ভিডিয়ো: মেজাজ হারিয়ে দলীয় কর্মীকেই চড় মারলেন বাবুল, হেনস্থা করলেন সাংবাদিককেও

টালিগঞ্জে বিজেপি(BJP)-র তরফে আয়োজিত হোলি মিলন উৎসবের আয়োজন করা হয়েছিল। সেই অনুষ্ঠানেই দেরিতে আসেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী তথা বিধানসভা নির্বাচনে টালিগঞ্জের বিজেপি প্রার্থী বাবুল সুপ্রিয় (Babul Supriyo)। সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলার মাঝে এক দলীয়কর্মী বাধা দিতেই চড় মারেন তাঁকে।

ভিডিয়ো: মেজাজ হারিয়ে দলীয় কর্মীকেই চড় মারলেন বাবুল, হেনস্থা করলেন সাংবাদিককেও
চড় মারার সেই দৃশ্য।

কলকাতা: রঙের উৎসবেই মেজাজ হারালেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী তথা টালিগঞ্জের প্রার্থী বাবুল সুপ্রিয় (Babul Supriyo)। দোল উপলক্ষে একটি বিশেষ অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছিল বিজেপি। সেই অনুষ্ঠানেই দুপুর ১২টা নাগাদ আসার কথা ছিল সাংসদ বাবুল সুপ্রিয়র। কিন্তু নির্ধারিত সময়ের বেশ অনেকক্ষণ পর তিনি অনুষ্ঠানস্থলে পৌঁছন। সেখানেই এক দলীয় কর্মী তাঁকে ভিতরে যেতে বললে কথা কাটাকাটি শুরু হয়। এরপর তিনি ওই কর্মীকে সপাটে চড় মারেন। সেই দৃশ্য TV9-র চিত্র সাংবাদিকের ক্যামেরায় ধরা পড়ে।

জানা গিয়েছে, বিজেপি প্রার্থী বাবুল সুপ্রিয়র এ দিন টালিগঞ্জের একটি দোল উৎসবে যোগ দেওয়ার কথা ছিল। দুপুর ১২টা নাগাদ সেখানে পৌঁছনোর কথা থাকলেও তিনি দুপুর আড়াইটে নাগাদ পৌঁছন। বিধানসভা নির্বাচন নিয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলার মাঝেই এক দলীয়কর্মী তাঁকে বাধা দেন এবং দেরিতে আসার কারণে আগে ভিতরে যেতে অনুরোধ করেন।

ওই কর্মী বিনয়ের সঙ্গেই বাবুলকে জানান, ভিতরে সবাই তাঁর জন্য অপেক্ষা করছে। এই কথাতেই মেজাজ হারান বাবুল সুপ্রিয়। প্রথমে তিনি ওই কর্মীকে ধমক দেন এবং সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলার পরে ভিতরে টেনে নিয়ে যান। বচসা চলাকালীন আচমকাই ওই বিজেপি কর্মীকে চড় মারেন বাবুল। গোটা ঘটনায় স্তম্ভিত হয়ে যান সকলেই।

এ দিকে, এই গোটা ভিডিয়োটি রেকর্ড করা ও প্রশ্ন করা নিয়েও ক্ষুব্ধ হন বাবুল সুপ্রিয়।  চড় মারার প্রসঙ্গে TV9 ভারতবর্ষের সাংবাদিক প্রশ্ন করলে বাবুল জানান, ওই দলীয়কর্মীকে থানায় নিয়ে যাচ্ছেন। তবে প্রশ্ন করার দরুণ ক্ষোভ উগরে দেন বাবুল। এমনকি তাঁর ফোন কেড়েও নেন তিনি। বেশ কিছুক্ষণ বচসা চলার পর তিনি অবশ্য ফোনটি ফেরত দিয়ে দেন।

আরও পড়ুন: ভোটের সন্ধ্যায় ‘হামলা’, মেরে বিজেপি নেতার হাত ভেঙে দেওয়ার অভিযোগ