিতীয় ঢেউয়ের তোয়াক্কা না করেই দিঘার সমুদ্র সৈকতে বাড়ছে ভিড়

এই ঘটনার পর বিজেপির ব্লক সভাপতি প্রণব রায় এই ঘটনায় সিবিআই তদন্ত দাবি করেন। তিনি বলেন, ভোট শান্তিপূর্ণভাবে মিটে যাওয়ার পর তৃণমূল হুমকি দিচ্ছিল। সেই হুমকির কল রেকর্ড অনেকের ফোনেই আছে বলেও জানান তিনি। তাই এই ঘটনায় নিরপেক্ষ তদন্ত করে দোষীদের শাস্তির দাবি জানান বিজেপি নেতা।

অন্য দিকে, তৃণমূল এই দাবি অস্বীকার করেছে। তৃণমূলের দাবি রাজনৈতিক কোনও যোগ নেই, এটা নিছকই আত্মহত্যার ঘটনা। কল্যাণপুরের পঞ্চায়েত প্রধান পিন্টু খামারু বলেন, ‘ওই ব্যক্তি পেশায় রাজমিস্ত্রি ছিলেন, তাঁর আর্থিক অবস্থা তেমন ভালো ছিল না। পেটে পাথর হওয়ায় যোগাতে পারছিলেন না চিকিৎসার খরচ। তাই অভাবের তাড়নায় গলায় দড়ি দিয়েছেন।’